মঙ্গলবার, ৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রাশিয়া নিমেষেই ছাই করে দিতে পারে আমেরিকাকে!

image_780_112959আমেরিকাকে যে কোনো মুহূর্তে রেডিওঅ্যাকটিভ ছাইয়ে পরিণত করতে পারে রাশিয়া। এমন দাবি করেছেন, রাশিয়ার প্রখ্যাত সাংবাদিক দিমিত্রি কিসলিয়ভ। ইউক্রেন সঙ্কট তথা ক্রিমিয়া ভূখ- একীভূত করা নিয়ে ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যে চলমান তীব্র টানাপড়েনের মধ্যেই সোমবার এ সতর্কবাণী উচ্চারণ করেন সাংবাদিক কিসলিয়ভ। মূলত ইউক্রেন সঙ্কট নিয়ে আমেরিকা কর্তৃক রাশিয়ার কয়েকজন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা আসার পরই কিসলিয়ভ এ মন্তব্য করেন। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত আমেরিকার পক্ষ থেকে কোনো ধরনের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা হয়নি। উল্লেখ্য, কিসলিয়ভ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিনের খুব ঘনিষ্ঠ সাংবাদিক। তথ্যসূত্র : রয়টার্স, ন্যাশনাল পোস্ট রোসিয়া-১ টেলিভিশন চ্যানেলের উপস্থাপক কিসলিয়ভ সোমবার উপযুক্ত তথ্য-প্রমাণ তুলে ধরে বলেন, 'রাশিয়া হচ্ছে পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যে কিনা সত্যিকার অর্থেই আমেরিকাকে রেডিওঅ্যাকটিভ ভস্মে পরিণত করতে পারে।' আমেরিকার জনগণই ভস্নাদিমির পুতিনকে বারাক ওবামার চেয়ে শক্তিমান নেতা মনে করে এই রুশ সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, 'প্রেসিডেন্ট ওবামা কেন বারবার পুতিনকে ফোন করে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলেন?' পক্ষান্তরে, ওবামা বেশি শক্তিশালী হলে পুতিনই তো তাকে টেলিফোন করতেন বলে মন্তব্য করেন কিসলিয়ভ। রাশিয়ার পরমাণু অস্ত্রভা-ার নিয়ে ওবামা ব্যাপকভাবে উদ্বিগ্ন। বিশেষ করে 'পেরিমিটার' নামে পরিচিত রাশিয়ার ডেড হ্যান্ড সিস্টেমকে আমেরিকা মারাত্মক ভয় পায় বলে জানান কিসলিয়ভ। স্নায়ুযুদ্ধের সময় মস্কো এ ব্যবস্থা চালু রেখেছিল বলেও জানান তিনি। কিসলিয়ভ আরো বলেন, 'এমন কি শত্রুর আক্রমণের পর যদি আমাদের সব কমান্ড পোস্টের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব না-ও হয়, তাহলেও এই সিস্টেম স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরমাণু অস্ত্রবাহী মিসাইলগুলোকে নির্ধারিত লক্ষ্যবস্তুতে নিক্ষেপ করবে।' সাংবাদিক দিমিত্রি কিসলিয়ভকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিনের খুব ঘনিষ্ঠ সাংবাদিক। গত ডিসেম্বরে পুতিন তাকে রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত একটি সংবাদ মাধ্যমের প্রধান হিসেবে নিযুক্ত করেন। এ কারণেই পুতিন এবং রাশিয়াকে আলাদাভাবে উপস্থাপন করতেই এ ধরনের সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ইউক্রেনের স্বায়ত্তশাসিত প্রজাতন্ত্র ক্রিমিয়ার পক্ষ থেকে সোমবার একতরফাভাবে স্বাধীনতা ঘোষণা এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন ক্রিমিয়াকে 'স্বাধীন ও সার্বভৌম' রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর মস্কো-ওয়াশিংটন দ্বন্দ্ব চরমে পেঁৗছেছে। ফলশ্রুতিতে সোমবারই আমেরিকা রাশিয়ার বেশ কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। ঠিক এই উত্তেজনার মধ্যেই রাশিয়ার একজন সাংবাদিকের পক্ষ থেকে আমেরিকাকে ছাইয়ে পরিণত করার হুমকি এলো। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়া এবং আমেরিকার মধ্যে চলমান অচলাবস্থা আরো বেশি ঘনীভূত করতে পারে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। তবে অচলাবস্থা ঘনীভূত হলেও এ টানাপড়েনকে স্নায়ুযুদ্ধ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন অনেক বিশ্লেষক। 

এ জাতীয় আরও খবর