শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাবার সম্পত্তিতে রয়েছে মেয়ের অধিকার

news-image

অনলাইন ডেস্ক : আমাদের দেশে সাধারণত বাবার মৃত্যুর পর তার রেখে যাওয়া স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিতে মেয়ের অধিকার দেওয়া হয় না। দিলেও অনেক কম দেওয়া হয়, যা একেবারেই নগণ্য। অথচ বাবার সম্পত্তিতে মেয়ের অধিকার পবিত্র কোরআনের সুরা নিসার ১১ নম্বর আয়াত দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আল্লাহ ঘোষণা করেন, ‘তোমাদের সন্তানদের ব্যাপারে আল্লাহ বিশেষভাবে আদেশ দিচ্ছেন যে, দুই মেয়ের সমান অংশ এক ছেলে পাবে।…’ একজন মেয়ের জীবনে কোনো আর্থিক দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। মেয়েদের আর্থিক খরচ জন্ম থেকে বিয়ে পর্যন্ত বাবার দায়িত্বে। বিয়ের দিন থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সব খরচ স্বামীর দায়িত্বে দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইসলামী আইন অনুযায়ী বিয়ের যাবতীয় খরচ বরের, কনের বাবার নয়। নারীর জীবনে কোনো অর্থনৈতিক দায়িত্ব না থাকা সত্ত্বেও নারী তার স্বামী থেকে নগদ দেনমোহর পায়। বাবা মারা গেলে তার স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের মালিক হয়। স্বামী মারা গেলে তার সম্পত্তিতে অংশীদার হয়। আপন ভাই মারা গেলে তার রেখে যাওয়া সম্পত্তিতেও ওয়ারিশ হয়। নিজের ছেলে মারা গেলে তার রেখে যাওয়া সম্পদেরও মালিক হয়। ইসলাম এসব অধিকার নারীকে দিয়েছে।

একজন নারী তার ব্যক্তিগত আয়, নিজের সম্পদ বা গচ্ছিত টাকা-পয়সা নিজের পরিবারের জন্য, স্বামীর জন্য বা সন্তানদের জন্য খরচ করতে বাধ্য নয়। অথচ একজন পুরুষ নিজের সব ধরনের আয় ও সম্পদ স্ত্রী ও সন্তানদের জন্য ব্যয় করতে বাধ্য। তাই আল্লাহ নারীকে তার বাবার সম্পত্তিতে ভাইয়ের তুলনায় অর্ধেক অংশের মালিক বানিয়েছেন।

সুরা নিসার ১১ ও ১২ নম্বর আয়াতে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে কোনো ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করলে তার পরিবারের কোন সদস্য কত অংশ পাবে। সব সম্পত্তি সুন্দরভাবে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। এখানে লক্ষণীয়, নারী যেমন তার বাবার রেখে যাওয়া জায়গা-জমিতে অংশ পাবে, তেমনি অস্থাবর সম্পত্তিতেও অংশ পাবে। যেমন বাবার রেখে যাওয়া নগদ টাকা-পয়সা, ঘরের আসবাবপত্র, দোকানের মাল, বিভিন্ন জিনিসেও অংশ পাবে। বাবার বাড়ির ভিটিতেও অংশ পাবে।

প্রিয় পাঠক! আমরা যারা নামাজ পড়ি, রোজা রাখি, হজ করি, জাকাত দিই তারাও মেয়ে ও বোনদের প্রতি এ জুলুম করি। তাদের ঠকাই। দেশের শিক্ষিত সমাজের বড় অংশও এ বড় অপরাধে লিপ্ত। বোনকে ঠকানোর জন্য যারপরনাই চেষ্টা করে। অনেক এলাকার মানুষ মনে করে মেয়েরা যদি বাবার বাড়ির সম্পদ আনে তাহলে তাদের জীবনে অশান্তি নেমে আসে। এসব ধারণা ভুল। এগুলো কুসংস্কার। ইসলাম নারীকে সম্মান দিয়েছে। ঘরে, সংসারে, সমাজে তার অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছে। বাবার সম্পত্তিতেও অধিকার দিয়েছে। আমরা যেন নারীদের সে অধিকার প্রতিষ্ঠা করি। মহান আল্লাহ তৌফিক দান করুন।

লেখক : খতিব, সমিতি বাজার মসজিদ, নাখালপাড়া, ঢাকা।

 

এ জাতীয় আরও খবর

অতিক্রম করেছে বৈদেশিক মুদ্রার মজুত ৪১ বিলিয়ন ডলার

রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসন করবে দুই সিটি করপোরেশন

বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিক ভ্যাকসিন পাবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের সঙ্গে স্বরাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক স্থগিত করল ভারত

মুক্তি পেলেন সেই ফিলিস্তিনি ইসরায়েলি কারাগারে অনশন পালনকারী

অনলাইনে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও বেতন পাবেন

অবসরের পর অন্য পেশাগ্রহণ বা বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে অনুমতি লাগবে না

তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব হলেন খাজা মিয়া

ফাংশনাল ফুডের ভূমিকা ঋতুস্রাবকালীন জটিলতা রোধে

মাত্র ২৭ ঘণ্টায় তিন বস্তিতে আগুন রহস্যজনক : ফখরুল

কালিয়াকৈরায় ৯ কোটি টাকার সাপের বিষ জব্দ, গ্রেপ্তার ২

প্রকাশ্যে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা