রবিবার, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জিপিএ-৫- পেয়েছে ৩৫৭৮জন শিক্ষার্থী

primary examব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় মোট ৫৮ হাজার ৯শত ৫৩জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ৩ হাজার ৫শত ৭৮জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। জিপিএ-৫-পাওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১৫৫১জন বালক এবং ২০২৭জন বালিকা। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় ১০ হাজার ৭শত ৩৮জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫- পেয়েছে ৯৫৮ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ৪৪৯ জন বালক এবং ৫০৯ জন বালিকা। নবীনগর উপজেলায় ১১ হাজার ১শত ০৫জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৯০জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ৩৩১ জন বালক এবং ৪৫৯ জন বালিকা। কসবা উপজেলায় ৭ হাজার ৩শত ০৬জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২৯ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ১৪৬ জন বালক এবং ১৮৩ জন বালিকা। সরাইল উপজেলায় ৫ হাজার ৪শত ৫৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪৭ জন শিক্ষার্থী । জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ১০৩ জন বালক এবং ১৪৪ জন বালিকা। বাঞ্চারামপুর উপজেলায় ৬ হাজার ৪শত ৩৬জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৫৩ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ১৮১ জন বালক এবং ২৭২ জন বালিকা। আখাউড়া উপজেলায় ৩ হাজার ৬শত ০৩জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩৩ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ৬৯ জন বালক এবং ৬৪ জন বালিকা। নাসিরনগর উপজেলায় ৫ হাজার ৩শত ৯৮জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮৫জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ৩৮ জন বালক এবং ৪৭ জন বালিকা। আশুগঞ্জ উপজেলায় ৩ হাজার ৪শত ৬০জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০০ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ১৩৬ জন বালক এবং ১৬৪ জন বালিকা। বিজয়নগর উপজেলায় ৫ হাজার ১শত ৫৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৮৩ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫-প্রাপ্তদের মধ্যে ৯৮ জন বালক এবং ১৮৫ জন বালিকা।