শনিবার, ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সর্বস্তরের জনতাকে সজাগ থাকতে হবে

DSC08726দেশের বিভিন্ন স্থানে বিএনপির-জামাত কর্তৃক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়দের ঘর-বাড়িতে হামলা-ভাঙ্গচুর, লুটপাট, অঙ্গিসংযোগ ও তাদের বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদ, মানুষ হত্যা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আগুন দিয়ে পুরিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে জড়িতদের আবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত  মূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগ। আজ ১৪ জানুয়ারী দুপুর ১২ টায় স্থানীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার নারী-পুরুষ সমবেত হয়ে সংখ্যালঘুদের উপর হামলার প্রতিবাদে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করে। উক্ত মানববন্ধন  ও প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র, জননেতা মোঃ হেলাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগ ও ১৪ দলের সমন্বয়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা আমানুল হক সেন্টু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক সাবেক পৌর চেয়াম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার। জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ মাসুম বিল্লার সভাপত্তিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল হোসেন রুবেল এর পরিচালনায় প্রতিবাদ সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক  তাজ মোহাম্মদ ইয়াছিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবর রহমান বাবুল, দফতর সম্পাদক গোলাম মহিউদ্দিন খান খোকন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি হাবিবুল্লাহ বাহার, কৃষকলীগ সভাপতি ছাদেকুর রহমান শরীফ, স্বেচ্ছা সেবকলীগ সভাপতি এড. লোকমান হোসেন, জেলা যুবলীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মশিউর রহমান লিটন, শহর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জুম্মান। এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাসেল মিয়া, সহ-সভাপতি আনিছুর রহমান রনি, অশেষ রায়, দফতর সম্পাদক সাইদুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগ নেতা রিফাত রহমান শরীফ, সৈয়দ দিপু জামান, সোলাইমান, শাকিল, মোজাম্মেল, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক কাজী খাইরুল, শেখ রাসেল, সদস্য শহিদুল আলম জীবন, শহর ছাত্রলীগ নেতা ছগির হেসেন, এ কে বাবু, মিকাইল হোসেন হিমেল, সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন শোভন, সাধারণ সম্পাদক লাভলু চৌধুরী, পৌর কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি সাইদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ওমর চৌধুরী সুমন প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সংখ্যালঘুরা এ দেশের নাগরিক। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে, গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও দেশের উন্নয়নে তাদের অনেক অবদান রয়েছে। তাছারা আবহমান কাল থেকে তারা দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অক্ষুন রেখে বসবাস করে আসছে। শুধু মাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে তাদের উপর হামলা করা মানবতা বিবজির্ত অপরাধ। তিনি বলেন, দেশের দু একটি রাজনৈতিক গোষ্ঠি বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে এবং সরকারের উপর আর্ন্তজাতিক চাপ প্রয়োগ করতে দেশের সংখ্যালঘুদের উপর হামলা করছে। তিনি আরো বলেন, এই অশুভ গোষ্ঠির অপতৎপরতা এখনই রোধ করা না গেলে আমাদের পার্শবর্তী দেশ ভারতে বসবাস রত সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের উপর এর প্রভাব পড়বে। তাই দেশের সার্থে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা বন্ধ করতে হবে। মেয়র কঠোর হস্তে এই সন্ত্রসীদের দমন করতে সরকারের প্রতি আহবান জানান। এসময় তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ছাত্রলীগ নেতা কর্মী সহ সমাজের সর্বস্তরের জনতাকে আহবান জানান।