বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কঠিন লড়াইয়ের অপেক্ষায় পাকিস্তান

5309a776c9e1e-Pakistan_Image২০১০ সাল পর্যন্ত এশিয়া কাপটা ছিল বিশ্বকাপজয়ী তিন দল ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ত্রিমুখী লড়াই। বাংলাদেশ অংশ নিলেও খুব বেশি প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি। কিন্তু গত আসরে সেই পরিস্থিতির অনেকখানিই বদলে দিয়েছেন মাশরাফি-সাকিব-তামিম-মুশফিকেরা। উত্তেজনাপূর্ণ ফাইনালে মাত্র দুই রানে হারলেও নিজেদের শক্তিমত্তা বেশ ভালোভাবেই জানান দিয়েছিল বাংলাদেশ। এবার তাই এশিয়া কাপের আগে বেশ সতর্ক অবস্থাতেই আছে গতবারের শিরোপাজয়ী পাকিস্তান। 



শিরোপা ধরে রাখার লড়াইটা যে খুব কঠিনই হবে, সেটা স্বীকারই করে নিয়েছেন অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক।

ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা তো বরাবরের মতো এবারও ফেবারিট। গত ১১টি আসরের শিরোপা নিজেদের মধ্যেই ভাগাভাগি করে নিয়েছে এই তিন দেশ। কিন্তু এবার এশিয়া কাপে বাংলাদেশেরও যে ভালো সম্ভাবনা আছে, সেটাই সবাইকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন মিসবাহ, ‘বাংলাদেশ নিজেদের মাঠে খুব শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। গত এশিয়া কাপে অল্পের জন্য তারা শিরোপা জিততে পারেনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও তারা ভালো লড়াই করেছে। কাজেই আমরা শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাই আশা করছি।’



এখন পর্যন্ত এশিয়া কাপে পাকিস্তান সাফল্যের দেখা পেয়েছে দুইবার। ২০০০ ও ২০১২ সালে। দুইবারই আয়োজক ছিল বাংলাদেশ। এই জায়গা থেকে হয়তো কিছুটা অনুপ্রেরণাই খুঁজবেন মিসবাহরা। সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানবিরোধী প্রচারণা চললেও বাংলাদেশে এসে খেলাটা উপভোগ করেন বলেই জানিয়েছেন পাকিস্তান 



অধিনায়ক, ‘বাংলাদেশের মাটিতে খেলা সব সময়ই আনন্দের অভিজ্ঞতা। শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে খেললে মনে হয় আমরা লাহোর গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে খেলছি। এখানেই আমরা দুইবার শিরোপা জিতেছি।’ এবারও ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি তাঁরা করতে পারবেন কি না, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ২৫ ফেব্রুয়ারি শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।