সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড নির্বাচন : কেন্দ্র পরিবর্তন, কারচুপির আশঙ্কা প্রার্থীদের

news-image

প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচনে কারচুপির আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রার্থীরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাচনের রিটানিং কর্মকতা বরাবর লিখিত এ অভিযোগ করেন প্রার্থীরা।


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, আগামী মাসের (৪ জুন) বাঞ্ছারামপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আবদুল কাদির-আবদুল লতিফ পরিষদ, স্বতন্ত্র মনির হোসেন-আবদুল মোমেন পরিষদ এবং স্বতন্ত্র মকবুল হোসেন অংশ নেয়। ওই নির্বাচনে উপজেলার ৬৪৫জন মুক্তিযোদ্ধা ভোটার ভোট দেবেন।


লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, পূর্বের সব কটি নির্বাচন উপজেলা সদরের থানা কলোনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনের তফশিল ঘোষনার পর ওই কেন্দ্র পরিবর্তন করে বাঞ্ছারামপুর ডিগ্রি কলেজ এ স্থাপন করা হয়। এতে সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা কেন্দ্র দখল করে প্রতিপক্ষ সরকার দলীয় প্রার্থী আবদুল কাদির-আবদুল লতিফকে নির্বাচন জিতিয়ে দিতে ওই কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ করা হয়। নির্বাচনের পূর্বে কেন্দ্রটি পূর্বের থানা কলোনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পুনঃস্থাপন করে ভোট কারচুপি বন্ধ করতে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়।


মনির হোসেন ও মকবুল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ভোট কারচুপি করতেই কেন্দ্র পরিবর্তন করা হয়েছে, আমরা পূর্বের কেন্দ্র বহাল করতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। আরো বলেন, আমাদেরকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে কেন্দ্রে না যেতে, সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে আমরা শঙ্কিত।


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, বড় পরিসরে ভোট গ্রহন করতে থানা কলোনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সরিয়ে বাঞ্ছারামপুর ডিগ্রি কলেজে স্থানান্তর করা হয়েছে। ভোট কারচুপির কোনো সুযোগ নাই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বেশি করে ফোর্স নিয়োগ করা হবে।