শুক্রবার, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোরানে কেন ভুল নেই!

news-image

ইসলামিক ডেস্কপিস টিভির প্রশ্নোত্তর পর্বে ড. জাকির নায়েককে প্রশ্ন করা হয়, আপনি বলেছেন কোরানে কোনো ভুল নেই। আমি কোরানে ব্যাকরণগত ভুল দেখতে পাচ্ছি। আপনি এ বিষয়ে কী বলবেন? উত্তরে ড. জাকির নায়েক বলেন, এর কয়েকটি উত্তর রয়েছে।
আরবি ভাষার সাহিত্যের সর্বোচ্চ গ্রন্থ হচ্ছে কোরান। আর আরবি ভাষার সকল ব্যাকরণ এসেছে কোরান থেকে। কোরান হচ্ছে আরবি ভাষার ব্যাকরণের মূলগ্রন্থ। আর যেহেতু কোরান ব্যাকরণের মূলগ্রন্থ তাই কোরানে কোনো ভুল থাকতে পারে না।
আরবি ভাষায় ব্যাকরণ মাঝে মাঝেই বদলে যায়। আরবীয় গোত্রে যে শব্দটা স্ত্রী-বাচক অন্য গোত্রে সে শব্দটা পুরুষ-বাচক। একই শব্দ; তবে গোত্রভেদে ব্যাকরণ পরিবর্তন হয়। এমনকি শব্দের লিঙ্গও বদলে যায়। তাহলে কি আপনি এ পরিবর্তিত ব্যাকরণ দিয়ে কোরানের ব্যাকরণ পরীক্ষা করবেন?
এ ছাড়াও কোরানের ভাষা এত উঁচু মানের যে এর কাছাকাছি কোনো সাহিত্য নেই। যেমন- কোরানে নুহ নবির সম্প্রদায় সম্পর্কে বলা হয়েছে, তারা তাদের সকল নবিকে ত্যাগ করেছিল। অথচ ইতিহাস থেকে আমরা জানি মাত্র একজন নবি তাদের নিকট পাঠানো হয়েছিল। তাহলে কি কোরানে সকল নবি উল্লেখ করাটা ব্যাকরণগত ভুল! আপনি আমি মনে করতে পারি ব্যাকরণগত ভুল। কিন্তু যারা আরবি ভাষা জানেন তারা বলেন, পৃথিবীর সকল নবিদের হেদায়াতের বাণী একটাই যে ঈশ্বর একজন। এটা তাওহিদ ও আল্লাহরও বাণী। আর লুত ও নুহ নবির লোকজন তাদের নবিকে ত্যাগ করে পরোক্ষভাবে সকল নবিকেই ত্যাগ করেছিল। এ কারণেই কোরানে সকল নবির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এ হচ্ছে ভাষার অলঙ্কার।