বুধবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঈদের রান্না

news-image

ঈদের দিনে ঐতিহ্যবাহী নানা খাবার রাঁধবেন? ‘ঈদের সকালবেলাটা শুরু হওয়া চাই মিষ্টিজাতীয় খাবারে। তবে এখনকার শিশুরা অতটা মিষ্টি পছন্দ করে না। আমার দুই ছেলেমেয়ে আদ্রিক আর আরোহী, ওরাও অনেকটা মিষ্টি পছন্দ না করার দলে।’ বলছিলেন অভিনেত্রী দীপা খন্দকার। তবুও বাড়িতে সেমাই রান্না হয় ঈদের সকালবেলায়। ঈদের নামাজ সেরে ফিরলেই সবার মুখে ওঠে শাশুড়ির হাতের রান্না পরোটা-মাংস, প্রতিবছরই এমনটা হয়ে আসছে তাঁদের পরিবারে, জানালেন দীপা। আর তিনি নিজে করেন রোস্ট, পোলাও, রেজালা ইত্যাদি পদ। কোরবানির পর দুপুরের খাবারটা সারা হয় গরুর কলিজা দিয়ে। বিকেল নাগাদ মাংস কাটা শেষ হলে সদলবলে বেরিয়ে পড়েন আত্মীয়স্বজনের বাড়ি মাংস বিলাতে, ফিরতে ফিরতে রাত, এভাবেই ঈদের দিনের সমাপ্তি।

পোলাও
উপকরণ: পোলাওয়ের চাল আধা কেজি, সয়াবিন তেল ৪ টেবিল চামচ, দুধ আধা কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদাবাটা ২ চা-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, এলাচি ২টি, দারুচিনি ২ ইঞ্চি ১টি, লবঙ্গ ২টি, লবণ ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৪টি ও পানি ১ লিটার।
প্রণালি: চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার পাত্রে সয়াবিন তেল ঢেলে নিন।
4204fa6efba900807a04d72e6e544f0e-9

তেল গরম হয়ে এলে পেঁয়াজ কুচি ভেজে নিন। এবার তাতে চাল ঢেলে ১০ মিনিট ভাজুন। যখন সুগন্ধ ছড়াতে শুরু করবে, তখন আদাবাটা, রসুনবাটা, এলাচি, দারুচিনি, লবণ ও লবঙ্গ দিয়ে এক মিনিট কষিয়ে পানি দিয়ে ঢেকে দিন। বলক উঠলে চুলার আঁচ একেবারে কমিয়ে দিতে হবে। এভাবে কম আঁচে ১৫ মিনিট রাখুন। এরপর ঢাকনা খুলে নেড়ে দিন। কাঁচা মরিচ আর দুধ দিয়ে একেবারে নিবু আঁচে ১০ মিনিট চুলায় রাখুন। রান্না হয়ে এলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

গরুর মাংসের রেজালাগরুর মাংসের রেজালা
উপকরণ: গরুর মাংস আধা কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল চামচ, রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ, শুকনো মরিচ গুঁড়া ২ চা-চামচ, জিরার গুঁড়া ১ চা-চামচ, ধনে গুঁড়া ২ চা-চামচ, জায়ফল-জয়ত্রী গুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ ২ চা-চামচ, টকদই আধা কাপ, সয়াবিন তেল আধা কাপ ও আলুবোখারা ৬টি।
7a5a99c55fc1c7689bc8a4a0a9373a38-10
প্রণালি: গরুর মাংস ভালোভাবে ধুয়ে সব উপকরণ মিশিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। এভাবে বেশি আঁচে ১৫ মিনিট কষিয়ে ২ গ্লাস পানি দিয়ে ঢেকে রাখুন। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে আলুবোখারা দিয়ে পাঁচ মিনিট অল্প আঁচে চুলায় রেখে নামিয়ে নিন।

ডিমের কোর্মাডিমের কোর্মা
উপকরণ: ডিম ৪টি, টকদই আধা কাপ, কাঁচা মরিচ ৩-৪টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, চিনি ২ চা-চামচ, লবণ ১ চা-চামচ, আদাবাটা ১ চা-
9a3504c7733550d635d889a368361480-12চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ ও সয়াবিন তেল ২ টেবিল চা-চামচ।
প্রণালি: ডিম সেদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে নিন। চুলায় বসানো পাত্রে তেল দিন। তেল গরম হয়ে এলে তাতে পেঁয়াজ কুচি ঢেলে দিন। পেঁয়াজ কুচির রং বাদামি হওয়ার আগেই আদা, রসুন ও লবণ দিয়ে কষিয়ে তাতে টকদই দিয়ে নিন। সামান্য কষিয়ে তাতে ডিমগুলো ছেড়ে দিন। তারপর ১ কাপ পানি, চিনি আর কাঁচা মরিচ দিন। এভাবে ১০ মিনিটের মাথায় রান্না হয়ে যাবে।

জেলো ডেজার্টজেলো ডেজার্ট
উপকরণ: বিস্কুট (ম্যারি) ৮টি, টকদই আধা কেজি, জেলো ক্রিম ১ প্যাকেট, কনডেন্সড মিল্ক ১টি, ক্রিম ১ কৌটা।
প্রণালি: টকদইয়ের পানি ঝরিয়ে নিন। একটি সমতল পাত্রের তলায় সমান্তরালে বিস্কুটগুলো সাজিয়ে রাখুন। অন্য পাত্রে টকদই, কনডেন্সড মিল্ক ও ক্রিম ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
609c42254867f6334427a377d9ce2c8f-13

মিশ্রণটি পাত্রে রাখা বিস্কুটগুলোর ওপর ঢালুন। আরেকটি পাত্রে হালকা কুসুম গরম পানিতে জেলো ক্রিম গুলিয়ে নিন এবং তা আগের মিশ্রণের ওপর ঢালুন। স্থির করে আধা ঘণ্টা এক জায়গায় রেখে দিন। এই সময়ের মধ্যে তিনটি স্তরের পুরো মিশ্রণ জমাট বাঁধবে। পরে কেটে পরিবেশন করুন।

মুরগির রোস্টমুরগির রোস্ট
উপকরণ: দেশি মুরগি ২টি (প্রতিটি ৪ টুকরা করে কাটা), পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদাবাটা ২ চা-চামচ, রসুনবাটা ২ চা-চামচ, শুকনো মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা-চামচ, জায়ফল-জয়ত্রী গুঁড়া ১ চা-চামচ, গুঁড়া মসলা ১ চা-চামচ, চিনি ২ চা-চামচ, লবণ ২ চা-চামচ, টকদই আধা কাপ, সয়াবিন তেল ৪ টেবিল চামচ ও কাঁচা মরিচ ৬-৭টি।
dcb1423af622ee07b6cdf3613f16a2df-11
প্রণালি: পাত্রে তেল গরম করে প্রথমে মুরগির টুকরাগুলো হালকা করে ভেজে নিন। ভাজা হলে তাতে চিনি বাদে সব উপকরণ দিন। ১ কাপ পানি দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে নিন। আবারও ১ কাপ পানি দিয়ে, চিনি ছিটিয়ে দিন। শেষে কাঁচা মরিচ দিয়ে পাত্রটি ঢেকে রাখুন ১৫ মিনিট। এরপর নামিয়ে পরিবেশন করুন।