সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যেসব অজানা কারণে আপনার শরীরে হচ্ছে পানি শূন্যতা

waterমানুষের শরীরের ৬০% শতাংশই পানি। আর তাই সামান্য একটু পানি কমে গেলেও শরীরে দেখা দেয় পানিশূন্যতা। পানিশূন্যতা হলেই শরীরে নানান রকম সমস্যা দেখা দেয়। শরীরের স্বাভাবিক প্রক্রিয়াগুলো ব্যহত হয়। সেই সঙ্গে মানসিক ভাবেই বিষণ্ণ অনুভূত হতে থাকে। আমরা জানি যে পানি কম খেলে, অতিরিক্ত ঘামলে কিংবা অনেক বেশি ব্যায়াম করলে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। কিন্তু এর বাইরেও কিছু কারণ আছে যেগুলোর জন্য শরীরে সৃষ্টি হতে পারে পানিশূন্যতার। জেনে নিন তেমনই ৬টি অজানা কারণ সম্পর্কে।

১.ডায়াবেটিস

যাদের ডায়াবেটিস আছে এবং তাঁরা সেটা জানেন না তাদের পানিশূন্যতা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। রক্তে চিনির পরিমাণ যখন অনেক বেশি থাকে তখন শরীর অতিরিক্ত গ্লুকোজ বের করে দেয়ার জন্য বার বার মূত্রত্যাগ করে। ফলে শরীর থেকে প্রচুর পানি নির্গত হয়ে যায় এবং পানির অভাব হয়ে যায়। ফলে অতিরিক্ত তৃষ্ণা ও পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

২.পিরিয়ড

পিরিয়ডের সময়ে শরীরে অতিরিক্ত পানির প্রয়োজন হয়। কারণ এসময়ে শরীরে এস্ট্রোজেন ও প্রোজেস্টেরন নামের হরমোনের প্রভাবে শরীরে পানির অভাব দেখা দেয়। তাই এই সময়ে স্বাভাবিক সময়ের চাইতে বেশি পানি না খেলে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

৩.ডায়েটিং

ওজন কমানোর জন্য যারা অতিরিক্ত ডায়েটিং করেন এবং কার্বোহাইড্রেটযুক্ত খাবার একেবারেই বাদ দিয়ে দেন তাদের পানিশূন্যতা দেখা দিতে পারে। কার্বোহাইড্রেটযুক্ত খাবার রান্না করার সময় কিছুটা পানি শুষে নেয়। পরবর্তিতে সেটা গ্রহণ করলে শরীরে সেই পানিটুকু প্রবেশ করে। এছাড়াও অতিরিক্ত ডায়েটিং এর কারণে মিষ্টি জুস জাতীয় খাবারও ত্যাগ করেন অনেকেই। ফলে শরীরে কিছুটা পানির অভাব দেখা দেয়।

৪.মানসিক চাপ

অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণেও শরীরে দেখা দিতে পারে পানিশূন্যতা। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা ও মানসিক চাপে স্বাভাবিকের চাইতে বেশি ঘাম হয়। সেই সঙ্গে প্রচুর পরিমাণে স্ট্রেস হরমোন নির্গত হয় শরীর থেকে। শরীর এই অস্বাভাবিক অবস্থার সাথে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে গিয়ে হিমসিম খায় এবং শরীরে এই সময়ে প্রচুর পরিমাণে পানির প্রয়োজন হয়। এই সময়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি না খেলে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

৫.বিশেষ কোনো ওষুধYJMIgJ3

অনেক সময় বিশেষ কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারনেও শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। কিছু বিশেষ ওষুধ খেলে মূত্রত্যাগের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং শরীরে পানির চাহিদা বেড়ে যায়। ফলে শরীরে দেখা দেয় পানিশূন্যতা। আপনার যদি এধরণের সমস্যা অনুভূত হয় তাহলে আপনার ডাক্তারের সাথে এই ব্যাপারে কথা বলুন এবং প্রয়োজনে ওষুধ বদলে নিন।

৬.গর্ভধারন

গর্ভধারন করলে আপনার স্বাভাবিকের চাইতে বেশি পানি প্রয়োজন হয়। গর্ভস্থ সন্তানের ও নিজের চাহিদা মেটাতে এই সময়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খাওয়া না হলে শরীরে দেখা দেয় পানিশূন্যতা।