মঙ্গলবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মিটিং চলাকালীন ম্যানেজারের কিছু বিরক্তিকর অভ্যাস

news-image

অনলাইন ডেস্ক : একজন ভালো ম্যানেজার হওয়া সবার জন্য সহজ নয়। অনেক ম্যানেজারের ব্যবস্থাপনাগত দক্ষতা খারাপ হতে পারে। কিছু ম্যানেজার এমন কিছু ভুলের পুনরাবৃত্তি করেন যা কর্মীদের এবং তাদের আগ্রহকে বিরক্ত করে।

মিটিং চলাকালীন ম্যানেজারদের ৫টি বিরক্তিকর অভ্যাস রয়েছে যা পরিহার করা উচিত।

রুমের চারপাশে হাঁটা: কিছু ম্যানেজার নিজেকে প্রফেসর ভাবেন। তাই মিটিংয়ে কথা বলার সময় ক্লাস নেওয়ার মতো রুমের চারপাশে হাঁটাহাঁটি করেন। এই অভ্যাস কর্মীদের কাছে প্রশংসাযোগ্য নয়।

ম্যানেজার চারপাশে হাঁটেন এবং প্রত্যেক কর্মীকে জিজ্ঞেস করেন তারা প্রতিটা বিষয়ে কী ভাবেন। সবশেষে অন্যদের মতামত বিবেচনা না করেই নিজেরটা তাদের উপর চাপিয়ে দেন। এছাড়াও এই ধরনের কাজ সময় অপচয় বলে মনে করা হয়।

মিটিং সহজে শেষ না করা: মিটিংয়ের প্রত্যেক বিষয় শেষ হওয়ার পরই কর্মীদের একবার অন্তত বাইরে হওয়ার সময় দেওয়া ‍উচিত। কিন্তু অধিকাংশ ম্যানেজার মিটিং শেষ না হওয়া পর‌্যন্ত সেখানে উপস্থিত থাকার উপর জোর দেন। এমনকি যে বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে তার সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নাও থাকতে পারে। মিটিংয়ের ভিডিওকলে অধিকাংশ ক্যামেরা বন্ধ থাকার কারণ এটি।

নোট না নেওয়া: নোট নেওয়া কেবল কর্মীর জন্যই নয় ম্যানেজারেরও উচিত আলোচনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের নোট নেওয়া। কারণ দীর্ঘ মিটিংয়ের সব বিষয় মনে রাখা সম্ভব নয়। আপনি যখন কর্মীর মতামত মূল্যায়ন করবেন, তারাও আবার অবদান রাখবে। পরবর্তী মিটিংয়ে ভালো ভালো আইডিয়া কর্মীর কাছ থেকে পাওয়া যাবে।

কর্মীকে কথা বলার মাঝখানে থামিয়ে দেওয়া: অনেক ম্যানেজার নিজেকে ঊর্ধ্বতন হাজির করেন এবং এটি দেখান কর্মীর কথা বলা, মতামত দেওয়া বা প্রেজেন্টেশনের মাঝে তাকে থামিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে। কথা বলার মাঝে থামিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে কর্মীকে বোঝানো হচ্ছে যে ম্যানেজার তার চেয়ে বেশি জানেন। এই ধরনের আচরণ কারো কাছে প্রশংসনীয় নয়।

এটি অভদ্র এবং অসম্মানজনক কাজ।

প্রস্তুতি না থাকা: মিটিংয়ে বসার সময় আপনাকে অবশ্যই ভালোভাবে জানতে হবে আপনি কী বিষয়ে আলোচনা করছ্নে। মিটিংয়ে বসে থেকে আপনি কী বিষয়ে বলতে চাচ্ছেন সেটি নিয়ে কর্মীদের অনুমানের খেলা খেলতে দিতে পারেন না।

এটি একটি সাধারণ দৃশ্য এবং ম্যানেজারদের এই বিষয়ে খেয়াল রাখা উচিত।