মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলের সামরিক গোয়েন্দাপ্রধানের পদত্যাগ

news-image

ইসরায়েলের সামরিক গোয়েন্দাপ্রধান মেজর জেনারেল আহারন হালিভা পদত্যাগ করেছেন। গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের হামলা ঠেকাতে ব্যর্থতার দায় নিয়ে হালিভা তাঁর পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। আজ সোমবার ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

হালিভা প্রথম কোনো উচ্চপর্যায়ের ইসরায়েলি কর্মকর্তা, যিনি ৭ অক্টোবরের হামলা ঠেকাতে ব্যর্থতার দায় নিয়ে পদত্যাগ করলেন।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, সামরিক গোয়েন্দা প্রধান হিসেবে গত ৭ অক্টোবরের ঘটনার ব্যর্থতার দায় নিয়ে হালিভা ইসরায়েলের সেনাপ্রধানের সঙ্গে আলাপ করে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। সিদ্ধান্ত হয়েছে, নিয়ম অনুসারে ও পেশাগত প্রক্রিয়া মেনে উত্তরসূরি নিয়োগের পর হালিভা তাঁর দায়িত্ব ছেড়ে দেবেন, তিনি অবসরে যাবেন।

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীতে ৩৮ বছরের পেশাগত জীবন হালিভার। পদত্যাগপত্রে তিনি ৭ অক্টোবর হামাসের হামলা ঠেকাতে ব্যর্থতার দায় নেওয়ার কথা উল্লেখ করেছেন।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী সাংবাদিকদের হালিভার পদত্যাগপত্রের একটি অনুলিপি দিয়েছে। সেখানে হালিভা লিখেছেন, ২০২৩ সালের ৭ অক্টোবর হামাস ইসরায়েলে আকস্মিকভাবে প্রাণঘাতী হামলা চালায়। এই ঘটনার ক্ষেত্রে তাঁর নেতৃত্বাধীন সামরিক গোয়েন্দা বিভাগ অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পারেনি। তখন থেকে তিনি এই কালো দিনটিকে তাঁর সঙ্গে বয়ে বেড়াচ্ছেন। তিনি দিনের পর দিন, রাতের পর রাত এই যন্ত্রণা বয়ে বেড়াচ্ছেন। ভয়াবহ এই যন্ত্রণা তিনি আজীবন বয়ে বেড়াবেন।

হালিভা তাঁর পদত্যাগপত্রে এই হামলার ঘটনা নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন। ইসরায়েলের সরকারি তথ্যের ভিত্তিতে এএফপি বলছে, হামাসের ওই হামলায় ১ হাজার ১৭০ জন নিহত হয়েছে।

জবাবে সেদিন থেকেই ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় পাল্টা হামলা শুরু করে ইসরায়েল। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুসারে, চলমান ইসরায়েলি হামলায় নিহত মানুষের সংখ্যা ৩৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।