শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা

up2016নিউজ ডেস্ক: চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে (ইউপি) পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে ৭১৯ ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে৬৪৪ টির বেসরকারি ফলে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন ৪০১ টিতে। বিপরীতে বিএনপি প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন৬৯টি ইউনিয়ন পরিষদে। আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী, বিএনপি বিদ্রোহী, জাপা, সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন ১৭৪ ইউনিয়নপরিষদে।
সিলেটের বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগরে ১৪ ইউনিয়নের মধ্যে ৫টি করে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। চারটিতে চমক দেখিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিদ্রোহীরা। ওসমানীনগরে জয়ীরা হলেন- উমরপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের এমজি কিবরিয়া, সাদিপুর ইউনিয়নে বিএনপির আব্দুর রব, পশ্চিম পৈলনপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী এম এ মতিন গেদাই মিয়া, বুরুঙ্গা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী খালেক আহমদ লটই, তাজপুর ইউনিয়নে বিএনপির ইমরান রব্বানী, দয়ামীর ইউনিয়নে বিএনপির এইচ টি ফখর, উসমানপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী ময়নুল আজাদ ফারুক, গোয়ালাবাজার ইউনিয়নে বিএনপি বিদ্রোহী আতাউর রহমান মানিক। বালাগঞ্জ উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ-৪, বিএনপি-২টি ইউনিয়নে জয় পেয়েছে। জয়ীরা হলেন- বোয়ালজুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আনহার মিয়া, পূর্ব গৌরিপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের হিমাংসু রঞ্জন দাশ, পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নে
আওয়ামী লীগের আমিনুল ইসলাম মধু, পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আব্দুল মতিন, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে বিএনপির নাজমুল ইসলাম নজম ও বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নে বিএনপি আব্দুল মুমিন।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা ও সদর উপজেলার ১৯ ইউনিয়নের ১৮ টিতে আওয়ামী লীগ ও একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। কসবা উপজেলার ৮ ইউনিয়নে নির্বাচিতরা হলেন বিনাউটি ইউনিয়নে মো. ইকবাল হোসেন, বাদৈর ইউনিয়নে আবু জামাল খান, মূলগ্রাম ইউনিয়নে মঈনুল ইসলাম, মেহারি ইউনিয়নে আলম মিয়া, গোপীনাথপুর ইউনিয়নে এসএমএ মান্নান, কসবা পশ্চিম ইউনিয়নে মানিক মিয়া, কাইয়ূমপুর ইউনিয়নে ইয়াকুব আলী ভূঁইয়া ও বায়েক ইউনিয়নে আল মামুন ভূঁইয়া। এদিকে সদর উপজেলার ১০ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও একটিতে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী। আওয়ামী লীগের নির্বাচিতরা হলেন, সুহিলপুর ইউনিয়নে আজাদ হাজারী আঙুর, মজলিশপুর ইউনিয়নে তাজুল ইসলাম, নাটাই (উত্তর) ইউনিয়নে হাবিবুল্লাহ বাহার, বাসুদেব ইউনিয়নে মো. এম আলম, সুলতানপুর ইউনিয়নে ফিরোজুর রহমান ওলিও, মাছিহাতা ইউনিয়নে আল আমিন, রামরাইল ইউনিয়নে সাহাদত খান, সাদেকপুর ইউনিয়নে একেএম আব্দুল হাই, বুধল ইউনিয়নে আব্দুল হক ও তালশহর (পূর্ব) ইউনিয়নে এনামুল হক। নাটাই (দক্ষিণ) ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নাজমুল হক (আনারস) বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
মুন্সীগঞ্জ সদরের নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন, মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে মহাসিনা হক কল্পনা (আনারস), আধারায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুল কবির, শিলই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আবুল হাসেম লিটন, মহাকালীতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী রিয়াজুল ইসলাম বিরাজ ও বাংলাবাজারে আওয়ামী লীগের মো. সোহরাব হোসেন। গজারিয়া উপজেলায় নির্বাচিতরা হলেন, ইমামপুরের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোহাম্মদ মনসুর আহামেদ খান জিন্নাহ, বালুয়াকান্দিতে বিদ্রোহী মো. শহিদুজ্জামান, গজারিয়ায় আওয়ামী লীগের মো. আবু তালেব ভুইয়া , হোসেন্দিতে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বিদ্রোহী প্রার্থী মোহাম্মদ মাহবুবুল হক মজনু , টেঙ্গারচরে বিদ্রোহী এসএম ছালাহউদ্দিন ও গুয়াগাছিয়ায় আওয়ামী লীগের আবুল খায়ের মোহাম্মদ আলী। এছাড়া
ভরেরচর ইউনিয়নের একটি ভোট কেন্দ্র স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এ ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী সাহিদ মো. লিটন (মোটর সাইকেল) এগিয়ে রয়েছেন।
কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফলে আওয়ামী লীগ ৩ টিতে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ৩টিতে ও ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। বিজয়ীরা হলেন, মিঠামইন সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো. শরীফ কামাল, ঘাগড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাজী মো. মোছলেহ উদ্দিন, বৈরাটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাহাব উদ্দীন আহমেদ সাহাব, ঢাকী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান (আনারস), কেওয়ারজোড় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী নূরুল আমিন হাবলু (চশমা), কাটখাল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী তাজুল ইসলাম (আনারস) এবং গোপদিঘী ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নূরুল হক বাচ্চু (আনারস)। অষ্টগ্রাম উপজেলার আটটি ইউনিয়নের নির্বাচনের
বেসরকারি ফলাফলে আওয়ামী লীগ ছয়টিতে এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী দুইটিতে বিজয়ী হয়েছে। বিজয়ীরা হলেন, অষ্টগ্রাম সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সৈয়দ ফারুক আহাম্মদ, পূর্ব অষ্টগ্রাম ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. কাছেদ মিয়া, কাস্তুল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল হক রন্টি, বাংগালপাড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. এনামুল হক, কলমা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী রাধা কৃষ্ণ দাস, দেওঘর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. ইব্রাহীম মিয়া, খয়েরপুর-আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মোক্তার খাঁন (আনারস) এবং আদমপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. ফজলুল করিম বাদল (ঘোড়া)।
দিনাজপুরের সদর ও বীরগঞ্জ উপজেলার ২১ ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামীলীগের ৮জন, বিএনপি ৭ জন, আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ৩ জন, স্বতন্ত্র ৩ জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন, সদরের চেহেলগাজী ইউপিতে বিএনপি’র আনিসুর রহমান বাদশা। সুন্দরবন ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের অশোক কুমার রায়। ফাজিলপুর ইউনিয়নে বিএনপি’র মো. সিরাজুল ইসলাম। শেখপুরা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বাবুল আখতার। শশরা ইউনিয়ে বিএনপি’র রফিকুল ইসলাম। আউলিয়াপুর ইউনিয়নে বিএনপির আব্দুর রাজ্জাক। উথরাইল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের এমদাদ সরকার। শংকরপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ইসাহাক আলী। আস্করপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের জিয়াউর রহমান জিয়া এবং কমলপুর ইউনিয়নে চশমা প্রতীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাজেদুর রহমান জুয়েল সরকার জুয়েল। বীরগঞ্জে ১১ ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামীলীগ ৩টি, বিএনপি ৩টি, স্বতন্ত্র ২টি এবং আওয়ামী লীগের বিদোহীরা জয় পেয়েছে ৩টি
ইউপিতে। নির্বাচিতরা হলেন- শিবরামপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী জনক চন্দ্র রায় অধিকারী। পলাশবাড়ী ইউনিয়নে বিএনপির জুয়েলুর রহমান। শতগ্রাম ইউনিয়নে স্বতন্ত্র কে.এম.কুতুব উদ্দিন। পাল্টাপুর ইউনিয়নে বিএনপির তোবারক আলী শাহ। সুজালপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মহেশ চন্দ্র রায়। নিজপাড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল খালেক সরকার। মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোপাল দেব শর্মা। ভোগনগর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বদিউজ্জামান পান্না। সাতোর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের রেজাউল করিম শেখ। মোহনপুর ইউনিয়নে বিএনপির মজিদুল ইসলাম মাষ্টার এবং মরিচা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আতাহারুল ইসলাম চেীধূরী হেলাল।
মনিকগঞ্জ সদর উপজেলার ৭ ইউনিয়নের মধ্যে ৫টিতে আওয়ামী লীগ ও ২টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন- নবগ্রাম ইউনিযনে রাকিব হাসান ফরদার (স্বতন্ত্র), ভারারিয়া ইউনিয়নে আব্দুল কাদের (স্বতন্ত্র), দিঘি ইউনিয়নে মতিন মোল্লা (আওয়ামী লীগ), আটিগ্রাম ইউনিয়নে নুরে আল (আওয়ামী লীগ), কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে বিপ্লব হোসেন (আওয়ামী লীগ), পুটাইল ইউনিয়নে আব্দুল জলিল (আওয়ামী লীগ) ও হাটিপাড়া ইউনিয়নে মুনীর হোসেন (আওয়ামী লীগ)।
উলিপুর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে বিএনপি বিজয়ী হয়েছে ৪টিতে, আওয়ামী লীগ ২টিতে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ৩টিতে, জাতীয় পার্টি ৩টিতে ও জাতীয় পার্টির ১ জন বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। বিজয়ীরা হলেন- হাতিয়া ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির এবিএম আবুল হোসেন। দূর্গাপুর ইউনিয়নে বিএনপির আবেদ আলী মন্ডল, গুনাইগাছ ইউনিয়নে বিএনপির আবুল কালাম আজাদ, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের একরামুল হক, থেথরাই ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির আইয়ুব আলী, দলদলিয়া ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির আতিয়ার রহমান মুন্সি, ধামশ্রেণী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রাখিবুল হাসান সরদার, সাহেবের আলগা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিদ্দিক আলী মন্ডল, বেগমগঞ্জ ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী প্রার্থী বেলাল হোসেন, পান্ডুল হোসেন মুকুল, বজরা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের রেজাউল করিম আমীন, ধরণীবাড়ী ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী আমিনুল ইসলাম ফুলু বিজয়ী হয়েছেন।
ফেনীর দাগনভূইয়ার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের সবগুলোই আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন- সিন্দুরপুরে নুর নবী, রাজাপুরে আ.ন.ম.কাশেদুল হক, পূর্বচন্দ্রপুরে মো. মাসুদ, ইয়াকুবপুরে আবুল ফোরকান, মাতুভূঞা ইউনিয়ন পরিষদে আবদুল্লা আল। জয়লস্কর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী থাকায় মামুনুর রশিদ মিলন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হন।
ঝিনাইদহ জেলার ৮টি ইউনিয়নের নির্বাচনে ৪টিতে আওয়ামী লীগ, ২টিতে বিএনপি ও ২টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন- ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী ইউনিয়নে আব্দুর রশিদ মিয়া, কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নে আশরাফুল ইসলাম, গান্না ইউনিয়নে নাসির উদ্দিন মালিতা ও হরিণাকুন্ডুর চাঁদপুর ইউনিয়নে গোলাম মোস্তফা। বিএনপির বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, সাগান্না ইউনিয়নে আলাউদ্দিন আল-মামুন ও মাহারাজপুর ইউনিয়নে খুরশিদ আলম। স্বতন্ত্র বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, সাধুহাটি ইউনিয়নে কাজী নাজির উদ্দিন ও মধুহাটি ইউনিয়নে ফারুক আহমেদ জুয়েল।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭টিতে আওয়ামী লীগ, ১ টিতে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন, জগন্নাথপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী আলাল উদ্দীন, দেবীপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মোয়াজ্জেম হোসেন, গড়েয়া ইউনিয়নে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজওয়ানুল ইসলাম রেদো, সালন্দর ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের মাহাবুব আলম মুকুল, বালিয়া ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের নুর এ আলম ছিদ্দিকী। শুখানপুকুরী ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের আনিছুর রহমান, বেগুনবাড়ী ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের বর্তমান চেয়ারম্যান বনি আমীন, আউলিয়াপুর ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের আতিকুর রহমান।
কমলগঞ্জ উপজেলায় রহিমপুর ইউনিয়নে ইফতেখার আহমদ বদরুল (আওয়ামী লীগ), পতনউষার ইউনিয়নে তৌফিক আহমদ বাবু (আওয়ামী লীগ), মুন্সীবাজার ইউনিয়নে আব্দুল মোতালিব তরফদার (আওয়ামী লীগ), শমসেরনগর ইউনিয়নে জুয়েল আহমদ (আওয়ামী লীগ), কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নে আব্দুল হান্নান (আওয়ামী লীগ), আলীনগর ইউনিয়নে ফজলুল হক বাদশা (আওয়ামী লীগ), আদমপুর ইউনিয়নে আবদাল হোসেন (বিএনপি), মাধবপুর ইউনিয়নে পুষ্প কুমার কানু (বিএনপি বিদ্রোহী), ইসলামপুর ইউনিয়নে আব্দুল হান্নান (স্বতন্ত্র) বিজয়ী হয়েছেন। অপরদিকে, শ্রীমঙ্গল উপজেলায় মির্জাপুর ইউনিয়নে আবু সুফিয়ান (আওয়ামী লীগ), ভূনবীর ইউনিয়নে চেরাগ আলী (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী), শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নে ভানু লাল রায় (আওয়ামী লীগ), সিন্দুরখান ইউনিয়নে আব্দুল্লাহ আল হেলাল (আওয়ামী লীগ), কালাপুর ইউনিয়নে মুজিবুর রহমান চৌধুরী (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী), আশিদ্রোনইউনিয়নে রনেন্দ্র প্রসাদ বর্ধন জহর (আওয়ামী লীগ), রাজঘাট ইউনিয়নে বিজয় বুনার্জি (আওয়ামী লীগ), কালীঘাট ইউনিয়নে প্রাণেশ
গোয়ালা (আওয়ামী লীগ) এবং সাতগাও ইউনিয়নে মিলন শীল (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) বিজয়ী হয়েছেন।

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার ৫টি ইউপি নির্বাচনে সবকটিতেই আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। এরা হলেন, আহম্মেদাবাদ ইউনিয়নে আলী আকবর মন্ডল, মাত্রাই ইউনিয়নে আ.ন.ম শওকত হাবিব তালুকদার লজিক, উদয়পুর ইউনিয়নে ওয়াজেদ আলী দাদা, পুনট ইউনিয়নে আব্দুল কুদ্দুস ফকির ও জিন্দারপুর ইউনিয়নে জিয়াউর রহমান জিয়া ।
চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার কসবা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আজিজুর রহমান নির্বাচিত হয়েছেন। নড়াইলের লোহাগড়ায় ৫ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। কাশিপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মতিয়ার রহমান বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হন। অপর নির্বাচিতরা হলেন- জয়পুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আকতার হোসেন, ইতনা ইউপির নাজমুল ইসলাম টগর (স্বতন্ত্র), মল্লিকপুর ইউপির মোঃ শিকদার মোস্তফা কামাল (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) ওদিঘলিয়া ইউনিয়নে লতিফুর রহমান পলাশ (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী)।
ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রেহী প্রার্থী মো. মোশারফ হোসেন নির্বাচিত হয়েছেন।নাটোরের সিংড়ায় ১২টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছে। বিজয়ীরা হলেন- সুকাশ ইউনিয়নে আঃ মজিদ, ডাহিয়া ইউনিয়নে আবুল কালাম, ইটালী ইউনিয়নে আরিফুল ইসলাম, কলম ইউনিয়নে মইনুল হক চুনু, চামারী ইউনিয়নে রশিদুল মৃধা, হাতিয়ানদহ ইউনিয়নে মাহবুব আলম, লালোর ইউনিয়নে নজরুল ইসলাম, শেরকোল ইউনিয়নে লুৎফুল হাবিব রুবেল, তাজপুর ইউনিয়নে মিনহাজ উদ্দিন, চৌগ্রাম ইউনিয়নে জাহেদুল ইসলাম ভোলা, ছাতারদিঘী ইউনিয়নে প্রদীপ কুমার রুদ্র ও রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়নে তপন সরকার।
টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের পাঁচটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। বিজয়রা হলেন- কাকড়াজান ইউনিয়নে তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ, কালিয়া ইউনিয়নে এসএম কামরুল হাসান ওরফে হারেছ বিএসসি, যাদবপুর ইউনিয়নে একেএম আতিকুর রহমান আতোয়ার, হাতিবান্ধা ইউনিয়নে মো. গিয়াস উদ্দিন, বহুরিয়া ইউনিয়নে গোলাম কিবরিয়া সেলিম। অন্যদিকে ২নং বহেড়াতৈল ইউনিয়নে আনারস প্রতীকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোলাম ফেরদৌস বিজয়ী হয়েছেন।
সোনারগাঁওয়ের ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে পিরোজপুরে আওয়ামী লীগের মাসুদুর রহমান মাসুম, কাচঁপুরে আওয়ামী লীগের মোশারফ ওমর, সাদীপুরে আওয়ামী লীগের আ. রশীদ মোল্লা, বারদীতে আওয়ামীলীগের জহিরুল হক, মোগরাপাড়ায় আওয়ামী লীগের আরিফ মাসুদ বাবু, সনমান্দীতে আওয়ামী লীগের জাহিদ হাসান জিন্নাহ, জামপুরে আওয়ামী লীগের শিকদার শিপলু, বৈদ্যেরবাজারে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ডা. আব্দুর রউফ, নোয়াগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাওলানা ইউসুফ দেওয়ান, শম্ভুপুরায় জাতীয় পার্টির আব্দুর রব বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীরা জয়ী হন। নির্বাচিতরা হলেন- সাতপোয়া ইউনিয়নে আবু তাহের. পোগলদিঘায় ইউনিয়নে সামস উদ্দিন, ডোয়াইল ইউনিয়নে নাছির উদ্দিন রতন, আওনার ইউনিয়নে বেলাল হোসেন, ভাটারার ইউনিয়নে বোরহান উদ্দিন বাদল, কামরাবাদ ইউনিয়নে মনছুর রহমান খান।

এ জাতীয় আরও খবর

আজ পবিত্র হজ, আরাফাতের ময়দানে হাজির হচ্ছেন ২০ লাখ হাজি

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে নেপালকে ১ রানে হারালো দক্ষিণ আফ্রিকা

দক্ষিণ গাজায় আটকা পড়েছেন ১০ লাখের বেশি বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনি

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে ১৩ কি‌লো‌মিটার অংশে যানজট-ধীরগ‌তি‌

কামার পল্লীতে ঠনা ঠন শব্দে ব্যস্ত সময় পার করেছেন কারিগররা

বিএনপির টপ টু বটম সবাই দুর্নীতিবাজ, তারেক এর বরপুত্র : কাদের

আবারও খোলামেলা শাড়িতে রুনা খান

সুনেত্রা চাপা অভিমান নিয়ে চলে গেছেন : অঞ্জনা

কোরবানির ঝাঁজ আদা, রসুন ও পেঁয়াজে

বেড়েছে টুপি বিক্রি, তবে ভয়ে আছেন ফুটপাতের দোকানিরা

জমে উঠেছে পশুর হাট, গাবতলীতে নজর কাড়ছে বড় গরু

শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর বাবুর দায় স্বীকার