সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে ইভটিজিং এর প্রতিবাদে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, বখাটেদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী

news-image

বিশেষ প্রতিনিধি : শনিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ চেষ্টা, শারিরীক নির্যাতন ও উত্যক্ত করার প্রতিবাদে বখাটেদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। সকালে উপজেলার কাইতলা যজ্ঞেশ্বর উচ্চ বিদ্যালয় ও কাইতলা জুবেদা মহাবিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা ইভটিজিং এর বিরুদ্ধে ব্যানার ফেষ্টুন নিয়ে চিহ্নিত বখাটে রিয়াজসহ তার সহকর্মীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানায়। জানা যায়, গত ৬ মে কাইতলা যজ্ঞেশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর এক মেধাবী ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়ার পথে একই গ্রামের সেলিম মাষ্টার এর পুত্র চিহ্নিত সন্ত্রাসী বখাটে রিয়াজ জামাল ও তার সহপাঠিরা রাস্তায় উত্যক্ত, শারিরীক নির্যাতন ও অপহরনের চেষ্টা চালায়। এসময় ওই মেয়ের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে ওই বখাটেরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকাবাসী সহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্দ হয়ে উঠে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, ইতিপূর্বেও তিনবার এ ধনেরর ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু গ্রামের কিছু মাতব্বররা মিমাংসার নামে এসব ঘটনা মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে। যার ফলে এলাকার বখাটেদের দ্বারা প্রায়ই স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ইভটিজিংয়ের শিকার হচ্ছে। এ ব্যাপারে ওই বখাটে ও তার পিতা সেলিম মাষ্টারের সাথে মোবাইলে বারবার চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ লিয়াকত আলী বলেন, এলাকায় বখাটে সন্ত্রাসীদের উৎপাত বেড়ে গেছে। আমরা এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানচ্ছি। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান বলেন, সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা হউক। ওই নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা মোঃ ফারুক আহম্মেদ সেলিম বলেন, এ ঘটনা এলাকার মাতব্বররা মিমাংসার জন্য আমাকে চাপ দিচ্ছে। ছেলের পরিবার হুমকি দিচ্ছে। আমি আইনের মাধ্যামে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি। শিবপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ কাউসার আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় ওই বখাটে পালিয়ে গেছে তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।