শনিবার, ২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোথায় যাবে মিয়ানমারের মুসলিম শিশুরা !

news-image

২০০৯ সালের কথা। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আক্রান্ত হয়ে ১ লাখ ১৭ হাজার মুসলিম রোহিঙ্গা দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিল। চলতি বছরেও সে ঘটনার পুণসূচনা হয়েছে। মিয়ানমারের বৌদ্ধদের নিপীড়নে শিকার হয়ে ৯ হাজারের বেশি মুসলিম রোহিঙ্গা নিজেদের ঘরবাড়ি, ধনসম্পদ ছেড়ে হিজরত করতে বাধ্য হয়। এ মুসলিম রোহিঙ্গারা যখন নৌকায় চড়ে মিয়ানমার থেকে বের হয়ে আশ্রয়ের সন্ধানে সাগরে ভাসছে, তীর থেকে তাদের নৌকা ঠেলে দিয়েছে ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মালোশিয়াসহ কয়েকটি রাষ্ট্র। এ রোহিঙ্গারা এখন আফ্রিকার শহরগুলোতে মাথা গুজানোর উপায় খোঁজছে।

তবে এ রোহিঙ্গাদের কয়েকটি কিস্তি সাময়ীকভাবে ঠাঁই দিয়েছে ইন্দোনেশিয়া ও মালোশিয়া। তাদের মধ্যে রয়েছে কিছু নিরাপরাধ শিশু। যারা এখনো স্থানান্তরের ব্যথা কি বুঝতে শেখেনি। কিন্তু নিজেদের জীবনের তরী ভাসিয়ে চলছে বড়দের হাত ধরে। পেটের  আগুন নেভাতেও চেষ্টা করছে প্রাণপণে। ইন্দোনেশিয়ায় আশ্রয়প্রাপ্ত কিছু রোহিঙ্গা অভিবাসীদের কথা বলছে নিচের ছবি। রয়টার্সের বরারত দিয়ে ছবিগুলো প্রকাশ করেছে ডন নিউজ। ইন্দোনেশিয়ার অস্থায়ী ক্যাম্পে নাস্তার প্লেট হাতে দন্ডায়মান রোহিঙ্গা নারীরা। সঙ্গে একটি শিুশুও তার মায়ের সাথে দাঁড়ানো।

১ নাস্তা হাতে দুই রোহিঙ্গা কিশোর।

২ অস্থায়ী ক্যাম্পে কাপড়ের স্তূপে বসে আছে এক শিশু।

৩ সড়কে দাঁড়িয়ে আছে রোহিঙ্গারা। পানির আয়নায় ভাসছে রোহিঙ্গাদের বদন।

nastar sesur rohinga

এ জাতীয় আরও খবর