বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পুরুষের স্টাইল : ২৪টি সহজ উপায়ে হয়ে উঠুন অপ্রতিদ্বন্দ্বী

pic-1অনেকেই ধারণা করেন স্টাইলিস্ট পুরুষ হয়ে ওঠার জন্য আপনার ব্যাপক উদ্যোগ নিতে হবে। ইটালির সর্বশেষ ফ্যাশন বিষয়ে সচেতনতা, নিউ ইয়র্কের সর্বশেষ ফ্যাশন ইত্যাদির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ ফ্যাশন অবলম্বন করতে হবে। তবে বাস্তবে এসব ঝামেলার কোনো প্রয়োজন নেই।
বিশ্বসেরা কয়েকজন ফ্যাশন ডিজাইনার বিলি রেইড, জন ভার্ভাটোস ও জোয়ে টিয়ার্নির সঙ্গে পরামর্শ করে এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার। এ লেখায় দেওয়া ২৪টি সহজ উপায় অবলম্বন করুন। হয়ে উঠুন ফ্যাশন সচেতন।
১. প্রয়োজনে ঢিলে করুন আপনার টাই
অনেক সময় টাই ঢিলে করাই হতে পারে স্টাইল। তবে বিষয়টি এতোটা সহজ নয়। এজন্য শার্টের উপরের দুটি বোতাম খুলে রাখতে পারেন। তবে অন্য বোতামগুলো খোলা যাবে না।

pic-2২. জুতা চকচকে রাখুন
এ বিষয়টি অনেকেই তেমন একটা গুরুত্ব দেন না। কিন্তু বাস্তবে এ বিষয়টি আপনার স্টাইলের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। চকচকে জুতা আপনাকে বহু মানুষের থেকে আলাদা ও স্বতন্ত্র স্টাইলের বলে ধারণা প্রকাশ করবে।
৩. আপনার অ্যাক্সেসরিজ মিলিয়ে নিন
বিষয়টি অনেকের কাছে সাধারণ মনে হলেও বাস্তবে এর গুরুত্ব রয়েছে। অনেকেই জুতার সঙ্গে বেল্টের মিল রাখতে ভুলে যান।
৪. সিম্পল ডিজাইনের বেল্ট
ডিজাইনার বিলি রেইড বেল্টকে সহজ ও প্রয়োজনীয় বলেই মনে করেন। অতিরিক্ত ডিজাইনের বেল্টের চেয়ে সিম্পল ডিজাইনের বেল্টই এখন ফ্যাশনের জন্য কার্যকর।
৫. মূল বিষয় পরিবর্তন করুন
আপনার ওয়াড্রোবের ভেতর তাকান। বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাক পরুন। সাদা অক্সফোর্ড ডিজাইন থেকে শুরু করে ডেনিম শার্ট পর্যন্ত পরতে থাকুন।
৬. টিশার্ট পরুন
অনেকেই শীতে পোশাকের ভেতর টি শার্ট পরতে অভ্যস্ত। কিন্তু বাইরের পোশাকে টি শার্ট পরেন না। কিন্তু সে ধারা প্রচলিত ছিল ১৯৫০-এর দশকে। এখন শুধু টি শার্ট পরেও স্টাইল করা যায়।
৭. বেল্ট পাল্টে নিন
পুরুষের স্টাইলের ক্ষেত্রে আলস্য একটি বড় প্রতিবন্ধকতা। এ আলস্য কাটিয়ে উঠে আপনার বেল্টগুলো পাল্টে পাল্টে পরুন।
৮. মোজা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়
জুতার সঙ্গে মোজা মিলিয়ে পরার প্রয়োজন নেই। কিন্তু এর চেয়ে সহজ একটি বিষয় লক্ষ্য করা প্রয়োজন। আপনার বেশভূষার একটি সাধারণ রং নির্বাচন করুন। এরপর সে রং অনুযায়ী আপনার টাই, শার্ট ও ব্লেজার ও মোজার রং নির্বাচন করুন।

pic-3৯. টাই পরুন
কোনো অনুষ্ঠানে যাওয়ার প্রয়োজনে অনেকেই টাই পরতে চান না। একে শুধুই অফিসের বিষয় হিসেবে গণ্য করেন অনেকে। কিন্তু ক্যাজুয়াল লুকের ক্ষেত্রেও টাই পরা সম্ভব। আর এজন্য প্রয়োজন টাইয়ের নটগুলো ঠিকঠাক বাঁধাও শিখে নেওয়া।
১০. পোশাকে ছোঁয়ান রং
ক্যাজুয়াল পোশাকের ক্ষেত্রে মানানসই রঙিন পোশাক পরায় কোনো বাধা নেই।
১১. কলার ঠিক করুন
শার্টের এলোমেলো কলার অনেক সময় ফ্যাশনের বারোটা বাজায়। এ কারণে কলারের ভেতর স্থাপন করতে পারেন ‘কলার স্টে’। সামান্য দামেই এটি পাওয়া যায়।

pic-4১২. রুমাল বহন করুন
এ বিষয়টি সরাসরি ফ্যাশনের কাজে না লাগলেও গরমে ঘাম মুছে পোশাক রক্ষা করতে, আপনার পোশাকে রাগা সামান্য ময়লা মুছে ফেলতে এটি কার্যকর। এর সাহায্যে রক্ষা করতে পারবেন আপনার পোশাক।
১৩. দর্জিকে বন্ধু বানান
যে দর্জির মাধ্যমে আপনি পোশাক সেলাই করেন, তাকে বন্ধু বানিয়ে নিন। তারা চেষ্টা করলেই আপনার ফিট না হওয়া পোশাক ঠিক করে দিতে পারেন।
১৪. উন্নত কাপড় পছন্দ করুন
ভালো দর্জির পাশাপাশি উন্নতমানের কাপড় পছন্দ করাও গুরুত্বপূর্ণ। মানসম্মত ও টেকসই কাপড় ছাড়া ভালো সেলাই দিয়ে ফ্যাশন সম্ভব নয়।
১৫. বুট পরতে পারেন
সাধারণ জুতার পাশাপাশি একটু স্টাইলিস্ট বুট পরে দেখতে পারেন। এতে নতুনত্ব আসবে আপনার বেশভূষায়।
১৬. হাল ফ্যাশনের কিছু চেষ্টা করুন
প্রত্যেক বছরই নতুন কোনো না কোনো বিষয় আসে। এর সবকিছু যে অনুসরণ করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। কিন্তু দু-একটি হাল ফ্যাশনের জিনিস আপনার পোশাকে থাকলে তা আকর্ষণ বাড়াবে।
১৭. এ বছরের রং গ্রহণ করুন
টুইটারে প্রচলিত ফ্যাশন কিংবা মিলান ম্যান্স শো থেকে ডিজাইন পছন্দ করার প্রয়োজন নেই। কিন্তু প্রত্যেক বছর একটি নির্দিষ্ট রঙের ওপর ডিজাইনারদের লক্ষ্য থাকে। সে রংটি অনুসরণ করুন।
১৮. লেদার জ্যাকেটে বিনিয়োগ করুন
ভালোভাবে ফিট হওয়া লেদার জ্যাকেটের সঙ্গে প্রায় সব পোশাকই মানিয়ে যায়। এ কারণে এবারের শীতে ব্যবহার করতে পারেন একটি লেদার জ্যাকেট।
১৯. আপনার শরীরের সঙ্গে পোশাকের মিল নির্ণয় করুন
আপনার শরীরের সঙ্গে মানানসই একটি পোশাকের মাপ নির্ণয় করুন। এটি হতে পারে কোনো একটি ব্র্যান্ডের নির্দিষ্ট মাপের পোশাক। এরপর প্রয়োজনে সে মাপ অনুযায়ী পোশাক সংগ্রহ করুন।
২০. ঘড়ি
অতীতে যখন মোবাইল ফোন ছিল না, তখন ঘড়িই ছিল মানুষের স্টাইলের একটি অনুষঙ্গ। কিন্তু এখনও সে সময় চলে যায়নি। সবার হাতে মোবাইল ফোন থাকলেও ঘড়ি থাকে না। আর এ কারণেই মানানসই ঘড়ি এখন আবার ফিরে এসেছে আপনার স্টাইলের অনুষঙ্গ হিসেবে।
২১. বাস্তব অনুষঙ্গ রাখুন
বাস্তবে প্রয়োজন অনুযায়ী অনুষঙ্গ ব্যবহার করুন। এর মধ্যে থাকতে পারে টাই বার। এটি ব্যবহার করুন, টাই ঠিক রাখার জন্য। সময় দেখার প্রয়োজনে ঘড়ি ইত্যাদি রাখা যেতে পারে।
২২. আগামী বছরের ডেনিম পরুন
উপযুক্ত ডেনিম পরার জন্য এ বছরের এবং তার আগের বছরের প্রচলিত ডেনিমের রং লক্ষ্য করুন। এরপর আগামী বছরের ডেনিম কেমন হবে তা অনুমান করার চেষ্টা করুন।
২৩. হ্যাট
হ্যাট কিংবা ক্যাপ, এগুলোর আবেদন ম্লান হয়নি এখনও। প্রয়োজনে পরতে পারেন এগুলোও।
২৪. সব সময় আরামদায়ক পোশাক পরুন
পোশাকের ক্ষেত্রে আরামটা অনেক বড় বিষয়। আপনার আরাম অনুযায়ী কাপড় পছন্দ করুন এবং তা সেভাবে সেলাই করান। অন্যথায় ভণ্ডুল হতে পারে সম্পূর্ণ বিষয়টি।

এ জাতীয় আরও খবর

সারা দেশে অভিযান চালাবে পুলিশ

সিনেমায় নাম লেখালেন নিশো; রাফীর ড্রিম প্রজেক্ট ‘সুড়ঙ্গ’ আসছে

আর্জেন্টিনার খেলা উপলক্ষে পটকা ফোটাতে গিয়ে আহত যুবক

‘মেসির নামটা বললেই আমার বুকের মধ্যে একটা গোল হয়’

বিডিনিউজ প্রধান সম্পাদকের জামিন বহাল

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের হারে উচ্ছ্বাস বিক্ষোভকারীদের, গুলিতে নিহত ১

গায়েবী মামলা দিয়েও সরকারের শেষ রক্ষা হবে না : রিজভী

১ থেকে ১৫ ডিসেম্বর দেশজুড়ে পুলিশের বিশেষ অভিযান

‘গাড়ি বন্ধ করে সমাবেশে উপস্থিতি কমানো যাবে না’

শুরু বিজয়ের মাস

রাজশাহীতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তি

সাগর-রুনি হত্যা: ৯৪ বারের মতো পেছাল তদন্ত প্রতিবেদন