বৃহস্পতিবার, ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নাম বদলের পর সেবাও উধাও

B.Baria Pic-1আমিরজাদা চৌধুরী : তিতাস গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন থেকে বাখরাবাদ গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন। বছর চারেক আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্যাস বিতরনকারী প্রতিষ্ঠানের এই পরিবর্তন ইতিহাস-অস্তিত্বেই আঘাত করেছিলো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষের। আর ৪ বছর পর সেবাধর্মী এই প্রতিষ্ঠানের কার্য্যক্রমে ভর করেছে রাজ্যের হতাশা । ভূক্তভোগী মানুষের উপলব্দি নামের সাথে সবই গেছে তাদের। নতুন গ্যাস সংযোগ পাওয়ার আবেদনের পাহাড় জমেছে,কিন্তু সংযোগ নেই। কোম্পানীর কর্মকর্তারা বলছেন সংযোগ দেয়ার জন্যে প্রয়োজনীয় মালামাল নেই তাদের ভান্ডারে।  
খোদেজা বেগম। সুহিলপুরের গৌতমপাড়ার রিয়াজ মিয়ার স্ত্রী। একক গ্যাসের চুলার সংযোগের জন্যে গত বছরের মে মাসে ব্যাংকে টাকা জমা করেন তিনি। তার চাহিদাপত্র নম্বর ১৬০৪৪,তারিখ-১৫/৫/১৪ ইং। কিন্তু এখন পর্যন্ত সংযোগ পাননি তিনি। রোববার বাখরাবাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘাটুরাস্থ অফিসে আসেন খোদেজা। চাহিদাপত্রটির সঙ্গে নিয়ে এসেছেন প্রতিবন্ধী ছেলে ফরহাদ মিয়ার পরিচয়পত্র। ফরহাদ আসমাতুন্নেছা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলের ভোকেশনাল শ্রেনীর ছাত্র। কর্মকর্তা-ঠিকাদারকে পুত্রের এই পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিশেষ সহানুভূতি পাওয়ার চেষ্টাই করছিলেন এই মা। শুধু খোদেজাই নয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হাজার হাজার মানুষ আবেদন করে গ্যাস পাচ্ছেননা। জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম নেতা তাজ মো: ইয়াছিন এমন গ্রাহকদের আরেকজন। তিনিও ১৪ মাস আগে টাকা পরিশোধ করে চাহিদাপত্র নিয়ে অপেক্ষায় আছেন। ইয়াছিন বলেন মালামাল নেই বলে আমাদেরকে জানানো হচ্ছে। 
বাখরাবাদ গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের ব্রাহ্মণবাড়িয়া অফিসে খোজ করে জানা যায়- তাদের এলাকাধীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া,আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলার মোট ১২ হাজার ৫৬ জন তাদের বাসাবাড়িতে গ্যাস সংযোগ পাওয়ার আবেদন জমা করেছেন। এগুলো জমা পড়েছে ২০১৩ সালের জুন মাসের দিকে সংযোগ চালু হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন সময়ে। অফিসের বারান্দায় রাখা সিটিজেন চার্টারে স্পষ্ট করেই বলা হয়েছে- চুক্তিপত্র সম্পাদনের পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে সার্ভিস লাইন নির্মান করা হবে। অর্থাৎ গ্রাহকরা গ্যাস সংযোগ পাবেন। কিন্তু এমন কতো শত ১৫ দিন পেড়িয়ে গেছে এর কোন হিসেব নেই। বাখরাবাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উপমহাব্যবস্থাপক মো: খায়রুল আলম বলেন- সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে উল্লেখিত সময়ের মধ্যে গ্যাস সংযোগ দেয়া যায়। মালামালের অভাবে আমাদের সমস্যা হয়েছে। মালামাল এ সপ্তাহের মধ্যেই চলে আসবে। এরপর আমরা যতো দ্রুত সম্ভব পেন্ডিং কাজগুলো করে ফেলবো। গ্যাসে ভাসছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া। শতকারা হিসেবে দেশে উৎপাদিত গ্যাসের ৫০ ভাগেরও বেশী গ্যাস উৎপাদিত হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। গুনী ব্যাক্তি, শিল্প-সংস্কৃতির সঙ্গে জেলার প্রধান নদী ‘তিতাস’ আর এর নামানুসারে হওয়া ‘তিতাস গ্যাস’ ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে পরিচিত করেছে বিশ্বের দরবারে। সেই তিতাস গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশনকে হটিয়ে ২০১১ সালের জুলাই মাসে রাতের আধারে বাখরাবাদের সাইনবোর্ড তুলা হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। কিন্তু এখানকার মানুষের মনের সেই কষ্ট দূর করতে পারেনি বাখরাবাদ। বরং এখন তা ক্ষোভে পরিণত হয়েছে।  অভিযোগ উঠেছে তিতাসের সেবার চেয়ে বাখরাবাদের সেবা অনেক পিছিয়ে। জেকে বসে সেবাতেও মন ভুলাতে পারেনি তারা।  উপমহাব্যবস্থাপকের সঙ্গে কথা বলার সময় তার কক্ষেই দুই ঠিকাদার আমিনুল হক সাহেদ ও মাহিন খন্দকার বলেন- তিতাস থাকতে টাকা পয়সা জমা দিয়েই গ্রাহকরা সংযোগ পেয়ে গেছেন।  আর বাখরাবাদে সিরিয়াল অনুসারে সংযোগ হয়। এই দুই ঠিকাদার বলেন ৩ মাসের মধ্যে গ্যাস দেবো বলে গ্রাহকদের কাছ থেকে আমরা টাকা নিয়েছি। এখন তাদের চাপে টিকতে পারছিনা। এবিষয়ে উপমহাব্যবস্থাপক মো: খায়রুল আলম বলেন- তিতাস তাদের ৫০ বছরে সংযোগ দিয়েছে প্রায় ১৫ হাজার গ্রাহককে। আর আমাদের এক-দেড় বছরের মধ্যে আবেদন পড়েছে ১২ হাজারের বেশী। তিনি বলেন, আমাদের সেবার কোন সংকট নেই। এদিকে গ্যাস সংযোগের এই বিলম্বিত সময়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ টানার হিড়িক পড়েছে। বাখরাবাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া অফিস নিয়ন্ত্রিত তিন উপজেলায় কয়েক হাজার অবৈধ গ্যাস  সংযোগের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। যদিও এসব সংযোগ বিচ্ছিন্ন  করতে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালাচ্ছে। রাতের অন্ধকারে ইলেকট্রিক মেশিন দিয়ে খুবই বিপদজ্জনক ভাবে এই সংযোগ দেয়া হচ্ছে। তাছাড়া ভান্ডারে মালামাল নেই বলেও আবেদনকারীদের কাছ থেকে সংযোগ বেধে ৫০ হাজার থেকে দেড়-দু-লাখ টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নিচ্ছে ঠিকাদারদের কেউ কেউ।  

 

এ জাতীয় আরও খবর

যুদ্ধাপরাধে হবিগঞ্জের শফির প্রাণদণ্ড, তিনজনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

কর্মী সংকট : যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ৬ শতাধিক ফ্লাইট বাতিল

১০ দিনে তিস্তার পানি ৫ বার বিপদসীমার ওপরে, আবারও বন্যার আশঙ্কা

তিনদিনের ব্যবধানে ৪ সাহিত্যিকের বিদায়

সিলেটে বন্যায় ৭২ লাখ মানুষের সহায়তা প্রয়োজন

পদ্মা সেতুর নাট খোলা বায়েজিদ ক্ষমা চাচ্ছেন: সিআইডি

চলতি অধিবেশনে ৯০ শতাংশ সময় ব্যয় হয়েছে পদ্মা সেতুর আলোচনায় : রুমিন

‘আবারও অঘটন’ ঘটালেন অপূর্ব!

ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

একাকিত্ব সইতে না পেরে গলায় ফাঁস নিলেন শিক্ষক!

এবার বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়েতেও মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ হচ্ছে!

ষড়যন্ত্রের ফলে পদ্মা সেতু নির্মাণে দেরি হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী