শনিবার, ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আখাউড়া স্থলবন্দরে অনির্ষ্টিকালের জন্য রফতানি বন্ধ

Akaura 31.3.14সোমবার থেকে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে মাছ রফতানি ও মঙ্গলবার থেকে সব প্রকার পণ্য রফতানি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে স্থলবন্দরের আমদানি-রফতানিকারক সমিতি। 

শনিবার মাছ রফতানি কার্যক্রমে গড়িমসি ও বিভিন্ন সময়ে ব্যবসায়ীদের হয়রানি এবং ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে বাড়তি সুবিধা নেওয়ার প্রতিবাদে রোববার আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশন এ সিদ্ধান্ত নেয়। 

স্থলবন্দরের আমদানি রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. রাজিব ভূঁইয়া বাংলানিউজকে জানান, শনিবার সহকারী শুল্ক কর্মকর্তার গাফিলতি ও গড়িমসির কারণে মাছ রফতানি করতে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে ৭ ঘণ্টা বেশি সময় লাগে। 

এতে রফতানি অপেক্ষায় থাকা মাছে পচন ধরেছে। পরে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা এসব মাছ নিতে অনীহা প্রকাশ করে। তাই সমিতির পক্ষ থেকে সোমবার মাছ রফতানি ও মঙ্গলবার থেকে সব প্রকার পণ্য রফতানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

ব্যবসায়ীদের দাবি, মাছ রফতানি সম্পূর্ণ শুল্কমুক্ত হওয়া সত্ত্বেও সহকারী শুল্ক কর্মকর্তা তাদের কাছ থেকে বাড়তি সুবিধা আদায়ের জন্য নানা গড়িমসি করেন।

আখাউড়া স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন বাবুল জানান, আখাউড়া স্থলবন্দরের বর্তমান সহকারী-কমিশনার নানা অজুহাতে ব্যবসায়ীদের হয়রানি করছে। ফলে, রফতানিকারকদের  প্রায় সময়ই বিরাট অংকের লোকসান গুণতে হচ্ছে। 

মঙ্গলবারের মধ্যে হয়রানিসহ সব সমস্যা সমাধান না হলে এ বন্দর দিয়ে ব্যবসায়ীরা সব ধরনের পণ্য রফতানি বন্ধ করে দেবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে আখাউড়া স্থলবন্দরের সহকারী-কমিশনার (শুল্ক) মিয়া মোহাম্মদ নাজমুল হোসেন জানান, ডলারের সঙ্গে পণ্যের মূল্য সমন্বয় করার কথা বলাতেই ব্যবসায়ীরা মাছ রফতানি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাছাড়া বেশ কয়েকটি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান তাদের লাইসেন্স নবায়ন না করে পণ্য রফতানি করতে চেষ্টা করছে। এসব বিষয়ে বাধা দেওয়ায় তারা মাছ রফতানি না করার সিদ্ধান্তের কথা আমাদেরকে জানিয়েছে। 

এ জাতীয় আরও খবর