বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কসবার জনু মিয়াকে তিনদিন পর ফেরত

BSF .....জেলার কসবায় বাংলাদেশি নাগরিক জনু মিয়াকে (৫০) তিন দিন পর ফেরত দিয়েছে বিএসএফ।শনিবার দুপুরে বিএসএফের সদস্যরা তাকে কুমিল্লা বিজিবি ১০ কার্যালয়ে তাকে ফেরত দেয়।জনু মিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের পুটিয়া গ্রামের মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে।

বিজিবি, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জনু মিয়ার নিজস্ব কোনো বাড়ি নেই। তিনি ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ২০৫২ পিলার সংলগ্ন ফায়েজ মিয়ার বাড়িতে বসবাস করেন। গত বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত ৪টার দিকে ভারতীয় পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ ওই বাড়িতে হানা দিয়ে জনু মিয়াকে ১২নং গেইট দিয়ে ভারতে ধরে নিয়ে যায়। এ নিয়ে সীমান্তবর্তী এলাকার সাধারণ লোকজনদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে বিজিবি বিএসএফকে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানান এবং বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় আশাবাড়ি সীমান্তে দু’দেশের কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বিজিবি ধরে নিয়ে যাওয়া জনু মিয়াকে বাংলাদেশি নাগরিক দাবি করে তার জাতীয় পরিচয়পত্র জমা দেন।

বিএসএফ তা যাচাই করে ফেরত দেয়ার আশ্বাস দেয়। বৈঠকে বিএসএফ তাকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকতে পারে সন্দেহ করে ভারতীয় নাগরিক ভেবে আটক করে।

কুমিল্লার বিজিবি ১০ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল সহিদুর রহমান জানান, গত তিনদিনে জনু মিয়াকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা তিন দফা পতাকা বৈঠক করেও তাকে ফিরিয়ে আনা যায়নি। তবে আমরা তাকে ফিরিয়ে আনার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। পতাকা বৈঠকে বিএসএফ জানান, ভারতীয় নাগরিক ধারণা করে তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বিজিবির পক্ষ থেকে বাংলাদেশি নাগরিক হিসাবে তার জাতীয় পরিচয়পত্র পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছিল। বিএসএফ নাগরিকত্ব যাচাই করে গত শনিবার রাতে তাকে ফেরত দিয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তাকে বিএসএফ এর সদস্যরা জেলার কসবা সীমান্তের নিজ বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। এরপর তিন দফা পতাকা বৈঠক করা হলেও বিএসএফ জনু মিয়াকে ফেরত দেয়নি।

 

এ জাতীয় আরও খবর