মঙ্গলবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকার সম্পাদকীয় ‘পলিটিক্যাল ক্রাইসিস ইন বাংলাদেশ’

newtimes-2এই সমস্যার দায়িত্ব পুরোপুরি ন্যস্ত আওয়ামী লীগ দলীয় নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর। জানুয়ারিতে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের তারিখ যতই ঘনিয়ে আসছে মনে হচ্ছে তিনি তার প্রতিদ্বন্ধীদের কাবু করতে ক্ষমতা আকড়ে থাকায় সংকল্পবদ্ধ। নির্বাচনের তিন মাস আগে সরকার পরিচালনাকারী দলকে ক্ষমতাসীন করার যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাংবিধানিক বিধিটি ছিল তা তিনি ২০১১ সালে আস্তাকুড়ে নিক্ষেপ করেছেন। সেটির পরিবর্তে তিনি ‘সর্বদলীয়’ সরকার গঠন করে তার সভাপতিত্ব করছেন। এটি বিরোধী দলীয় বিএনপি বা বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট পার্টির নেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার কাছে গ্রহনযোগ্য নয়। তাতে তারা উভয়েই সম্ভাব্য বিস্ফোরন্মুখ এক অচলাবস্থায় জড়িয়েছেন।

গত ২০ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের বহুল প্রচারিত নিউইয়র্ক টাইমস তাদের ‘পলিটিক্যাল ক্রাইসিস ইন বাংলাদেশ’ শিরোনামের সম্পাদকীয় কলামের দ্বিতীয় অনুচ্ছেদে ওই কথাগুলো লিখেছে।

 

সেটির সূচনায় বলেছে, বছর শুরুর পর থেকেই লাগাতার হরতালে বাংলাদেশকে অসহায় বা বিহবল (প্যারালাইজড্) করেছে এবং দুই পক্ষের মুখোমুখি সংঘাতে শতাধিক মানুষ মারা গেছে। বিরোধী দলের শীর্ষ নেতারা ছাড়াও মানবাধিকার কর্মীরা গ্রেপ্তার হয়েছেন। মৌলিক বিচার প্রক্রিয়া ব্যতিরেকেই দোষী সাব্যস্ত ও মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছে।

 

তাতে তৃতীয় অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে- ইতোমধ্যে বিএনপি’র সহযোগি জামায়াতে ইসলামীকে আসন্ন নির্বাচনে অংশগ্রহণে নিষোধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। অধিকাংশ বাংলাদেশি যারা আওয়ামী লীগ সমর্থন করেন তাদের ভয় যে দেশটি ১৯৭১ সালে পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হতে তিক্ততায় লড়েছে, সেটি হুমকির মুখে নিপতিত। কিন্তু নির্বাচনে জামায়াতে ইসলামীকে অংশগ্রহণে নিষোধাজ্ঞা আরোপ রাজপথের সমর্থকদের কেবলই হতাশাগ্রস্থ করেছে।

 

২০০৯ সালে স্থাপিত বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিচারে যে সকল ব্যক্তিকে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধকালীন নৃশংসতার জন্য দায়ী করা হয়েছে, তারা সকলেই বিরোধী দলের। আপাতদৃষ্টিতে তা রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দমন করার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে।

 

সবশেষে ওই সম্পাদকীয়তে বলা হয়েছে- যদি অধিকার খর্ব এভাবে চলতে থাকে, তা হলে আন্তর্জাতিক কমিউনিটি থেকে বাংলাদেশ চাপের মুখে পড়বে, সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞা বলবৎ হবে। প্রধানমন্ত্রী হাসিনার উচিত বাংলাদেশের বিচারব্যবস্থার স্বায়ত্ত্বশাসন ফিরিয়ে দেয়া, মানবাধিকার কর্মীদের হয়রানি বন্ধ করা এবং বিরোধী দলের সঙ্গে একত্রে কাজ করে আগামী বছরের নির্বাচনের জন্য একটি গ্রহণযোগ্য উত্তরণ সরকার প্রতিষ্ঠা।

 

অন্যদিকে, নিউইয়র্ক টাইমসের এই সম্পদকীয়টির পাশাপাশি ভারতের প্রভাবশালী ইংরেজি পত্রিকা ‘দ্য হিন্দু’ একই দিন অনুরূপ বিষয়বস্তুর আলোকে ‘ক্রিপ্লিং ডেডলক’ শিরোনামে একটি সম্পাদকীয় ছেপেছে। তাতে বলা হয়েছে- আপাতদৃষ্টিতে সামনের সপ্তাহগুলোতে বাংলাদেশের রাজনৈতিক অচলাবস্থা তীব্রতায় পর্যবসিত হবে যদি না আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ ন্যাশলিষ্ট পার্টি সর্বোচ্চ পরিপক্কতার পরিচয় দেয়।

 

দ্য হিন্দুর ওই সম্পাদকীয়তে বলা হয়েছে- এতোকিছু সত্বেও যদি খালেদা জিয়া সংঘর্ষমুখী হয়ে থাকেন, তথাপি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্ধুত্বপরায়ণ হতে পারেননি। এ বছরের শুরুতে বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ সহযোগি জামায়াতে ইসলামীর উপর আরোপকৃত নিষেধাজ্ঞা আওয়ামী লীগ নেতৃত্বের গণতান্ত্রিক ভাবমূর্তিকে সমুজ্জ্বল করেনি, তার প্রমাণ হিসেবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলাকালীন বিরোধী দল পৌর নির্বাচনে বিজয় ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে।

 

তাতে ওই সম্পাদকীয়তে অভিমত রাখা হয়েছে- এখন যা প্রয়োজন তা হচ্ছে, শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক উত্তরণের জন্য উভয় দলকে গঠনমূলক প্রক্রিয়ায় পারস্পরিকভাবে আলোচনায় বসা। কেননা বিরোধী দল ছাড়া আওয়ামী লীগের জন্য নির্বাচন জয় হবে কপট বা অন্তঃসারশূন্য (হলো)। এটা সত্যি যে,  শেখ হাসিনা ভারতের ভাল বন্ধু, তারপরও নয়াদিল্লি তার বিনিময়ে তিস্তার পানি বন্টন কিংবা সীমান্ত বিরোধ না মিটিয়ে বরং বিএনপিকে ছড়ি ঘুরাবার সুযোগ করে দিয়েছে। তাই ভারতের স্বার্থেই কোন পক্ষাবলম্বন না করে এই অচলাবস্থা বিদূরীকরণে দুই প্রধান পক্ষকে উৎসাহিত করা।

এ জাতীয় আরও খবর

নিউ জার্সিতে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স এলামনাইয়ের আহবায়ক কমিটি গঠন

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর কাল থেকে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জনপ্রিয় হচ্ছে পারিবারিক পুষ্টি বাগান

বড় পরাজয়ে শুরু বাংলাদেশের নতুন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নেওয়ার সিদ্ধান্ত

ওমিক্রন: আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ বাইডেনের

দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির সমাবেশ, চলছে প্রস্তুতি

গণপিটুনি খেয়ে অনাবিলের সেই বাসচালক ঢামেকে

করোনায় একদিনে সাত হাজারের বেশি প্রাণহানি

মেসির হাতে উঠলো সপ্তম ব্যালন ডি’অর

ওমিক্রন রোধে বেনাপোল বন্দরে সর্বোচ্চ সতর্কতা

এসএসসি পাস ছাড়া বিমা পেশায় ঢোকার পথ বন্ধ