বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

উৎসবমুখর পরিবেশে শিশু মেধাবৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

JSC-2প্রতি বছরের ন্যায় এবারো উৎসব মুখর পরিবেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চিনাইরে অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলার সবচেয়ে বড়ো শিশু মেধাবত্তি পরীক্ষার আসর।চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রী কলেজ,আঞ্জুমান আরা স্কুল ও আবদুর রউফ চৌধুরী স্মৃতি আদর্শ কিন্ডার গার্টেনের যৌথ উদ্যোগে শিশু মেধাবৃত্তি পরীক্ষার মূখ্য সমন্বয়ক অধ্যক্ষ মকবুল আহমেদ এর পরিচালনায় গতকাল শুক্রবার সকাল ১১ টায় এ মেধাবৃত্তি পরীক্ষা উদ্ধোধন করেন র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি।এ বছর জেলার ৮ টি উপজেলার ৫৬ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহ¯্রাধিক শিশু শিক্ষার্থী এ শিশু মেধাবৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে বলে উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি জানান।তিনি আরো বলেন,২০০৪ সন থেকে এ প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে শতকারা ৫ ভাগকে শিশু মেধাবৃত্তি ও ২০ ভাগকে সাধারন বৃত্তি প্রদান করা হবে।তিনি আরো বলেন,আমরা শিশুদের সরকারি সকল পাবলিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সাহস অর্জনের সুযোগ করে দেয়ার লক্ষেই এ মেধাবৃত্তি পরীক্ষার আয়োজন করে থাকি।আমরা যখন শুরু করি তখন এতো সংখ্যক উপস্থিতি ছিলোনা।কিন্তু বর্তমানে জেলার দূর-দূরান্তের বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ দেখে আরো আশাবাদী হয়ে উঠছি।আশা করছি এ পরীক্ষা জেলার সর্বত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের এক আকর্ষনীয় পরীক্ষায় পরিনত হবে।দেশকে আগামী দিনে নেতৃত্ব দেয়ার উপযুক্ত,যোগ্য নাগরিক সৃষ্টি করতে হলে এসব মেধাবৃত্তি পরীক্ষা ব্যাপক সুযোগ প্রদাণ করবে।তিনি আরো বলেন,শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পয়সা নিয়ে বৃত্তি দেয়ার প্রবণতার বিরুদ্ধে আমাদের এ শিশু মেধাবৃত্তি এক বিপ্লব।এ মেধাবৃত্তি পরীক্ষায় চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের মহাপরিচালক প্রফেসর ফাহিমা খাতুন।এদিকে গতকাল শুক্রবার সকালে চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রী কলেজ মাঠে গিয়ে দেখা গেছে এক উৎসব মুখর পরিবেশ।মাঠে শতশত শিশু শিক্ষার্থীর পাশাপাশি শতশত অভিভাবক,শিক্ষক ব্যাপক আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছে কখন পরীক্ষা শুরু হবে।জেলার প্রত্যন্ত অনেক অঞ্চল থেকেও প্রচুর শিক্ষার্থী তাদের অভিভাবকদের সাথে নিয়ে শীতের কুয়াশা উপেক্ষা করে চিনাইরে উপস্থিত হয়েছেন।এ যেনো এক মিলনমেলা।সকলের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ কাজ করছে।গত কয়েক বছর যাবৎ এ পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী নিয়ে আসেন নাসিরনগর শিশু কানন অধ্যক্ষ আবদুল হক।তিনি জানান,চিনাইরের এ মেধাবৃত্তি পরীক্ষা সারা জেলার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ব্যাপক আগ্রহের বিষয়ে পরিনত হয়েছে।এখানে সবোর্চ্চ নিরপেক্ষতা মেনে আধুনিক পদ্ধতিতে খাতা দেখা,ফলাফল ঘোষনা সহ সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।যা আমাদের প্রতিবারই আকৃষ্ট করে।চিনাইরের মেধাবৃত্তি পরীক্ষা সফলতার কথা শুনে নিজের প্রথম শ্রেণীর শিশু রাহাত উদ্দিনকে নিয়ে এসেছেন পিতা জিলহজ্ব ভূঞা।তিনি জানান,এখানে এসে পরীক্ষার এমন সুন্দর ব্যবস্থাপনা দেখে আমার খুবই ভালো লাগছে।আশা করি এ পরীক্ষা আমাদের শিশুটির মেধা বিকাশে সহায়ক হবে।অভিভাবক জাহানারা শেখ জানান,গত বছর আমার মেয়ে অংশ নিয়ে বৃত্তি পেয়েছিলো।এবারো আশা করছি সে বৃত্তি পাবে।এখানে সবোর্চ্চ নিরপেক্ষতা মেনে চলা হয় বলে আমাদের আগ্রহ বেশী। সৈয়দাবাদ কলেজের সাবেক ভিপি ও অভিভাবক আলমগীর হোসেন জানান,চিনাইরের মেধাবৃত্তি পরীক্ষায় আমার শিশুকে নিয়ে এসে অভিভূত হয়েছি।অভিভাবকদেরকে কর্তৃপক্ষ সবোর্চ্চ সম্মাণ দিয়ে,বসার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করে,আপ্যায়নের ব্যবস্থা করে উজ্জলতম উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।আশা করি এই প্রক্রিয়া আরো বিকশিত হবে।

    
 

 

এ জাতীয় আরও খবর

যাত্রী বেশি হলে বিমানবন্দরে ল্যাব বাড়ানো হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনায় আরও ৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইল সেই ব্যাংক

মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সে বোমা আতঙ্ক, যেভাবে চলে অভিযান

মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে এবার নওগাঁর আদালতে মামলা

আমিনবাজারে ৬ ছাত্র হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ১৯ জনের যাবজ্জীবন

ওমিক্রন আতঙ্কে ভারত : ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় আবারও বাংলাদেশ

সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে, লঘুচাপটি শক্তিশালী হচ্ছে

নিয়ম ভেঙে তুলে নেওয়া হয় ৩৬৮৭ কোটি টাকা

এইচএসসিতে বসেছে প্রায় ১৪ লাখ শিক্ষার্থী

৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

কথা দিয়ে কথা রাখুন : কাদের