শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতার আবেদনের সময় বাড়াল কাতার

news-image

ডেস্ক রিপোর্ট : কাতারে প্রায় চার লাখের অধিক প্রবাসী বাংলাদেশির বসবাস। গত বছরের অক্টোবর মাসে কাতার সরকারের অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা দেওয়ার ঘোষণায় আনন্দিত ছিলেন প্রবাসীরা। কিন্তু অধিকাংশ প্রবাসী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বৈধতার আবেদনের জন্য কাগজপত্র প্রস্তুত করতে না পারায় পিছিয়ে পড়েন। তবে নতুন করে অভিবাসীদের আবেদনের সময়সীমা আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

গত বুধবার কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে সার্চ অ্যান্ড ফলোআপ বিভাগ এবং ইউনিফাইড সার্ভিসেস বিভাগের আয়োজনে অভিবাসীদের কাতারে প্রবেশ, প্রস্থান এবং বাসস্থান নিয়ন্ত্রণ আইনের ওপর প্রেস ব্রিফিং করা হয়। সেখানে আবেদনের সময়সীমা বাড়ানোর কথা জানানো হয়।

ব্রিফিংয়ে বলা হয়, একজন কর্মীকে নিয়োগকর্তা থেকে অন্য নিয়োগকর্তার কাছে স্থানান্তরিত হতে সকল প্রকার আইনি সহায়তা দেওয়াসহ আগের দণ্ডিত বিভিন্ন মেয়াদের জরিমানা ৫০ শতাংশ কমিয়ে আনা হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন কামাল তাহির আল-তাইরি বলেন, এই অতিরিক্ত সময়সীমা অবৈধ অভিবাসীদের জন্য এক সোনালী সুযোগ। তিনি আরও বলেন, অনেকের কাতারের আইডির (ভিসা) মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার কারণে অবৈধ হয়ে আছেন। যারা অন্যান্য ভিসায় এসে আর আইডি না করে অবৈধ হয়ে আছেন, যারা ফ্যামিলি ভিসায় এসে মেয়াদ শেষে অবৈধ হয়ে আছেন—সবাইকে কাতার পুলিশের তদন্ত ও অনুসন্ধান অফিসের সেবাকেন্দ্রে যোগাযোগ করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

সপ্তাহের প্রতি কর্মদিবসে বেলা ১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার ভেতরে সরকারি সেবাকেন্দ্রগুলোর যেকোনো একটিতে হাজির হতে হবে। এসব সেবাকেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে উম সালাল সার্ভিস সেন্টার, উম সানিম সার্ভিস সেন্টার, মিসাইমির সার্ভিস সেন্টার, ওয়াকরা সার্ভিস সেন্টার, আল রাইয়ান সার্ভিস সেন্টার।

ব্রিফিংয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আলি আল রাশিদ, জনসংযোগ কর্মকর্তা ফয়সাল আল হুদাউই উপস্থিত ছিলেন।

দীর্ঘদিন পর এমন সুযোগের খবরে স্বস্তি নেমে এসেছে কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে। সময়সীমা বাড়ানোয় এখন অনেকেই আবেদন করার সুযোগ পাবেন। তবে এই মুহূর্তে কতজন বাংলাদেশি প্রবাসী কাতারে অবৈধভাবে বসবাস করছেন তার সঠিক তথ্য জানা যায়নি।

এ জাতীয় আরও খবর