বুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঢাকার পথে লতিফ সিদ্দিকী

littif siddiqueডেস্ক রির্পোট : ২৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি হোটেলে প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীর সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্য নিয়ে দুই সপ্তাহ ধরে দেশজুড়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমি কিন্তু হজ আর তাবলিগ জামাতের ঘোরতর বিরোধী। আমি জামায়াতে ইসলামীরও বিরোধী।’ তিনি বলেন, বিপুলসংখ্যক মানুষ হজে যাওয়ায় দেশের অর্থ আর শ্রমশক্তির অপচয় হয়। উত্পাদনেও এর প্রভাব পড়ে।
লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্যের ভিডিও দেশের গণমাধ্যমে প্রচার ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে মানুষ। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন জেলায় অন্তত দুই ডজন মামলা হয়েছে। একই অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানিয়েছে বিএনপিসহ বেশ কয়েকটি ইসলামী সংগঠন।
এদিকে যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরে গত ৩ অক্টোবর গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিসভা ও আওয়ামী লীগ থেকে লতিফ সিদ্দিকীকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই অনুযায়ী লতিফ সিদ্দিকীর অপসারণের প্রস্তুতি গতকাল সম্পন্ন করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্যপদ থেকেও তাকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার উদ্দেশ্যে রবিবার সন্ধ্যায় বসছে দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠক। সব মিলিয়ে লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে আজই দুই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। আজই মন্ত্রিত্ব ও দলীয় পদ সব হারাচ্ছেন লতিফ সিদ্দিকী। মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টি এখন প্রজ্ঞাপন জারির অপেক্ষায়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গতকাল বন্ধের দিনেও খোলা ছিল এবং এ-সংক্রান্ত সব কাজ সম্পন্ন করেছে। আজ যে কোনো সময় এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হবে বলে জানা গেছে। এদিকে আজ সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের সভা। এ সভায় দলীয়ভাবেও তার বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সরিয়ে দেওয়া হবে প্রেসিডিয়ামের সদস্যপদ থেকে। 
এদিকে তার পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, আবদুল লতিফ সিদ্দিকী দেশে ফিরে আসছেন। ঢাকার পথে গতকাল তিনি নিউইয়র্ক থেকে লন্ডন এসে পৌঁছান। সেখানে দু'এক দিন অবস্থান করতে পারেন তিনি। সূত্র জানায়, গত রাতে এ রিপোর্ট লেখার সময় তিনি হিথরো বিমানবন্দর থেকে টেলিফোনে ঢাকায় তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন।