মঙ্গলবার, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এসএসসি পরীক্ষা : রংপুরে পূর্বের নির্ধারিত ফি আদায় করেছেন কেন্দ্র সচিবরা

news-image

হারুন উর রশিদ সোহেল,রংপুর : চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই সকল প্রস্তুতি প্রায় সম্পূর্ণ করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। কিন্তু পরীক্ষা উপলক্ষে কেন্দ্র ফি নিয়ে রংপুর নগরীসহ জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। অন্যান্য বছর সব বিষয়ে পরীক্ষা হলেও এবারে ঐচ্ছিক ৩ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু কেন্দ্র সচিবরা পূর্বের নির্ধারিত ফি আদায় করে নিচ্ছেন। এতে বিপুল পরিমাণ অর্থ তছরুপের আশঙ্কা রয়েছে। ফলে এনিয়ে অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে কেন্দ্র ফি প্রত্যাহারের দাবি জানান।

বোর্ড প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজনে জানা যায়, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, উচ্চতর গণিত ও জীববিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষায় রচনামূলক অংশে শিক্ষার্থীদের মোট ৩২ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে রচনামূলকে ২০ নম্বর ও নৈর্ব্যক্তিকে ১২ নম্বরের পরীক্ষা হবে।
বিজ্ঞান বিভাগের বিষয়গুলোতে রচনামূলক অংশে ৮টি প্রশ্ন থাকলেও যেকোন দুইটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে শিক্ষার্থীদের। নম্বর ১০ করে ২০। আর নৈর্ব্যক্তিকে ২৫টি প্রশ্নের মধ্যে ১২টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। নৈর্ব্যক্তিকে নম্বর ১২। এ ৩২ নম্বরে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের। বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার রচনামূলক ২০ নম্বরকে ৫০ নম্বরে ও নৈর্ব্যক্তিকের ১২ নম্বরকে ১৫ নম্বরে রূপান্তর করে শিক্ষার্থীদের মোট নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

এদিকে এসএসসির মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের মোট পরীক্ষার হবে ৪৫ নম্বরের। রচনামূলক অংশে ৩০ নম্বর ও নৈর্ব্যক্তিকে ১৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। এর মধ্যে রচনামূলক অংশে মোট ১১টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর করতে হবে যেকোন তিনটি প্রশ্ন। প্রতিটির মান ১০ নম্বর। আর নৈর্ব্যক্তিকে ৩০টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে ১৫টি প্রশ্নের। প্রতিটি প্রশ্নের জন্য ১ নম্বর করে মোট নম্বর ১৫।

বোর্ড জানিয়েছে, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের পরীক্ষার্থীদের ৩০ নম্বরকে ৭০ নম্বরে ও নৈর্ব্যক্তিকের ১৫ নম্বরকে ৩০ নম্বরে রূপান্তর করে শিক্ষার্থীদের মোট নম্বর নির্ধারণ করা হবে। প্রতিটি বিষয়ের পরীক্ষা হবে ১ ঘণ্টা ৩০ মিনিট। এর মধ্যে রচনামূলকে ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট ও নৈর্ব্যত্তিকের জন্য সময় থাকবে ১৫ মিনিট। এবারে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শুধু ঐচ্ছিক তিন বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

রংপুর নগরীসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার একাধিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক জানান, পূূর্বের সব বিষয়ের পরীক্ষার্থীদের জনপ্রতি কেন্দ্র ফি বাবদ ৪৩৫ থেকে ৪৬০ টাকা পর্যন্ত দিতে হতো। এতে গড়ে সব বিভাগের নিয়মিত একজন শিক্ষার্থীর বিভিন্ন খাতসহ কেন্দ্র ফি ছিল । কিন্তু এবারে একজন এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ঐচ্ছিক তিন বিষয়ে অংশ গ্রহণ করতে হচ্ছে। পরীক্ষার সময়ও অর্ধেক নির্ধারণ করা হয়েছে। বোর্ডগুলো থেকে এতো সব নির্দেশনা জুড়ে দিলেও কেন্দ্র ফি নিয়ে কোন দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। ফলে প্রতিটি কেন্দ্রের সচিবরা পূর্বের নির্ধারিত ফি আদায় করে নিচ্ছেন। এতে বিপুল পরিমাণ অর্থ তছরুপের আশঙ্কা করছে শিক্ষার্থীর অভিভাবক ও প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা।

রংপুর নগরীর সাতমাথা এলাকার অভিভাবক ইসরাফ্রিল পাটোয়ারী, কেরানীরহাট এলাকার সাইফুল ইসলাম ও ধর্মদাস এলাকার নুর হোসেনসহ বেশ কয়েক অভিভাবক জানান, যেখানে শিক্ষার্থীর ফরম পূরণের টাকা ফেরত দেওয়ার কথা সেখানে কেন্দ্র ফি কয়েক গুণ বেশি নেওয়া হচ্ছে। বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে খতিয়ে দেখা দরকার।

নগরীর তালুক তামপাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ মোহাম্মদ আলম জানান, এবারে পরীক্ষার্থীদের ঐচ্ছিক তিন বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের কোন দিক নির্দেশনা না থাকায় পূর্বের নির্ধারিত ফি জমা দিতে বাধ্য হচ্ছি। একই কথা জানান নগরীর নাজির দিঘর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আখতারুজ্জামান ভুট্টু ও পীরগাছা উপজেলার কান্দিরহাট উচ্চ বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ এবিএম মিজানুর রহমানসহ নগরী ও জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা।

পীরগাছা উপজেলার বড়দরগাহ উচ্চ বিদ্যালয় (পীরগাছা বি) কেন্দ্রের সচিব নুরুল ইসলাম খোকন বলেন, ঐচ্ছিক তিন বিষয়ের পরীক্ষা হলেও পূর্বের সব বিষয়ের পরীক্ষার মত খরচ হবে। এর কারণ হিসেবে তিনি জানান, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। এর জন্য কক্ষ পরিদর্শকের সংখ্যা দ্বিগুণ করতে হবে। এজন্য খরচ বেড়ে যাবে। এখন পর্যন্ত কেন্দ্র ফি নিয়ে কোন পরিপত্র জারি করা হয়নি। তাই ঊধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মোতাবেক পূর্বের নির্ধারিত ফি নেওয়া হচ্ছে। নতুন কোন পরিপত্র জারি হলে পরবর্তীতে সে মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এব্যপারে দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান জানান, পূর্বের নির্ধারিত ফি নিয়ে শিক্ষার্থীদের ফরম ফিলাপ করা হয়েছে। কেন্দ্র ফিও নেওয়া হচ্ছে। তবে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। অতিরিক্ত টাকা গ্রহণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হলে তা পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে। তিনি আরো জানান, এবারে রংপুর জেলায় ৫০টি কেন্দ্রে ৩৭ হাজার ১১১ জন পরীক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করা কথা রয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর