মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দুই ডোজ টিকা নিয়েও করোনায় ভাষাসৈনিক সমেলা রহমানের মৃত্যু

news-image

নীলফামারী প্রতিনিধি : করোনায় থেমে গেল নীলফামারীর ভাষসৈনিক সমেলা রহমানের (৮৩) জীবন। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় (ইন্না লিল্লাহি… রাজিউন)।

ভাষাসৈনিক সমেলা রহমান নীলফামারী জেলা শহরের শাহীপাড়ার বাসিন্দা নাট্য অভিনেত্রী সাহানা সুমির মা এবং ভাষাসৈনিক ও সঙ্গীতশিল্পী প্রয়াত ওয়ালিউর রহমানের স্ত্রী। মৃত্যুকালে তিনি চার মেয়ে তিন ছেলে রেখে গেছেন। বৃহস্পতিবার বাদ আছর জেলা শহরের কেন্দ্রীয় কবরস্থানে জানাযা শেষে সেখানে দাফন করা হয় ভাষা সৈনিক সমেলা রহমানকে।

মরহুমার ছোট ছেলে সুমন রহমান বলেন, ‘মা সমেলা রহমান বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। এরপর চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজ ও ১৭ এপ্রিল দ্বিতীয় ডোজ করোনা টিকা নেন। এরপর অসুস্থতা বোধ করলে ৭ জুলাই র‌্যাপিড এন্টিজেন টেস্টে করোনা ধরা পরে। বাড়িতে রেখে তার চিকিৎসা চলছিল। ১৩ জুলাই অবস্থার অবনতি হলে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মারা যান।’

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন নীলফামারী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নুর, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী, সিভিল সার্জন ডা. জাহাঙ্গীর কবির, পুলিশ সুপার মো. মোখলেছুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক প্রমুখ।

ভাষা সংগ্রামী সমেলা রহমান ১৯৫২ সালে ছিলেন নীলফামারী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। সেই সময় নারী ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে নীলফামারীর রাজপথে নেমে মিছিল-মিটিংসহ সব কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে অনন্য অবদান রাখেন সমেলা রহমান।

এ জাতীয় আরও খবর