সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আত্মহননের চেষ্টার পর হ্যাপি যা বললেন

happy===বিনোদন প্রতিবেদক : বুধবার রাতে ৩০টি ঘুমের বড়ি খেয়ে আত্মহননের চেষ্টা করেন বলে নিজেই স্বীকার করেছেন উঠতি চিত্র নায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপি। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘যে জীবনে রুবেলকেই পেলাম না সে জীবন রেখে লাভ কি? তাই আমি নিজেকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু পারলাম না।’ হ্যাপি বলেন, ‘আমার জীবনের চেয়েও দামী রুবেল। সেই রুবেলই আজ আমার কাছ থেকে অনেক দূরে। তাকে তো আর এই জীবনে পাব না। তাই এ দুনিয়া থেকে চলে যেতে চেয়েছি। অন্তত তার মুখতো আর দেখতে হবে না।’ তিনি বলেন, ‘বুধবার রাত ৯টার দিকে মাইনাস ৭.৫ মিলিগ্রামের ৩০টি ঘুমের বড়ি দুই ভাগে ভাগ করে ১৫টি করে খেয়ে ফেলি। কিছুক্ষণ পরই আমার মাথা ঘোরা শুরু করে। এরপর আম্মুকে বলি আমার মাথা ঘুরছে। আর কিছু বলতে পারিনি। গভীর রাতে মুখের ভেতর নল ঢূকিয়ে যখন ডাক্তাররা ওয়াস করছিল, তখন আমার হুশ ফিরে আসে। ভোরের দিকে এক প্রকার গোপনেই হাসপাতাল ছেড়ে বাসায় চলে আসি। এর আগে আমাকে আরো তিনটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোন ভর্তি করেনি।’ হ্যাপি বলেন, ‘এখন মোটামুটি সুস্থ আছি। চিকিৎসকরা আমাকে রেস্টে থাকতে বলেছেন। এমনকি কারো সঙ্গে কথা বলতেও নিষেধ করেছেন।’ কেন এরকম করতে গেলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ জীবনে শুধু একজনকেই ভাল বেসেছি। বাবা-মাকে যতটা বুঝতাম না তার চেয়েও বেশি বুঝতাম রুবেলকে। তার জন্যই আমার জীবনের সব হাসি-কান্না। কিন্তু রুবেল তো বুঝল না। তাই তার জন্যই জীবনটাকে বিসর্জন দিতে চেয়েছি। তা তো হলো না! তবু ভাবি কি হবে বেঁচে থেকে। কার জন্য বাঁচব?’ সবশেষে তিনি বলেন, জীবনটা তো শেষই আমার। সামনে কি করবো চিন্তা করতে পারছি না। বাবা-মা অনেক কষ্ট করেছেন। এখনও করছেন। জানিনা তাদের এ কষ্টের ঋণ পরিশোধ করতে পারব কি-না। আবার তাদের জন্যও একটু বাঁচার সাধ জাগে। আম্মু অনেক কেঁদেছেন। ভাই-বোন এবং আব্বুও কেঁদেছেন। তাদের জন্য অনেক খারাপ লেগেছে।

এ জাতীয় আরও খবর

৫-১২ বছর বয়সীরা পাবে ফাইজারের টিকা

রাশিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ঘোষণা জি-সেভেন নেতাদের

পিকআপে পদ্মা সেতু পার হচ্ছে মোটরসাইকেল

অবসর নিয়ে ভাবছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক মরগান

হাতিয়ায় শ্বশুরবাড়ি থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

‘পদ্মা সেতু আমাদের অহংকার’

টাঙ্গাইলে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

শারীরিক সম্পর্কে স্বামীর অনীহা, অভিযোগ নিয়ে থানায় গেলেন নারী

নাট-বল্টু খোলার মামলা তদন্ত করবে সিআইডি

মোবাইলে এক মেয়ের সঙ্গে কথা বলতেন ইমরান, ঝগড়াও হতো!

ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ নিষেধ শিক্ষকের

ঢাবির ‘খ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ