সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জাপানে আশঙ্কাজনক হারে কমছে শিশুদের সংখ্যা

babyডেস্ক রির্পোট : গড় আয়ু বেড়ে যাওয়ায় জাপানে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে পৌঢ়দের সংখ্যা। অন্যদিকে জন্মহার হ্রাস পাওয়ায় কমছে শিশুদের সংখ্যা। গত পয়লা এপ্রিল জাপানে ১৫ বছরের কমবয়সি ছেলেমেয়েদের সংখ্যা ছিল আনুমানিক এক কোটি ৬৩ লক্ষ ৩০ হাজার৷ অথচ, এক বছর আগে এ সংখ্যা ছিল এক লাখ ষাট হাজার বেশি। এ নিয়ে উদ্বিঘ্ন জাপান সরকারও।

১৯৫০ সালে জনসংখ্যাগত এই সব তথ্য সংগ্রহ করা শুরু হয়৷ বিগত ৩৩ বছর ধরে জাপানে শিশুদের সংখ্যা এভাবে প্রতি বছর কমে আসছে৷ স্বরাষ্ট্র এবং যোগাযোগ মন্ত্রণালয় এই পরিসংখ্যান রেখে থাকে৷ দুই মন্ত্রণালয়ের মতে জাপানে শিশুদের সংখ্যা একটি রেকর্ড পর্যায়ে নেমে গেছে৷ অপরদিকে ৬৫ বছরের বেশি বয়সের প্রবীণদের সংখ্যা রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছেছে৷ অর্থাৎ জাপানের বাসিন্দারা একদিকে যেমন বেশিদিন বাঁচছেন, অন্যদিকে তাদের জন্মহারও একইভাবে কমছে৷

বর্তমানে জাপানের জনসংখ্যায় শিশুদের অনুপাত মাত্র ১২ দশমিক আট শতাংশ৷ সে তুলনায় ৬৫ বছর অথবা তার বেশি বয়সের মানুষদের অনুপাত ২৬ দশমিক ছয় শতাংশ, যা কিনা একটা রেকর্ড৷ অন্তত চার কোটি জনসংখ্যার দেশগুলির মধ্যে জাপানেই শিশুদের অনুপাত সবচেয়ে কম৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শিশুদের অনুপাত হল ১৯ দশমিক পাঁচ শতাংশ; চীনে ১৬ দশমিক চার শতাংশ৷

অপরদিকে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির এ দেশে এখন ১২ কোটি ৭২ লক্ষ ৯৮ হাজার মানুষের বাস। এর মধ্যে যারা দীর্ঘকাল জাপানে বাস করছেন, এমন বিদেশিদেরও ধরা হয়ে থাকে৷ ২০১৩ সালের পয়লা অক্টোবরের তুলনায় জাপানের জনসংখ্যা শূন্য দশমিক ১৭ শতাংশ কমেছে৷ এভাবে চলতে থাকলে ২০৬০ সালে জাপানের জনসংখ্যার ৪০ শতাংশের বেশি মানুষের বয়স হবে ৬৫ বছর কিংবা তার বেশি৷ এটা খোদ জাপান সরকারের ভবিষ্যদ্বাণী৷