বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরাইলে বিপুল পরিমান অস্র উদ্ধার, মানিক ডাকাত সহ গ্রেপ্তার-২ চার পুলিশ আহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বিশেষ অভিযানে বিপুল পরিমান অস্র ও বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের মূল্যবান যন্ত্রাংশ সহ মানিক(৩৬) ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে সরাইল থানা পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার চুন্টা ইউনিয়নের রসুলপুর পূর্ব পাড়ায় তার বসত বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশের উপর হামলার দায়ে তার স্ত্রী কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভিযানকালে ডাকাত মানিক এবং তার স্বজনদের হামলায় পুলিশের দুইজন এস আই, একজন কন্সটেবল ও একজন বিশেষ আনসার আহত হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী জানায়, মানিক ডাকাতের নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ গ্র“প দীর্ঘদিন ধরে নৌপথে ও সড়কে পরিবহনে ডাকাতি করে আসছে। এ ছাড়া সে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার চোর দলের হোতা। মানিকের বাড়ি নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের বড়নগর গ্রামে। শিশুকাল থেকেই সে রসুলপুর তার নানা আবদুস ছোবহানের বাড়িতে বসবাস করছিল। এখান থেকেই তার সকল অপকর্ম পরিচালনা করে আসছে। ৩/৪ বছর আগে গ্রামের পাশে ফসলি মাঠের মাঝখানে নির্জন স্থানে বাড়ি নির্মাণ করে সে। এরপর আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে মানিক। ডাকাতি চুরি ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত সকল অস্র ও লুটপাটের মালামাল ওই বাড়িতে রাখে। গভীর রাতে সকল অপকর্মের গোপন বৈঠক হয় সেখানে। মানিকের সকল কাজে সহযোগীতা করে আসছেন তার মামা এতিম হোসেন। বিভিন্ন তথ্য ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল দুপুরে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আরশাদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ডাকাত মানিকের বসত বাড়ি ঘেরাও করে। পরে বাড়িতে প্রবেশ করে অভিযান চালায়। এ সময় ডাকাত মানিক ও তার পরিবারের সদস্যরা দেশীয় অস্রে সজ্জিত হয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। দীর্ঘক্ষণ দস্তাদস্তির পর পুলিশ মানিককে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। ততক্ষণে আহত হয় এস আই আবু বক্কর সিদ্দিক, শওকত হোসেন, কন্সটেবল ইউসুফ রানা ও বিশেষ আনসার ছিদ্দিক মিয়া। পরে তল¬াশী চালিয়ে মানিকের বসত ঘর থেকে একটি বিকল পাইপগান, পিস্তল, বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের মূল্যবান যন্ত্রাংশ, ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত বেশ কিছু অত্যাধুনিক যন্ত্র, রামদা, টেটা, বল¬ম, ছোঁড়াসহ অনেক দেশীয় অস্র উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের উপর হামলার দায়ে মানিকের স্ত্রী তাছলিমা বেগম (২৭) কে গ্রেপ্তার ও মা আনারা খাতুন (৫৫), বোন স্বপ্না বেগম (২০) কে আটক করেছে পুলিশ। মানিক ডাকাতির মামলায় পূর্বেও একাধিকবার জেল খেটেছে। মানিকের মা আনারা খাতুন স্থানীয় ইউপি সদস্য ফিরোজ মিয়া বলেন, মানিক দীর্ঘদিন ধরে জঘন্য এসব অপকর্ম করে আসছে। আমি বাঁধা দেওয়ায় আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা করেছে। তার পেছনে আমার গোষ্ঠীর কিছু লোক শক্তি যোগান দিয়ে যাচ্ছে। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আলী আরশাদ চার পুলিশ সদস্য আহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এলাকার সকল ট্রান্সফরমার চুরির হোতা ডাকাত মানিক। আমরা একটি সফল অভিযান পরিচালনা করেছি। ডাকাতের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ জাতীয় আরও খবর

সিনেমায় নাম লেখালেন নিশো; রাফীর ড্রিম প্রজেক্ট ‘সুড়ঙ্গ’ আসছে

আর্জেন্টিনার খেলা উপলক্ষে পটকা ফোটাতে গিয়ে আহত যুবক

‘মেসির নামটা বললেই আমার বুকের মধ্যে একটা গোল হয়’

বিডিনিউজ প্রধান সম্পাদকের জামিন বহাল

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের হারে উচ্ছ্বাস বিক্ষোভকারীদের, গুলিতে নিহত ১

গায়েবী মামলা দিয়েও সরকারের শেষ রক্ষা হবে না : রিজভী

১ থেকে ১৫ ডিসেম্বর দেশজুড়ে পুলিশের বিশেষ অভিযান

‘গাড়ি বন্ধ করে সমাবেশে উপস্থিতি কমানো যাবে না’

শুরু বিজয়ের মাস

রাজশাহীতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তি

সাগর-রুনি হত্যা: ৯৪ বারের মতো পেছাল তদন্ত প্রতিবেদন

আইজিপির সাথে বৈঠক; পুলিশ সদর দপ্তরের উদ্দেশে বিএনপি প্রতিনিধিদল