বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নাসিরনগরে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ৩০,গ্রেফতার ১৩

Attackব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসির নগরের চৈয়ারকুড়ি বাজারে সি এন জি ষ্টেশন দখলকে কেন্দ্র করে গোকর্ণ ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামের মোঃ ইমরান ও জেঠা গ্রামের মোঃ সাজিদুর রহমানের দ্বন্ধকে কেন্দ্র করে গোর্কন ইউনিয়নের নুরপুর ও জেঠাগ্রামের দু'দল গ্রামবাসীর সংর্ঘষে পুরুষ, মহিলা ও পুলিশসহ প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছে । 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ছিল । পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ২টি টিয়ারসেল, ৪০ রাউন্ড ফাঁকাগুলি ও ৫টি শর্ট গানের গ্যাস নিক্ষেপ করেছে বলে নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আব্দুল কাদের জানিয়েছে ।
আজ বুধবার সকার ৮টা থেকে ১২টা পর্যন্ত চলা সংর্ঘষে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা চৌধুরী মোয়াজ্জম  আহমেদ, উপজেলা চেয়ারম্যান এ টি এম মনিরুজ্জামান সরকার, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃআব্দুল কাদের , সদর সার্কেল শাহ আলম বকাউল উপস্থিত থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে । 

সংর্র্ঘষ চলাকালে হামলাকারীরা গোর্কন ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জেঠাগ্রামের মোঃ খসরু মিয়ার বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর , লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ  করেছে বলে খসরু মিয়া জানান । তিনি বলেন, তাতে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে । 
আহতদের মাঝে এএসআই মিজানুর রহমান, কনষ্টেবল মোঃ ডালিম সরকার ও  মোঃ শিবির আহমেদ কে নাসিরনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।
মুমুর্ষ অবস্থায় নুরপুর গ্রামের মোঃ আব্দুর রহমান কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে । 

পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে । এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা না হলেও প্রস্তুতি চলছে ।