মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আইপিএলে পাকিস্তানকে চান আকরাম

অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা; পৃথিবীর কত দূরদারন্ত থেকে আইপিএলে খেলতে আসেন তারকা ক্রিকেটাররা। অথচ ভারতের জনপ্রিয় এই ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগে অংশগ্রহণের সুযোগ মেলে না প্রতিবেশী পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের। দুই দেশের রাজনৈতিক টানাপোড়েনের খেসারত দিয়ে আইপিএলে খেলার সুযোগ হারিয়েছেন শহীদ আফ্রিদি-সাঈদ আজমলরা। আরও কত দিন তাঁদের এভাবে ব্রাত্য হয়ে থাকতে হবে বলা মুশকিল। তবে সম্প্রতি নিজ দেশের ক্রিকেটারদের আবারও আইপিএলে ফেরানোর আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম।

২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম আসরে অবশ্য অংশ নিয়েছিলেন পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। সেই আসরের সর্বোচ্চ উইকেট-শিকারী বোলারও ছিলেন একজন পাকিস্তানি। সোহেল তানভির। কিন্তু সে বছরই মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার পর কপাল পুড়েছে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের। আইপিএলের পরবর্তী পাঁচটি আসরে আর জায়গা মেলেনি তাদের। কিন্তু এখন আইপিএলের স্বার্থেই পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের আবার সুযোগ দেওয়া উচিত বলে মনে করছেন আকরাম। কলকাতা নাইট রাইডার্সের এই বোলিং কোচ সম্প্রতি এক সাক্ষাত্কারে বলেছেন, ‘ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা যখনই একসঙ্গে বা প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলে, তখন সেটা অনেকের মনোযোগ আকর্ষণ করে। বিশেষ করে এই উপমহাদেশে। আমি আশা করছি ভবিষ্যতে পাকিস্তান এখানে অংশগ্রহণ করতে পারবে কারণ আমাদের অনেক মেধাবী ক্রিকেটার আছে।’ রাজনীতির সঙ্গে খেলাধুলাকে মিশিয়ে না ফেলার আহ্বানই দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে জানিয়েছেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি এই ক্রিকেটার, ‘চিন্তা করেন এখানে সাঈদ আজমল খেলছে। এই প্রতিযোগিতার জন্য এটা দারুণ একটা ব্যাপার হতো। উমর আকমল, উমর গুল, শহীদ আফ্রিদির আইপিএলে খেলাটা বিশাল একটা ব্যাপার হতে পারত। কিন্তু এই সিদ্ধান্তটা দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডকেই নিতে হবে। রাজনীতির সঙ্গে খেলাধুলাকে মিলিয়ে ফেলাটা ভালো কিছু নয়।’

আগামীকাল থেকে দুবাইয়ে শুরু হতে যাচ্ছে আইপিএলের সপ্তম আসর। এবারও পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ছাড়াই শুরু হচ্ছে ভারতের এই ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগ। ভারতের ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা আকরামের কথা আমলে নেবেন কি না, সেটা জানার জন্য অবশ্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী আসর পর্যন্ত। পিটিআই