বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লন্ডনে নওয়াজ-শেহবাজের ৬ ঘণ্টার বৈঠক

news-image

অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তান মুসলিম লীগের (পিএমএল-এন) প্রধান ও সাবেক পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের সাথে বৈঠক করেছেন দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ। যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের অজ্ঞাত একটি স্থানে দীর্ঘ ৬ ঘণ্টার এই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

দীর্ঘ এই বৈঠকে পাকিস্তানের রাজনীতি ও নির্বাচন নিয়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া বৈঠকে দলীয় অন্যান্য নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। বৃহস্পতিবার (১২ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডন এবং ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তান মুসলিম লীগের (এন) এই বৈঠকে ইসলামাবাদে আগাম কোনো নির্বাচন আয়োজন না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া পাকিস্তানের নাগরিকদের অর্থনৈতিক দুরবস্থা থেকে মুক্তি এবং আর্থিক বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদী সিদ্ধান্ত নেওয়াকেই আপাতত শেহবাজ শরীফের নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রাথমিক লক্ষ্য হওয়া উচিত বলে নির্ধারণ করা হয়।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল বলছে, লন্ডনের একটি অজ্ঞাত স্থানে দীর্ঘ ছয় ঘণ্টাব্যাপী এই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ, তার ভাই ও পাকিস্তান মুসলিম লীগের (পিএমএল-এন) প্রধান নওয়াজ শরীফ ছাড়াও খাজা আসিফ, মিফতাহ ইসমাইল, মরিয়ম আওরঙ্গজেব, আত্তা তারার, রানা সানাউল্লাহ, ইসহাক দার, আয়াজ সাদিকসহ অন্যান্য নেতারা ছিলেন।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সম্প্রতি আস্থা ভোটে ক্ষমতা হারানোর পর দক্ষিণ এশিয়ার পারমাণবিক শক্তিধর এই দেশটিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে শেহবাজ শরীফের নেতৃত্বে জোট সরকার ক্ষমতায় আসে। তবে ক্ষমতা হারানোর পর থেকেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান ক্রমাগত আগাম সাধারণ নির্বাচনের আহ্বান জানিয়ে আসছেন।

সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, বৈঠকে আগাম নির্বাচনসহ বিভিন্ন বিষয়ে দলের সকল নেতাদের কাছ থেকে পরামর্শ চেয়েছিলেন নওয়াজ শরীফ। তবে পিএমএল-এনকে অবশিষ্ট মেয়াদের জন্য অর্থনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়ন এবং এরপর জোট অংশীদারদের সাথে পরামর্শ করে পরবর্তী নির্বাচন ঘোষণা করতে হবে বলে সবাই একমত হন।

বৈঠকের পরপরই পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেব বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ ও দলীয় নেতারা পাকিস্তানের সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে নওয়াজ শরীফের কাছে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেশ করেন এবং তাকে সরকারের এজেন্ডা ও পরিকল্পনা সম্পর্কে অবহিত করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘নওয়াজ শরীফ আমাদের কায়েদ (প্রধান)। নওয়াজ শরীফ এবং শেহবাজ শরীফের মধ্যে বৈঠকটি অনেক আগে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা বাকি ছিল। আমরা উত্তরাধিকারসূত্রে আজকের পাকিস্তান পেয়েছি এবং এ কারণে একটি পরিকল্পনা তৈরি করার জন্য আমাদের পুরো পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে হবে।’

উল্লেখ্য, ভাই নওয়াজ শরীফের সঙ্গে দেখা করতে বুধবার লন্ডনে পৌঁছান শেহবাজ শরীফ।