বুধবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চারিত্রিক সৌন্দর্য সৃষ্টি করতে হবে

islam।।মোঃ রাসেল মিয়া।। ইসলাম চারিত্রিক সোন্দর্যের প্রতি প্রত্যেককে আহ্বান করে। রসুল (সা.) ও সাহাবায়ে কেরামের চারিত্রিক মাধুর্যতা হাদিসের কিতাবগুলোতে চিরউজ্জ্বল হয়ে আছে, যা কেয়ামত পর্যন্ত পৃথিবীবাসীকে পথ দেখিয়ে যাবে। বিশ্ব মানবতার জন্য চিরঅম্লান ইতিহাস হয়ে থাকবে। প্রিয়নবী (সা.) সব সময় সাহাবায়ে কেরামকে চারিত্রিক সৌন্দর্য সৃষ্টির প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন। উৎসাহিত করেছেন। হজরত আনাস (রা.) হতে বর্ণিত আছে যে, নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেছেন_ তোমাদের কেউ পরিপূর্ণ মুমিন হতে পারবে না, যে যাবৎ না সে নিজের জন্য যা পছন্দ করে অন্য ভাইয়ের জন্য তা পছন্দ করবে। বোখারি ও মুসলিম। অপর হাদিসে এসেছে, রসুল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি একমাত্র আল্লাহর উদ্দেশ্যে কাউকে ভালোবাসে, আল্লাহর জন্য কারও সঙ্গে শত্রুতা পোষণ করে, তার সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে দান করে এবং তার সন্তুষ্টির জন্যই দান করা থেকে বিরত থাকে, সে অবশ্যই তার ইমানকে পরিপূূর্ণ করে নিল। আবু দাউদ। আরও এসেছে, হজরত মুয়াজ বিন জাবাল (রা.) নবী করিম (সা.)-কে উত্তম ইমান সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলেন। তিনি বললেন, আল্লাহর জন্য কারও সঙ্গে তোমার ভালোবাসা হবে, আল্লাহর জন্যই কারও সঙ্গে শত্রুতা পোষণ করবে আর তুমি তোমার জিহ্বাকে আল্লাহতায়ালার জিকিরে মশগুল রাখবে। হজরত মুয়াজ (রা.) জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রসুল (সা.), আর কী? উত্তরে রসুল (সা.) বললেন. নিজের জন্য যা ভালোবাস অন্যের জন্যও তা ভালোবাসবে। আর নিজের জন্য যা অপছন্দ কর, অন্যের জন্যও তা অপছন্দ করবে। মুসনাদে আহমদ। আরেক হাদিসে ইরশাদ হয়েছে_ রসুল (সা.) বলেছেন, প্রকৃত মুসলমান সেই ব্যক্তি যার মুখ ও হাত হতে অপর মুসলমান নিরাপদে থাকে এবং সে প্রকৃত মুমিন যাকে মানুষ নিজেদের জান ও মালের ব্যাপারে নিরাপদ মনে করে। তিরমিজি ও নাসায়ি। আরও এসেছে, রসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন_ ওই ব্যক্তি পরিপূর্ণ মুমিন যার চরিত্র উত্তম। আবু দাউদ ও দারেমি। প্রিয়নবী আরও বলেন, ইসলামের সৌন্দর্য হলো অসার কথা ও কাজ পরিত্যাগ করা। ইবনে মাজাহ, তিরমিজি ও বায়হাকি। রসুল (সা.) আরও ইরশাদ করেছেন_ আল্লাহর কসম, ওই ব্যক্তি মুমিন নয়, আল্লাহর কসম, ওই ব্যক্তি মুমিন নয়! আল্লাহর কসম, ওই ব্যক্তি মুমিন নয়। জিজ্ঞাসা করা হলো হে আল্লাহর রসুল, কে ওই ব্যক্তি? তিনি বললেন, যার অনিষ্টতা থেকে তার প্রতিবেশী নিরাপদ নয়। বোখারি। মহান আল্লাহ আমাদের আমল করার তৌফিক দান করুন। আমিন।