বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চুম্বনে ক্যান্সার আক্রান্তের সম্ভাবনা!

news-image

ঠোঁটে ঠোঁট রেখে ব্যারিকেড করে আর প্রেমের উপস্থাপন করা মনে হয় সম্ভব হবে না। কারণ সঙ্গী বা সঙ্গীনির আদরের চুম্বনে বেড়ে যাচ্ছে ক্যান্সারের মত প্রাণঘাতি রোগে আক্রান্ত হবার সম্ভবনা।

সম্প্রতি মেইল সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয় ধূমপানের থেকেও চুম্বন অধিকতর বিপদজনক। মাথা ও ঘাড়ে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়াতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেয়েছে এই চুম্বনের

গবেষকরা জানান, চুম্বনের মাধ্যমে হিউম্যান পাপিললোমা (এইচপিভি) নামে একটি ভাইরাস স্থানান্তরিত হয়। ওরাল সেক্সের মাধ্যমে এই ভয়াবহ ভাইরাস দেহে ছড়িয়ে পড়তে পারে। বিশেষ করে ‘ফ্রেঞ্চ কিসের’ সময়। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, গলবিলে অর্থাৎ ঘাড় ও গলাতে অবস্থিত পরিপাকনালীর অংশ এইচপিভি আক্রান্তদের সাধারণ মানুষের থেকে ২৫০ বার বেশি ক্যান্সারের ঝুঁকি থাকে। এইচপিভি সাধারণভাবে সার্ভিক্যাল ক্যান্সারের (জরায়ু মুখের ক্যান্সার) সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত হলেও এটি নারী-পুরুষ উভয়কে সংক্রমিত করে।

অস্ট্রেলিয়ার মাথা ও ঘাড় বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মাহিবান থমাস জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যৌন আকাঙ্ক্ষার পাশাপাশি সাধারণ চুম্বনেও এইচপিভি স্থানান্তরিত হতে পারে। আর ‘ফ্রেঞ্চ কিসিং এর মাধ্যমে সঙ্গীদের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়ায় বেশি।