শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আমি খুব ধার্মিক, বললেন কঙ্গনা

news-image

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ৭২তম জন্মদিনে এক বিশেষ ই-অকশনের সূচনা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রণালয়। সারা বছর নরেন্দ্র মোদি যে উপহার পেয়েছেন সেগুলোকে নিলামে তোলা হয়েছে। এই নিলাম থেকে পাওয়া অর্থ একটি প্রজেক্টে ব্যবহার করা হবে বলে জানা গেছে। এই বিশেষ নিলামে অংশ নিয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতও। ২ অক্টোবর শেষ হয়ে গিয়েছে ১৬ দিন ব্যাপী এই নিলাম। তার আগেই কঙ্গনা দুটি জিনিস কেনার জন্য ওই নিলামে বিড করেছেন। কী কিনতে চেয়েছেন অভিনেত্রী?

নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে কঙ্গনা জানান, তিনি রাম জন্মভূমি সম্পর্কিত দুটি জিনিস কিনতে চেয়েছিলেন। কঙ্গনা লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাওয়া উপহারগুলো নিজের চোখে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে উনি যে উপহার এবং অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন সেগুলো নিজের চোখে দেখলাম। আমি রাম জন্মভূমির মাটি এবং রাম মন্দিরের মডেল কেনার জন্য নিলামে বিড করেছি। এই নিলাম থেকে প্রাপ্ত টাকা একটি প্রজেক্টে ব্যবহার করা হবে। ফলে আমাদের তো এই নিলামে অংশ নিতেই হতো। আপনারা কী কিনলেন?’

পরবর্তীতে সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা বলেন, ‘আমি খুব ধার্মিক একজন মানুষ। তাই রাম জন্মভূমির মাটি কিনতে চেয়েছি আমি। তাছাড়া রাম মন্দির কেমন দেখতে হবে তা কল্পনা করতাম অতীতে। সেই কারণেই এই মন্দিরের মডেল কিনতে চেয়েছিলাম আমি।’

ইনস্টাগ্রামে নিজের বেশ কিছু ছবিও আপলোড করেন কঙ্গনা। প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাওয়া এক নেতাজির প্রতিকৃতিকে স্যালুট করতে দেখা গিয়েছে মণিকর্নিকা খ্যাত অভিনেত্রীকে।

পোস্টে নায়িকার অনুরাগীরা ব্যাক টু ব্যাক কমেন্ট করেন। অনেকেই কঙ্গনার প্রশংসা করেন। কেউ বলেন, ‘খুব ভালো করেছেন।’ কারো মন্তব্য, ‘কঙ্গনার মতো দেশের স্বার্থে সকলের এগিয়ে আসা উচিত।’

উল্লেখ্য, দেশের প্রচুর মানুষ নানা জায়গায় প্রধানমন্ত্রীকে একাধিক উপহার দেন। সেই জিনিসগুলোই নিলামে তোলা হয়েছিল। জানা গেছে, এ বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাওয়া মোট ১২০০টি উপহার নিলাম করা হয়েছে। রিপোর্ট বলছে, নিলামে যে যে উপহারগুলো তোলা হয়েছিল তার দাম ১০০ থেকে ১০ লাখ টাকার মধ্যে ছিল। pmmementos.gov.in পোর্টালের মাধ্যমে এই নিলাম সম্পন্ন হয়েছে। এই নিলাম থেকে প্রাপ্ত অর্থ Namami Gange Project -এ খরচ করা হবে। এটি কেন্দ্রীয় সরকারের একটি প্রজেক্ট। যার উদ্দেশ্য হলো গঙ্গাকে দূষণমুক্ত করা। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস