শুক্রবার, ১২ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিএনপিকে ছাড়া নির্বাচনে যাচ্ছে না জাপা

Arshedবিএনপিকে ছাড়া নির্বাচনে যাচ্ছেন না জাতীয় পার্টি এমনটাই জানিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। রোববার ভোর ৫টা ৫৫ মিনিটে নিজ বাস ভবনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

 

নেতাকর্মীদের তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনে যাব। তবে সুষ্ঠু নির্বাচনে যাওয়ার জন্য সব দলের অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। কারণ আওয়ামী লীগ ফাকা মাঠে গোল দিতে চাইছে। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জাতীয় পার্টি একাই সরকার ক্ষমতায় আসবে এমন আশাবাদও ব্যক্ত করেন তিনি।

 

এরশাদ বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ১০ দিন পেছানোর প্রস্তাব করা আমার দায়িত্ব ছিল। এর মধ্যে বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে হবে। এসময় দলীয় নেতাকর্মীদেরও বিএনপির সঙ্গে আলাপ করার নির্দেশ দেন তিনি।

 

বিএনপি নির্বাচনে না এলে জাতীয় পার্টি নির্বাচনে যাবে না সাফ জানিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, জাতিসংঘের সহকারী মহাসচিব অঙ্কার ফার্নান্দেস তারানকোর সঙ্গে বৈঠকে যদি কাজ না হয় তবে মন্ত্রীদের পদত্যাগ পত্র জমা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

 

এসময় দলীয় নেতাকর্মীরা এরশাদকে বলেন, দেশের মানুষ আপনার সিদ্ধান্তে উৎসাহ জানাচ্ছে। অতীতে অনেকে আড়ালে অনেক খারাপ মন্তব্য করলেও বর্তমানে আপনার প্রশংসা করছে। মসজিদে মসজিদে আপনার জন্য দোয়া করছে। ১৯৯০ সালের পরে এটাই আপনার সঠিক সিদ্ধান্ত বলেও মনে করছে অনেকে।

 

রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির চেয়াম্যান হওয়ায় হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ দেশ ছেড়ে চলে যাবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি নেতাকর্মীদের বলেন, রওশন এরশাদকে আমি নিজে দল থেকে বহিষ্কার করেছি। তার তো কোনো দল নেই, তিনি স্ব-ঘোষিত চেয়ারম্যান। যতদিন আছি আমি চেয়ারম্যান হিসেবেই থাকবো। এসময় রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আখ্যায়িত করায় মিডিয়ার প্রতিও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

 

একইসঙ্গে বাংলাদেশ ছেড়ে যাবেন না এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে থাকবেন বলে নেতাকর্মীদের আশ্বস্ত করেন তিনি।

 

আলোচনা শেষে নেতাকর্মীদের কাছে থেকে দেশের অবরোধ এবং হরতাল পরিস্থিতি জানতে চান এবং বাড়ি ফিরে বিশ্রাম নিয়ে সকালের বৈঠকে আসার নির্দেশ দেন তিনি। বাংলানিউজ