মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিজেদের রেকর্ড ভেঙে আইপিএলের সর্বোচ্চ রান হায়দরাবাদের

news-image

স্পোর্টস ডেস্ক : মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে বিধ্বংসী ব্যাটিং করেছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ২৭ মার্চের ম্যাচে দলটি তুলেছিল ২৭৭ রান। যা ছিল আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান। ওই ম্যাচে ট্রাভিস হেড, অভিষেক শর্মা ও হেনরিক ক্লাসেন ঝড় দেখিয়েছিলেন।

এবার রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ঝড় দেখালেন ট্রাভিস হেড ও হেনরিক ক্লাসেনরা। তাদের ব্যাটে নিজেদের করা ২৭৭ রানের ওই রেকর্ড ভেঙে দিল হায়দরাবাদ। হেডের সেঞ্চুরি ও ক্লাসেনের ঝড়ো ফিফটিতে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২৮৭ রান তুলেছে হায়দরাবাদ। ঝড় দেখিয়েছেন এইডেন মার্করাম ও আব্দুল সামাদ।

বেঙ্গালুরু ঘরের মাঠ চিন্বেস্বমে স্টেডিয়ামে টস জিতেও ব্যাট করতে পাঠায় হায়দরাবাদকে। সুযোগ নিয়ে ১০৮ রানের ওপেনিং জুটি গড়ে হায়দরাবাদ। অভিষেক শর্মা ২২ বলে ৩৪ রান করে ফিরে যান। দুটি করে চার ও ছক্কা মারেন তিনি।

ভারতকে বিশ্বকাপের ফাইনালে হারানো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ট্রাভিস হেড খেলেন ১০২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। তার ইনিংস সাজানো ছিল ৪১ বলে। যাতে আটটি ছক্কা ও নয়টি চারের শট ছিল। উড়ন্ত শুরু পেয়ে যাওয়া হায়দরাবাদ এই ম্যাচে তিনে নামায় ক্লাসেনকে। তিনি ৩১ বলে ৬৭ রান করেন। তার ব্যাট থেকে চার আসে মাত্র দুটি এবং ছক্কা হাঁকান সাতটি।

এছাড়া এইডেন মার্করাম শেষে ১৭ বলে ৩২ রানের ইনিংস খেলেন। দুটি করে চার ও ছক্কা মারেন তিনি। সামাদের ইনিংস ছিল আরও বিধ্বংসী। তিনি স্লগে ১০ বল খেলে ৩৭ রান যোগ করেন। যাতে চারটি চার ও তিনটি ছক্কার শট ছিল।

বেঙ্গালুরুর রিচ টপলে ৪ ওভারে ৬৮ রান খেয়েছেন। নিয়েছেন এক উইকেট। লকি ফার্গুসন ৪ ওভারে ৫২ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন। বিজয়কুমার বশাক ৪ ওভারে দিয়েছেন ৬৮ রান। এছাড়া ইয়াশ দয়াল ৪ ওভারে ৫১ রান দিয়েছেন। এই ম্যাচে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ২৪ ছক্কার রেকর্ড করেছে হায়দরাবাদ।