সোমবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সরাইল-অরুয়াইল চলাচলের সড়ক এখন মরণ ফাঁদ, লাগামহীন জনদূর্ভোগ

news-image
তৌহিদুর রহমান নিটল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার  সরাইল- অরুয়াইল সড়ক উপজেলার ভাটি অঞ্চলের পাকশিমুল, অরুয়াইল -চুন্টা এই তিন ইউনিয়নের প্রায় লক্ষাধিক মানুষের উপজেলার সদরসহ জেলা শহরের সাথে চলাচলের একমাএ সড়ক এটি। ইতিমর্ধ্যে সড়কটির অনেকাংশ অংশ স্হানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর (এলজিইডি) তও্বাবধানে নতুন ভাবে সংস্কারের কাজ করা হলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নিন্মমানের কাজের জন্য সংস্কারের অনেক অংশে দেখা দিয়েছে ভাঙ্গন। বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির  চুন্টা ব্রীজ থেকে ভুইশ্বর বাজার পযর্ন্ত আড়াই কিলোমিটার অংশ সংস্কারের অভাবে সড়কটি মূল ব্যাসার্ধের প্রায় অর্ধেককাংশ মত ভেঙ্গে যানবাহন চলাচলের অনুযোগী হয়ে পড়েছে। আর এতে করে ভাটি অঞ্চলের মানুষের চলাচলের একমাএ সড়কটি বেহাল দশায় মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।
সরেজমিনে ঘুরে  দেখা যায়, চুন্টা ব্রীজ থেকে রাস্তার মাঝখানে  ভুইশ্বর বাজার পযর্ন্ত রাস্তাটির দুপাশে ভেঙ্গে গিয়ে  যোগাযোগের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ব্যবসায়ী পণ্য আনা- নেওয়া, রোগীবাহী গাড়ি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ও সাধারণ জনগণ অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে উপজেলা সদরে সাথে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছেন।
এই রাস্তা দিয়ে চলাচলরত সিএনজি অটোরিকশা চালক আবুল হোসেন ও শিপন মিয়া বলেন, সড়কের ২ কিলোমিটার অংশ ভেঙ্গে একেবারের চলাচলের অনুপযোগী হয়েছে। আমরা ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন যাএী পারাপার করছি। এতে প্রায় সময় ঘটছে দূর্ঘটনা। ভাঁটি অঞ্চলের মানুষের চলাচলের একমাএ সড়কটি দ্রুত সংস্কারের জন্য আমরা দাবি জানাচ্ছি। এলাকার বাসিন্দা ষাট বছরের বৃদ্ধা মোঃ সাফি মিয়া জানান, সংস্কারের অভাবে রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।  গাড়ি দিয়ে আসতে অনেক কষ্ট হচ্ছে মানুষের। স্হানীয় এক ইউ.পি চেয়ারম্যান বলেন,রাস্তার এ বেহাল দশার জন্য চলাচল করতে মানুষের সীমাহীন কষ্ট হচ্ছে । উপজেলা প্রশাসনকে আমরা জানিয়েছি। তারা বলেছেন রাস্তাটি ডিজাইন হচ্ছে।সংস্কারের জন্য কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহ্বান করবেন।
সরাইল উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী (অতিরিক্ত দায়িত্বরত) মোছাঃ নিলুফার ইয়াসমিন বলেন, সড়কের ভাঙ্গা অংশটুকু আড়াই কিলোমিটারের মত। ডিজাইন সিট আমরা শীঘ্রই পাবো  বলে আশা করছি। তারপর ইষ্টিমিড করে টেন্ডার কল করা হবে। সড়কটি সংস্কারে আমাদের পক্ষ থেকে সর্বএ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে সরাইল উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত)  ফারজানা প্রিয়াঙ্কা বলেন, সরাইল- অরুয়াইল সড়কটি অতি গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে একটি অংশ বর্ষার পানিতে ভেঙ্গে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। সড়কটি দ্রুত সংস্কারের জন্য আমাদের সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত আছে।