শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দশটি স্পোর্টস ক্লাব

stadimচিত্ত বিনোদনের জন্য খেলাধুলার প্রাথমিক উদ্দ্যেশ্য থাকলেও বর্তমান এই খেলাধুলা আর নিজ দেশ, স্থান, জাতীয়তার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। বর্তমানে ইন্টারনেট ও খেলাধুলার জন্য বিভিন্ন চ্যানেলের সহজলভ্যতার যুগে প্রাচ্যের সুদূর কোন দেশের সমর্থক বসে আছে আমাদের দেশেও। রয়েছে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় কোন ক্লাবে খেলছে সেটা নিয়ে মাতামাতি, বিতর্ক আর জুয়া ব্যবসা। এসব কিছুকে ছাপিয়ে যেটা বলা যায়, ক্লাবের খেলা এখন আর সেই দেশেই সীমাবদ্ধ নয়। বরং সারা বিশ্বেই তৈরি হয়েছে সেই ক্লাবের সমর্থক। এই প্রচারনা ও জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করে এগিয়ে যেতে ক্লাবগুলোকে ব্যয় করতে হয় প্রচুর অর্থ। শুধু যে অর্থই ব্যয় হয় এমন না, আয়ও কম হয় না। এসব ক্লাবের মধ্যে রয়েছে ফুটবল ক্লাব,বেসবল ক্লাবও। আসুন জেনে নিই সেই ধনবীর দশটি ক্লাব সম্পর্কে।



(১) রিয়াল মাদ্রিদঃবিশ্বের নামীদামি তারকাদের নিয়ে গড়া এই স্প্যানিশ ক্লাবটি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্লাবের তালিকায় প্রথম স্থানে আছে। ক্লাবটির মুলধন ৩ দশমিক ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০১৩ সালে ক্লাবটি আয় করেছে প্রায় ৬৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যার বিপরীতে খরচ হয়েছে মাত্র ১৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।



(২) বার্সালোনাঃলা লিগায় ক্রমাগত সাফল্য আর ফুটবলের জাদুকর লিওনেল মেসির জনপ্রিয়তায় স্প্যানিশ এই ক্লাবটি বিশ্বে ধনী ক্লাবের তালিকায় দুইয়ে আছে। ক্লাবটির মুলধন ৩ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার। স্প্যানিশ এই ক্লাবটির জনপ্রিয়তা ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ক্লাবের চেয়েও অনেক বেশি।



(৩) ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডঃফুটবলের সবচেয়ে পুরানো ক্লাব ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের সবচেয়ে ধনী এই ক্লাবটি তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছে। এর রয়েছে কয়েক মিলিয়ন ভক্ত আর দর্শক। দলটির মূলধন ২ দশমিক ৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০ টি ক্লাব শিরোপা জেতা ক্লাবটি ১৮৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ।



(৪) নিউইয়র্ক ইয়াঙ্কিসঃআমেরিকান বেসবল লীগের এই ক্লাবটিও বিশ্বের ধনী ক্লাবের কাতারে চার নম্বরে অবস্থান করছে। ক্লাবটির মূলধন ২ দশমিক ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২৭ বার ক্লাব শিরোপা জেতা এই বেসবল ক্লাবটি ১৯০১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।



(৫) ডালাস কাউ বয়েজঃআমেরিকান ফুটবল ক্লাবের এই দলটিও বেশ ধনী। মূলধন রয়েছে ২ দশমিক ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ক্লাবটি পাচবার এনএফএল এর শিরোপা লাভ করে। আমেরিকান এই ফুটবল ক্লাবটি ১৯৬০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।



(৬) লস অ্যানেঞ্জল ডজার্সঃআমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলস এর বেসবল ক্লাবটির মোট মূলধনের পরিমাণ দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ক্লাবটি ১৮৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।



(৭) বায়ার্ন মিউনিখঃআমেরিকার আর স্প্যানিশ ক্লাবের টাকার ছড়াছড়িতে আর আয়েও পিছিয়ে নেই জার্মান এই ক্লাবটি। ক্লাবে রয়েছে বিশ্বমানের বেশ কয়েকজন ফুটবলার। যাদের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। ক্লাবটির মূলধন ১ দশমিক ৮৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।



(৮) নিউ ইংল্যান্ড প্যাট্ট্রিয়টসঃএটিও আমেরিকান ফুটবল ক্লাব। ক্লাবটি ১৯৫৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ক্লাবটির বর্তমান মূলধন ১ দশমিক ৮০ মার্কিন ডলার।



(৯) ওয়াশিংটন রেডস্কিন্সঃবিশ্বের ধনী ক্লাবগুলোর তালিকায় আমেরিকান এই ক্লাবের অবস্থান নবম। ক্লাবটির মূলধন ১ দশমিক ৭০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ক্লাবটি ১৯৩২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।



(১০)নিউইয়র্ক জায়ান্টসঃবিশ্বের ধনী ক্লাবের দশম স্থানেও আছে আমেরিকার এই ফুটবল ক্লাবের। ক্লাবটির মূলধনের পরিমাণ ১ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ক্লাবটি ১৯২৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।