বুধবার, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এবিবি বাংলাদেশে আনল ইম্যাক্স২

নতুন প্রজন্মের এয়ার সার্কিট ব্রেকার ইম্যাক্স২ বাংলাদেশের বাজারে আনল এবিবি লিমিটেড বাংলাদেশ। সার্কিট ব্রেকার হচ্ছে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালিত ইলেকট্রিক্যাল সুইচ যা শর্টসার্কিট বা ওভারলোড হওয়া থেকে ইলেকট্রিক্যাল সার্কিটকে সুরক্ষা দেয়। ২১ মে রাজধানীর একটি হোটেলে নতুন পণ্য উন্মুক্ত করার ঘোষণা দেয় এবিবি।



লো ভোল্টেজ পণ্যের নির্মাতা হিসেবে এবিবি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় একটি প্রতিষ্ঠান। পাওয়ার ও অটোমেশন প্রযুক্তির ক্ষেত্রে বিভিন্ন সেবা দিতে কাজ করে এবিবি। বিশ্বের ১০০টি দেশে এক লাখ ৪৫ হাজারের বেশি কর্মী কাজ করছেন এবিবি গ্রুপে। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় সুইজারল্যান্ডের জুরিখে।



এবিবি আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবিবি লিমিটেড বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজর্ষি ব্যানার্জি ও প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠানে ইন্ডিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকা (আইএমএ) অঞ্চলের এবিবির কর্মকর্তা শ্রী জিত্ আর, রবার্তো স্যানডুরা, জ্যঁ পেয়ারি ফাই ও অরবিন্দ আর তাঁদের বিভিন্ন পণ্য সম্পর্কে উপস্থাপনা করেন।

নতুন পণ্যের ঘোষণা দিচ্ছেন এবিবির কর্মকর্তা রাজর্ষি ব্যানার্জিবাংলাদেশের বাজারকে এবিবি সব সময় দ্রুত বর্ধনশীল বাজার হিসেবে বিবেচনা করে উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে রাজর্ষি বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতোই সব সময় সর্বশেষ প্রযুক্তি এ দেশে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে এবিবি।



ইম্যাক্স২ সম্পর্কে এবিবির কর্মকর্তারা জানান,  ৪১৫ ভোল্ট এয়ার সার্কিট ব্রেকার টাইপ ইম্যাক্স-২ পণ্যটি সব ধরনের সুইচগিয়ার, অটোমেশন ও এনার্জি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের সমন্বয়, যা উত্পাদন বাড়াতে ও শক্তি সাশ্রয়ী হিসেবে ব্যবহার করা যায়।



অনুষ্ঠানে ইম্যাক্স২ ছাড়াও লো ভোল্টেজের বেশ কিছু পণ্য উন্মুক্ত করে এবিবি। এর মধ্যে রয়েছে কনট্যাক্টরস, ক্ষুদ্র সার্কিট ব্রেকার, ওয়্যারিং অ্যাক্সেসরিজ, কন্ট্রোল পণ্য প্রভৃতি।

অনুষ্ঠানে এবিবির কর্মকর্তারা দাবি করেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাঁদের কারখানা রয়েছে এবং বিশ্বমানের এসব কারখানা থেকে তৈরি পণ্যগুলো যেকোনো ইলেকট্রিক্যাল সিস্টেমে নিরাপদ। বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশে সিস্টেমকে রক্ষা করতে এবিবির পণ্যগুলো কার্যকর। এ ছাড়া পরিবেশবান্ধব পণ্য হিসেবে শক্তি উত্পাদন প্ল্যান্ট, ডাটা সেন্টার, হাসপাতাল বা গুরুত্বপূর্ণ ভবন তৈরিতেও এবিবির পণ্য ব্যবহার করা যাবে।

 বর্তমানে গাজীপুরে এবিবি অ্যাসেম্বল কারখানা রয়েছে, সেখান থেকে লো ভোল্টেজের প্যানেল তৈরি করছে প্রতিষ্ঠানটি। এবিবি জানিয়েছে,  বাংলাদেশ তাদের আফটার সেলস সার্ভিসের ক্ষেত্রে উন্নত সেবা দিতে চায় তারা।  লো ভোল্টেজ পাওয়ারের জন্য যে ধরনের প্রযুক্তি-সেবা প্রয়োজন, সেই ধরনের সমাধান দিতে পারে প্রতিষ্ঠানটি। সার্কিট ব্রেকার্স, সুইচ, কন্ট্রাক্টরস, এনক্লোজার থেকে শুরু করে বাড়ির স্বয়ংক্রিয় প্রযুক্তির মতো ক্ষেত্রেও এবিবি কাজ করে।