বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাঁটাই হবে আগাছা, বিএনপিতে আসছে বিরাট পরিবর্তন

news-image

সিটি নির্বাচনেও কোন সুবাতাস এনে নিতে পারেনি বিএনপির মাঠ পর্যায়ের নেতারা। ৩ সিটি নির্বাচনে বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঠে না থাকার বিষয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতাদের অভিযোগ একেবারে উড়িয়ে দেবারমত নয় বলে মনে করছেন দেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষকসহ দেশের একাধিক বুদ্ধিজীবি পর্যায়ের প্রতিনিধিরা। বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে যথেষ্ট নেতৃত্বের অভাব রয়েছে এমন অভিযোগ সকলের। এরই ধারাবহিকতায় বিএনপি থেকে খুব শিগগিরই ছাটাই হতে যাচ্ছে সুবিধাবাদী বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ দখলকারি সদস্যরা। ইতিমধ্যেই তরুণ নেতৃত্বকে সামনে আনতে কাজ করছে দলটি। আর সুবিধাবাদি সব নেতাকর্মীকে পদ থেকে ছাঁটাই করা হবে বলেও জানা গেছে।

বিএনপি সূত্র থেকে জানা গেছে, আগামী ১ সেপ্টেম্বর দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আগেই ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপির নীতিনির্ধারকরা। ওই কাউন্সিলের মাধ্যমে দলের প্রধান সাংগঠনিক মহাসচিব পদে পরিবর্তন আসতে পারে। তুলনামূলক তরুণ নেতাদের মধ্য থেকে দলের মহাসচিব হিসেবে কাউকে দেখা যেতে পারে। যদি পরিবর্তন না হয় তাহলে দীর্ঘদিন ভারপ্রাপ্তের ভারমুক্ত হতে পারেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। জাতীয় কাউন্সিলের আগেই একযোগে ভেঙে দেয়া হবে বিএনপির ৭৫টি সাংগঠনিক জেলা কমিটি। একই সঙ্গে দলের অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলোর শীর্ষ পদেও আনা হবে ব্যাপক রদবদল।

ঘনিষ্ট সূত্র থেকে জানা গেছে, দল গোছাতে বিএনপি এবার বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে না সেইসব নেতাকর্মীদের দিকে, অতীতে যারা বিএনপির আন্দোলনকে বেগবান করতে কোন পারদর্শীতাই দেখাতে পারেনি। অথচ দল থেকে সব সময় সুবিধা ভোগ করে গেছে।

সূত্রটি জানায়, বিএনপি বর্তমান কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটিসহ সহযোগী সংগঠনের বেশিরভাগই বর্তমানে মেয়াদোত্তীর্ণ।

তবে বিএনপির একটি বড় অংশ দলটির হাইকমান্ডের নানা ত্রুটির কথা জানিয়েছে। বিএনপির একাধিক নেতাকর্মী ক্ষোভ প্রকাশ করে অভিযোগ করে আমাদের সময় ডটকমকে জানিয়েছেন, বিএনপির ওপরের নির্দেশনায় যথেষ্ট ভুল সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কেন্দ্রীয় নির্বাহী পর্যায়ে অনেক অযোগ্য নেতাকে পদ দেয়া হয়েছে।

তৃণমূল পর্যায়ের একাধিক নেতাকর্মী বলেন, বিএনপি বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদ ব্যবসায়িরা দখল করে আছে। তারা আন্দোলনের সময় বেশিরভাগ পালিয়ে বেড়িয়েছেন। কিন্তু দল থেকে তাদের ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন ধরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে না।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে জে (অব.) মাহবুবুর রহমান বলেছেন, বিগত আন্দোলনের ভূমিকা ও দলের ত্যাগী, যোগ্য ও মেধাবীদের বিভিন্ন পর্যায়ের সাংগঠনিক ইউনিটগুলোর নেতৃত্বে দায়িত্ব দেওয়া হবে। রাজপথে সাহসী ভূমিকা পালনের জন্য তৃণমূল থেকে কেন্দ্রীয় পর্যন্ত নেতৃত্বে তরুণদের আনার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে।

আমাদের সময়.কম

এ জাতীয় আরও খবর

বাংলাদেশকে লিডের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তামিম-মুশফিক-লিটন

দেশের শীর্ষ ৫ ব্যাংকের একটি হওয়ার লক্ষ্য এনসিসি ব্যাংকের

এআইইউবি রোবোটিক দলকে পৃষ্ঠপোষকতা ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের

গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন

নাতির সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে দাদার মৃত্যু

ট্রেনের টয়লেট থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার

হামলায় মাথা ফাটল ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীর

প্রেমিকার বাড়ির পাশে প্রেমিকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ

ওষুধ খাইয়ে স্বামীকে ঘুম পারান স্ত্রী, গলাটিপে হত্যা করেন পরকীয়া প্রেমিক

আকস্মিক ধুলি-ঝড়ে বিপর্যস্ত সৌদির রাজধানী রিয়াদ

রিয়াজের মাছ ধরা নিয়ে চলছে হাসিঠাট্টা