সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা : বেনজীর

image_193160.banger rabডেস্ক রির্পোট : র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, বড় ধরনের নাশকতার জন্য বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরকদ্রব্য ও অস্ত্র সংগ্রহ করা হয়েছিল। বাংলাদেশকে আফগানিস্তান বানানোর পরিকল্পনা করেছিল গ্রেপ্তারকৃত জঙ্গিরা। আজ শনিবার চট্টগ্রামে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে নগরীর শহরতলির একটি জঙ্গি আস্তানা থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরকদ্রব্য ও অস্ত্র উদ্ধার করে র‌্যাব-৭। এরপর সেখানে হেলিকপ্টারযোগে চট্টগ্রাম যায় র‌্যাবের ডিজি। সেখানে এক বিফ্রিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃত জঙ্গিরা স্বীকার করেছে, তারা বাংলাদেশকে আফগানিস্তান বানানোর বড় ধরনের পরিকল্পনা করেছিল।
তিনি বলেন, ওই বাসা থেকে ৩০ ধরনের বোমা তৈরির সরঞ্জাম, বস্তাভর্তি ১৫০ কেজি বিস্ফোরকদ্রব্য, আধা কেজি গান পাউডার, ৭৬টি হাতবোমা ও ২৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া অনেকগুলো ফ্লাস্ক, গ্লাভস ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের ব্যবহৃত বুটসহ অন্যান্য জিনিসপত্র পাওয়া গেছে বলে জানান তিনি। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি হাটহাজারীতে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেপ্তার ১২ জন এবং তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ২১ ফেব্রুয়ারি বাঁশখালীর পাহাড়ে জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সন্ধান পাওয়ার ধারাবাহিকতায় এই বাসায় অভিযান চালানো হয় বলে র‌্যাব প্রধান জানান।
ওই বাসা থেকে ইসলামী ছাত্রশিবিরের গঠনতন্ত্র, ছাত্রী সংস্থার কাগজপত্র এবং কক্সবাজারের উসু একাডেমি নামের একটি প্রতিষ্ঠানের কয়েকটি সনদপত্র উদ্ধার করা হয়েছে। সেখান থেকে কক্সবাজারের পেকুয়া থানার ফয়জুল হক (৩০), তার বোন রহিমা আক্তার (২১) এবং বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের আব্দুল হাই (৩৬) নামের তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে জাহেদ (২৫) নামের এক যুবককে।
তারা কোনো রাজনৈতিক দল বা কোনো জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্য কি না তা স্পষ্ট করে বলতে পারেননি র‌্যাবের মহাপরিচালক। র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার কে ব্লকের ১ নম্বর লেইনের ১/১৯ নম্বর বাড়িটি একজন যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসীর। গত জানুয়ারিতে ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে এরা উঠেছিলেন। এর আগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় দুর্গম পাহাড় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও জঙ্গি প্রশিক্ষণের সরঞ্জাম উদ্ধার করে র‌্যাব। যেখানে নিয়মিত জঙ্গি প্রশিক্ষণ দেওয়া হত বলে র‌্যাব কর্মকর্তারা বলেছিলেন।