বুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় ব্যবসায়ীদের সভায় ডব্লিউটিওর মহাপরিচালক বাজারসুবিধা সহজ নয়, সম্ভব

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া বিশ্বের সব উন্নত দেশ বাংলাদেিশ সব পণ্যের জন্য বাজার প্রায় পুরোটাই খুলে দিয়েছে৷ আর তাই বাংলাদেশের এখন একটি বড় দাবি, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে প্রধান রপ্তানিপণ্য তৈরি পোশাকের জন্য শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত বাজারসুবিধা৷

বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) মহাপরিচালক ররার্তো আজেভেদোর সামনে তাই দেশের ব্যবসায়ী নেতার এই দাবিটিই তুলে ধরলেন৷ চাইলেন তাঁর হস্তক্ষেপ৷ তবে আজেভেদো এ বিষয়ে তেমন কোনো আশার বাণী শোনাতে পারলেন না৷ বরং বললেন, ‘কাজটি সহজ নয়’৷ তবে একেবারে হতাশায় নিমজ্জিত না করার জন্য যোগ করলেন, ‘এটা সম্ভব৷ এ জন্য অনেক কাজ করতে হবে৷’

ডব্লিউটিওতে ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত রবার্তো আজেভেদো গত বছর সেপেটম্বর থেকে সংস্থাটির ষষ্ঠ মহাপরিচালকের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন৷ তিনি দুই দিনের সফরে গত সোমবার রাতে ঢাকায় এসেছেন৷ তাঁর সম্মানে দেশের পোশাক খাতের দুই সংগঠন বাংলাদেশ তৈরি পোশাকশিল্প মালিক সমিিত (বিজিএমইএ) ও নিট পোশাকশিল্প মালিক সমিতি (বিকেএমইএ) গতকাল দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে এক ভোজসভার আয়োজন করে৷ এই সভায় এসব আলোচনা ও কর্থাবার্তা উঠে আসে৷ এতে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন৷

আজেভেদো পরিষ্কার করেই বলেন যে হংকং ঘোষণা অনুসারে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর অন্তত ৯৭ শতাংশ পণ্যকে যুক্তরাষ্ট্রসহ উন্নত দেশগুলো শুল্কমুক্ত বাজারসুবিধা দিতে বাধ্য৷ তবে তা দোহা সমঝোতা পর্ব সম্পন্ন হওয়ার আগ পর্যন্ত নয়৷ আর এখন পর্যন্ত যেহেতু এই পর্ব এখনো শেষ হয়নি, তাই শতভাগ পণ্যে বাজারসুবিধার বিষয়টি নিয়ে কিছু বলার সুযোগ নেই৷

কাতারের রাজধানী দোহায় ২০০১ সালে ডব্লিউটিওর চতুর্থ মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলনে গৃহীত সিদ্ধান্তগুলোকে একত্রে দোহা সমঝোতা পর্ব বলা হয়৷ এখানে মূল সিদ্ধান্তটি ছিল ধনী দেশগুলো কৃষি বাণিজ্যে তাদের ভর্তুিক কমাবে আর উন্নয়নশীল দেশগুলো শিল্পপণ্যে আমদানি শুল্ক কমাবে৷ তবে কীভাবে ও কত দিনের মধ্যে এগুলো কার্যকর করা হবে, তা নিয়ে এক যুগ ধরে দর-কষাকষি চলছে৷ ফলে এই পর্বের সমঝোতা শেষ হতে পারেনি৷ পাশাপাশি আরও অনেক বিষয় যুক্ত হয়ে পড়েছে৷

আবার ২০০৫ সালে হংকংয়ে অনুষ্ঠিত ডব্লিউটিওর ষষ্ঠ মিন্ত্রপরিষদ সম্মেলনে সদস্য দেশগুলো একমত হয় যে স্বল্পোন্নত বা গরিব দেশগুলোর অন্তত ৯৭ শতাংশ পণ্যকে উন্নত দেশগুলো তাদের বাজারে শুল্কমুক্তভাবে প্রবেশ করতে দেবে৷ আর উন্নয়নশীল দেশগুলোর (যেমন চীন, ভারত ও ব্রাজিল) মধ্যে যারা এই সুবিধা দেওয়ার মতো অবস্থায় থাকবে, তারা এই সুবিধা দেবে৷ অর্থাৎ তাদের ক্ষেত্রে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই৷

ডব্লিউটিওর মহাপরিচালক এ প্রসঙ্গে আরও বলেন, গত বছর ডিসেম্বরে বালি সম্মেলনের ঘোষণায় তাই বলা হয়েছে, যেসব দেশ এখনো ৯৭ শতাংশ সুবিধা দেয়নি, তাদের আগামী সম্মেলনের আগেই এর পরিধি বাড়াতে হবে৷

ধরে নেওয়া হচ্ছে যে যুক্তরাষ্ট্রকেই এই পরিধি বাড়াতে হবে৷ কেননা ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কানাডা, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডসহ উন্নত দেশগুলো ইতিমধ্যে বাংলাদেশসহ স্বল্পোন্নত দেশগুলোর ৯৭ শতাংশ থেকে শতভাগ পণ্যে বাজারসুবিধা দিয়ে দিয়েছে৷

সভার প্রধান অতিথি বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ অবশ্য ৯৭ শতাংশ পণ্যে বাজারসুবিধা পাওয়াকে ‘প্রকৃতপক্ষে কোনো প্রাপ্তি নয়’ বলে উল্লেখ করেন৷ তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রধান পণ্য তৈরি পোশাক যদি এই সুবিধা না পায়, তাহলে এই সুবিধা অর্থবহ হয় না৷

বিজেএমইএর সভাপতি আতিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় বাণিজ্য সচিব মাহবুব আহমেদ, বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি কাজী আকরামউদ্দিন আহমেদ, বিকেএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, বিজেএমইর সাবেক সভাপতি সিফউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিিটউটের পরিচালক মোস্তফা আবিদ খান প্রমুখ বক্তব্য দেন৷

বাংলাদেশ সফরকালে গতকাল সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন রবার্তো আজেভেদো৷ আর বিকেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন বাণিজ্যমন্ত্রীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে৷

এদিকে বাংলাদেশ সফররত ডব্লিউটিওর মহাপরিচালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নাগরিক সমাজের বিভিন্ন সংগঠনের জোট ইকুইটি বিডি গতকাল

জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে৷ সেখানে ইকুইটি বিডির পক্ষ থেকে ডব্লিউটিওর আওতায় সেবা খাতের বাণিজ্যিকীকরণের প্রতিবাদ ও বাংলাদেশের সব পণ্যে শতভাগ শুল্কমুক্ত বাজারসুবিধা প্রদানের দাবি জানানো হয়৷

এ জাতীয় আরও খবর

বিএনপি নেতা টুকুর বক্তব্য শিষ্টাচারবহির্ভূত ও কুরুচিপূর্ণ: জামায়াত

মাথা দিয়ে বাংলাদেশকে উড়িয়ে দিলেন অঞ্জন

ক্যাম্পাসে ফিরেছেন রিভা-রাজিয়া

পরীক্ষার সিরিজে প্রত্যাশিত জয় টাইগারদের

প্রেমিকাকে পেতে স্ত্রীকে বিষ খাইয়ে হত্যা

রাজনৈতিক সহিংসতা ও নির্বাচনী অস্থিতিশীলতা বিনিয়োগকারীদের ভীত করে: পিটার হাস

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যায় ৯ জনের যাবজ্জীবন

নিহত রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহর ১৪ স্বজন কানাডায়

টুকু জনগণের ভাষায় কথা বলতে পারেন না: জামায়াত

‘সাবধানে যাবি, তাড়াতাড়ি আসবি’: মেয়ের সঙ্গে বাবার শেষ কথা

প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা বার্তা লিখবে দেড় কোটি শিক্ষার্থী

মানুষের জন্য চিকিৎসা নেই, বেকারদের জন্য কাজের নিশ্চয়তা নেই : জিএম কাদের