সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এখন চলছে কথার লড়াই

532fda672f8f0-Ronaldoচরম উত্তেজনা আর নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে মাঠের লড়াই। কিন্তু রোমাঞ্চকর ‘এল ক্লাসিকোর’ উত্তাপ টের পাওয়া যাচ্ছে ম্যাচ শেষেও। বল দখলের লড়াই শেষে এবার কথার লড়াইয়ে জড়িয়েছেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের খেলোয়াড়েরা। দুইবার এগিয়ে গিয়েও হার নিয়ে মাঠ ছাড়ার কষ্ট কিছুতেই ভুলতে পারছেন না ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। মুহুর্মুহু তোপ দাগছেন রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তগুলোর দিকে। পাল্টা জবাব দিতে দেরি করছে না বার্সেলোনা শিবিরও। অভিযোগ করা বন্ধ করে রোনালদোকে ফলাফল মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বার্সা ডিফেন্ডার পিকে।



গতকালের এল ক্লাসিকোটি ছিল এবারের লা লিগার অন্যতম প্রধান শিরোপা নির্ধারণী লড়াই। জয়ের জন্য মরিয়া হয়েই লড়েছিলেন দুই দলের ফুটবলাররা। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল ২-২ গোলের সমতা নিয়ে। দ্বিতীয়ার্ধে খেলোয়াড়দের পাশাপাশি ফল নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন রেফারিও। প্রথমে রিয়াল মাদ্রিদ ও পরে বার্সেলোনার পক্ষে দিয়েছেন দুটি পেনাল্টি। লাল কার্ড দেখিয়েছেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোসকেও। রোনালদোর মনে হয়েছে, তাঁরা ১১ জনের বিপক্ষে না, খেলছিলেন ১২ জনের বিপক্ষে। বার্সেলোনাকে শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে টিকিয়ে রাখতে রেফারি মহা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই পর্তুগিজ তারকা, ‘উদিয়ানো মালেনসো এ ধরনের ম্যাচের জন্য মোটেই উপযোগী নন। আমাদের ১২ জনের বিপক্ষে খেলতে হয়েছে। মনে হয়েছে যেন তারা আমাদের জিততে দিতে চায় না। তারা বার্সেলোনাকে শিরোপার দৌড়ে টিকিয়ে রাখতে চায়। আমি কোনো অজুহাত খুঁজছি না। কিন্তু আমি এ ব্যাপারে চুপও থাকব না। আমি এখানে পাঁচ বছর ধরে আছি আর জানি যে এখানে সবকিছু কীভাবে চলে। বার্সেলোনা যদি হেরে যেত তাহলে তারা শিরোপা জয়ের লড়াই থেকে ছিটকে পড়ত। আমি কখনোই দেখিনি যে, রেফারি রিয়াল মাদ্রিদকে সুনজরে দেখছে।’



বার্সেলোনা শিবির থেকেও এই অভিযোগের পাল্টা জবাব আসতে দেরি হয়নি। রোনালদোর এমন আচরণকে লজ্জাজনক বলেই অভিহিত করেছেন বার্সেলোনার ডিফেন্ডার পিকে। ম্যাচ শেষে তিনি বলেছেন, ‘এ রকম একটা অসাধারণ ম্যাচের পর রোনালদো রেফারিকে নিয়ে অভিযোগ করছেন। এটা সত্যিই লজ্জাজনক। আমরা যদি রেফারির প্রতিটা সিদ্ধান্ত নিয়েই আলোচনা করি, তাহলে দেখা যাবে রোনালদোর পেনাল্টির সিদ্ধান্তটাও সঠিক ছিল না। রেফারিকে নিয়ে কথা বলাটা অন্যায্য। তিনি ম্যাচের ফলাফলে কোনো প্রভাব রাখেননি।’— গোল ডটকম