বুধবার, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরাইলে ইউপি কমপ্লেক্সের জায়গা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

B Baria Mapস্টাফ রিপোর্টার সরাইল : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় ইউপি কমপ্লেক্সে ভবনের জায়গা পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক ড. মোশাররফ হোসেন। বুধবার সকালে শাহজাদাপুর ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামে সরজমিনে যান জেলা প্রশাসক। এ সময় তাঁর সাথে ছিলেন সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরান হোসেন। অজপাড়া গাঁয়ে ১৫ সহস্রাধিক মানুষের স্বপ্ন পূরনের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকের আগমনে সর্বক্ষণ উৎফুল্ল ছিল জনপ্রতিনিধি সহ সর্বস্তরের মানুষ। ইউনিয়ন পরিষদ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়,  জায়গার অভাবে গত ১৫/২০ বছরেও কমপ্লেক্স করতে পারেননি শাহজাদাপুরের সাবেক চেয়ারম্যানরা। শাহজাদাপুর ইউনিয়নের সকল গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে ১৯৫৬ সালে দেওড়ায় ইউনিয়ন অফিস স্থাপিত হয়েছিল।  ৫৯ বছর ধরে সেখানেই চলছে কার্যক্রম। এখানে প্রয়োজনীয় জায়গা নেই। বর্তমান চেয়ারম্যান পরিষদের সকলকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে জায়গার সন্ধান করছেন। অত্যাধুনিক কমরপ্লক্সের জন্য সরকার বরাদ্ধ দিয়েছে। ইতিমধ্যে অধিকাংশ ইউনিয়নে কমপ্লেক্স ভবন নির্মিত হয়েছে। চুন্টায় চলছে কাজ। অনেক দিন পর বর্তমান পরিষদের নিকটে শাহজাদাপুর নিয়ামতপুর ধাওরিয়া দেওড়া সড়কের পাশে অত্যন্ত সুন্দর পরিবেশে উঁচু ২৫ শতাংশ জায়গা পেয়েছেন। এখানে রয়েছে বিদ্যুত। উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা। আশপাশে রয়েছে মসজিদ মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাজার ও দোকানপাট । দাতা পরিষদের নামে জায়গা রেজিষ্ট্রি করে দিয়েছেন। গত বছরের ২২ জানুয়ারী পরিষদের অধিকাংশ সদস্যের মতামতের ভিত্তিতে দেওড়ার ওই জায়গায় কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে রেজুলেশন করেন। বিষয়টি ২০১৪ খিষ্টাব্দের ২৭ জানুয়ারী উপজেলার মাসিক সভায় অনুমোদন পায়। নিয়ম মাফিক তদন্ত শেষে নির্বাহী কর্মকর্তা প্রতিবেদন তৈরী করে জেলায় প্রেরন করেন। বিষয়টি জেনে গাত্রদাহ শুরু হয় স্থানীয় একটি স্বার্থান্বেষী মহলের। তারা মহৎ এ কাজটিকে বাঁধা গ্রস্থ করতে শুরু করেন নানান ফন্দি ফিকির। থেমে যায় কাজের অগ্রগতি। ওদিকে ইউনিয়নের ১৫ সহস্রাধিক লোক নতুন কমপ্লেক্সে ভবনের জন্য বারবার প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করতে থাকে। বর্তমান চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম খোকন ও জনগনের আশার প্রতিফলন ঘটানোর জন্য বারবার কড়া নাড়ছেন প্রশাসনের দরজায়। ২০১৪ খিষ্টাব্দের ১ জুন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ভবনের জায়গাটি পরিদর্শনে এসে সকল জনপ্রতিনিধি সহ ইউনিয়নের গণ্যমান্য লোকজনের সাথে কথা বলেন। ওই ইউনিয়নের তৃণমূল মানুষের কথা চিন্তা করে জেলা প্রশাসক ড. মোশাররফ হোসেন গতকাল ছুটে আসেন দেওড়ায়। স্বাধীনতার পর দেওড়া গ্রামে একজন জেলা প্রশাসকের প্রথম পদার্পনে দারুন উজ্জীবিত সাধারন মানুষ। এখন তারা নতুন কমপ্লেক্স পাওয়ার স্বপ্ন দেখছে। খেঁটে খাওয়া সাধারন মানুষের প্রতি জেলা প্রশাসকের ভালবাসার প্রশংসায় চাউর গোটা শাহজাদাপুর ইউনিয়ন। শাহজাদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, দেশ স্বাধীনের ৪৪ বছর পর আমার জনগনের সুখের কথা চিন্তা একজন ডিসি গ্রামের মানুষ গুলোর কাছে চলে এসেছেন। খোঁজ খবর নিয়েছেন। আমি উনার কাছে চির কৃতজ্ঞ। জেলা প্রশাসক দেওড়া থেকে দ্রুত চলে যান চুন্টায় ইউপি কমপ্লেক্সের চলমান কাজ দেখতে। কাজ দেখে তিনি সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ও স্থানীয় চেয়ারম্যানকে মানসম্মত মালামাল ব্যবহার করে টেকসই কাজ করার নির্দেশ দেন। পরে তিনি চুন্টার ভূমি অফিস পরিদর্শন করেন। দুপুর ১টায় জেলা প্রশাসক সরাইল উপজেলা চত্বরে নির্বাহী কর্মকর্তার উদ্যোগে স্থাপিত সরাইল একাডেমি নামক বিদ্যালয়টির আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করেন। মানুষ গড়ার এ কারখানায় যারা শ্রম দিচ্ছেন তাদের প্রশংসা করেছেন।