শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পরিস্থিতি খারাপ হলে সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পারি, বিপিএল প্রসঙ্গে মল্লিক

news-image

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দেশে দ্রুত সময়ের মধ্যে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণের মধ্যেও জৈব-সুরক্ষা বলয় তৈরি করে মাঠে গড়িয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর। যদিও আসর মাঠে গড়ানোর আগে বিভিন্ন দলের ২০ জনের মতো ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

যদিও দেশের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় টুর্নামেন্ট চালিয়ে যেতে চায় বিপিএলের গভর্নিং কমিটি। তবে পরিস্থিতি খারাপ হলে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত পাল্টানো ইঙ্গিত দিয়েছেন গভর্নিং কমিটির সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক। আজ শুক্রবার মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেটে স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

করোনার মধ্যে টুর্নামেন্ট শুরু হলেও স্বস্তির কোনো অবকাশ নেই জানিয়েছে মল্লিক বলেন, ‘এখন ওমিক্রনের যে পরিস্থিতি তাতে কারোর স্বস্তির কোনো অবকাশ নেই। তবে আমরা চেষ্টা করছি যাতে বিপিএলটা সফলভাবে শেষ করতে পারি।’

বর্তমানে করোনার সংক্রমণের দিক থেকে চট্টগ্রামের অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ। এই বিভাগসহ সিলেটেও বিপিএলের ম্যাচ হওয়ার কথা রয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় এটাকে বাদ দেওয়া যায় কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে বিপিএলের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘না! দেখুন এই টুর্নামেন্টটার জন্য কিন্তু টানা খেলা (একই মাঠে) দেওয়া সম্ভব না। হয় আমাকে চার পাঁচদিনের বিরতি দিতে হবে, না হয় আমাকে অন্য ভেন্যুতে স্থানান্তর করতে হবে। আর একটা জিনিস হলো আমাদের দ্বিপক্ষীয় সিরিজগুলো কিন্তু সিলেটে হয়। সুতরাং ওই উইকেটকে আমাদের দেশি খেলোয়াড়রা অভ্যস্ত করে সেটাকে কিন্তু আমাদের মাথায় নিতে হয়। এটা যেহেতু আমাদের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট তাই আমরা এখন পর্যন্ত সিলেট ও চট্টগ্রামকে সিলেক্ট করছি। আল্লাহ রহমতে কোনো রকমের বাধাবিপত্তি না আসলে আমরা ওখানে খেলা চালাব।’

করোনা পরিস্থিতির কারণে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। পরিস্থিতি খারাপ হলে ভিন্ন কোনো পথে হাঁটবে কিনা বিসিবি, এমন প্রশ্নে মল্লিক বলেন, ‘যেকোনো পরিস্থিতি হলে তো ওটা ধরাবাঁধা কোনো নিয়মের মধ্যে থাকবে না, আমরা অবশ্যই পরিবেশ পরিস্থিতি দেখে আমাদের সিদ্ধান্ত পাল্টাব। স্টেক হোল্ডারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে যেটা ভালো হবে সেই সিদ্ধান্ত নেব। পরিস্থিতি খারাপ হলে আমরা সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পারি।’

এ জাতীয় আরও খবর