বৃহস্পতিবার, ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কসবায় ট্রান্সফর্মার চুরির হিড়িক

brahmanbaria-sm20140129151135ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বৈদ্যুতিক ট্রান্সফর্মার চুরির হিড়িক পড়েছে। ওয়েলডিং ও শিকলে আটকে দিয়েও রক্ষা করা যাচ্ছে না। পল্লী বিদ্যুতের হিসাব অনুযায়ী গত ১৫ মাসে ৩৭টি ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। এ ঘটনা থানায় ৩৮টি মামলাও হয়েছে। এদিকে গত শুক্রবার রাতে উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের ধামসার গ্রামে ট্রান্সফর্মার চুরির সময় হাতেনাতে রবিউল হাসান ওরফে অহেদ মিয়া (২০)-কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। গ্রেপ্তার হওয়া রবিউল হাছান ওরফে অহেদ মিয়া কসবা উপজেলার খাড়েরা গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে। স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কসবা উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের ধামসার গ্রামের সরুজ মিয়ার বাড়ির পশ্চিম পাশে ১৫ কেভি একটি ট্রান্সফর্মার গত বছর চুরি হয়ে গেছে। সেই ট্রান্সফমারের অধীনের গ্রাহকরা ৩৬ হাজার টাকা দিয়ে পুনরায় ট্রান্সফমার স্থাপন করে ওয়েলডিং করে শিকল দিয়ে বেঁধে দিয়েছেন। সেই থেকে চুরি প্রতিরোধে পাহারা বসানো হয়েছে। শুক্রবার গভীর একটি সংঘবদ্ধ চোরের দল ধামসার গ্রামের ট্রান্সফর্মারটি চুরি করার জন্য খুলার চেষ্টা করছেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন রবিউল হাসান ওরফে অহেদ মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কসবা আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) আবদুল সাত্তার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে। গ্রেপ্তার হওয়া রবিউল হাসান ওরফে অহেদ মিয়াকে গত শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিচারিক হাকিমের আদালতে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ সূত্রে জানা গেছে,  ২০১৩ সনে ৩৫টি এবং চলতি বছরে দু’টি ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। গত মার্চ মাসে উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের বগীর গ্রামের ফারুক মিয়ার বাড়ির সামনের ট্রান্সফর্মারটি চুরি হয়েছে। ফারুক মিয়া বলেন, আগের বছরও তাদের ট্রান্সফমারটি চুরি হয়েছে। ওয়েলডিং করেও তা রক্ষা করতে পাচ্ছি না। চুরি হলেই আমাদের টাকা দিয়ে পুনরায় ট্রান্সফর্মার আনতে হচ্ছে। গত ফেব্রুয়ারি মাসে উপজেলার খাড়েরা গ্রামের ১৫ কেভি আরও একটি ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। ধামসার গ্রামের ইউপি সদস্য আনু মিয়া বলেন, ট্রান্সফর্মার চুরির হিড়িক পড়ে গেছে। সেচ মওসুমে একের পর এক ট্রান্সফর্মার চুরির কারণে ইরি-বোরো চাষ হুমকির মুখে পড়েছে। তিনি আরও বলেন, রবিউল হাসান ওরফে অহেদ মিয়া (২০)-কে ট্রান্সফমার চুরির সময় হাতেনাতে আটক করা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কসবা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মো. মিজানুর রহমান বলেন; ২০১৩ সনে ৩৫টি এবং চলতি বছরে ২টি  ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। ওয়েলডিং ও শিকলে আটকে দিয়েও রক্ষা করা যাচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, সংঘবদ্ধ চোরের দল ট্রান্সফর্মার চুরি করে নিয়ে ভেতরে পিতলের তৈরি মূল্যবান জিনিসগুলো বিক্রি করে বাকিগুলো ফেলে দেয়। তিনি বলেন, ট্রান্সফর্মার চুরির অভিযোগে থানায় ৩৮টি মামলা করা হয়েছে। কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, ট্রান্সফর্মার চুরির অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতকে গত শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিচারিক হাকিমের আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

 

 

mzamin.com

এ জাতীয় আরও খবর