মঙ্গলবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শীতের সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন কৃষকরা

news-image
তৌহিদুর রহমান নিটল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : শীতকালীন আগাম সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন  জেলার কৃষকরা। ভালো দাম পাওয়ায় সবজি চাষে আগ্রহ বেড়েছে তাদের। মাঠে-মাঠে শোভা পাচ্ছে ফুলকপি, বাঁধাকপি, টমেটো, লাউসহ হরেক রকমের শীত কালীন সবজি। জেলা কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, জেলায় শীতকালীন সবজির উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৪০টন।জানা যায়,আসন্ন শীত মৌসুমকে সামনে রেখে জেলার বিস্তীর্ণ কৃষি জমিতে লাউ, টমেটো, ফুলকপি, বাঁধাকপি, লাল শাক, পালংশাক, সিম, উচ্ছে করলাসহ নানা জাতের শাকসবজি আবাদে এখন ব্যস্ত সময় পার করছে জেলার কৃষকরা।
কৃষি বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, জেলায় ৭২২ হেক্টর জমিতে টমেটো, ৬৬৫ হেক্টর জমিতে মূলা, ৬২৫ হেক্টর জমিতে ফুলকপি, ৩৮৫ হেক্টর জমিতে বাঁধাকপি, ৬৮০ হেক্টর জমিতে লাউ, ১৯৬ হেক্টর জমিতে পালং শাক ছাড়াও বিভিন্ন সবজির আবাদ হচ্ছে।কৃষকরা জানিয়েছেন, জেলায় রাজা (হাইব্রিড), কনক রাজা ছাড়াও স্থানীয় জাতের টমেটো, মাউন্টেন, হোয়াইট গোল্ড, সিরাজী জাতের ফুলকপি, অম কুইন, অগ্রদ্রুত জাতের বাঁধাকপি, বারী লাউ-১, ডায়না জাতের লাউ, টিয়া ও স্থানীয় জাতের করলার ব্যাপক আবাদ হয়েছে। মাঠের অবস্থা ভাল। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে উৎপদিত সবজি বিক্রি করে আশানুরূপ লাভ করতে পারবেন।
 কৃষক নাজজু মিয়া জানান শীতে সবজির ব্যাপক চাহিদা। তাই স্থানীয় কৃষি সহায়তায় এবার শীতের সবজি চাষ করেছি।আরেক  কৃষক ইদ্রিস মিয়া জানান, এবার আবহাওয়া খুবই ভাল। ফলে ভাল সবজি উৎপাদন করতে পারব। বাজারে সবজির দাম ভালো। খরচের তুলনায় লাভের অংক ভালো পাওয়া যাবে। যদি ফলন ভাল হয়।
এই ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কৃষি বিভাগ জানান, জেলা জুড়ে বিভিন্ন কৃষি জমিতে শীতকালীন সবজি আবাদ করা হয়েছে। এতে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সর্বত্মক সহযোগিতা ও পরামর্শ দেয়া হয়েছে। অনেক এলাকার মাঠের ফলন যাতে ভালো তা সরেজমিনে দেখে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে সবজির চাহিদা পূরণের পাশাপাশি কৃষক লাভবান হবে এমনটাই প্রত্যাশা।