বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মান বাঁচাল রিয়াল মাদ্রিদ

52eed2fb846d6-Real-Madrid-imageম্যাচটি রিয়াল জিতলেও জিততে পারত। জিতলে লা লিগার পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থানটি নিজেদের করতে পারত তারা। অ্যাটলেটিকোর সঙ্গে তখন লস ব্ল্যাঙ্কোসদের পয়েন্টের ব্যবধান থাকত মাত্র এক। কিন্তু অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলার সুযোগটা নিতে পারল না কার্লো আনচেলত্তির দল। অ্যাটলেটিকোর পায়ে পা দিয়ে এগিয়ে যাওয়ার ব্যাপারটিও দূরেই রয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদের জন্য।

শনিবার ভ্যালেন্সিয়ার কাছে বার্সেলোনা হেরে যাওয়ায় অ্যাটলেটিকোর সামনে লিগের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ওঠার সুযোগটা চলে আসে। আজ রিয়াল সোসিয়েদাদকে উড়িয়ে দিয়ে অ্যাটলেটিকো সেই সুযোগটি বেশ ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছে। ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে তারা এখন লা লিগার একক শীর্ষ দল। রিয়াল মাদ্রিদ বিলবাওকে হারাতে না পারায় লিগে অ্যাটলেটিকোর অবস্থানটাও এখন আরও মজবুত। দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা আর রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট এখন ২২ খেলা থেকে সমান, ৫৪। রিয়াল ও বার্সার চেয়ে অ্যাটলেটিকো এগিয়ে পাক্কা তিন পয়েন্টে।

আজকের ম্যাচে কোনো কিছুই ঠিকমতো হয়নি রিয়ালের। রোনালদো দেখেছেন লাল কার্ড। এক গোলে এগিয়ে গিয়েও হজম করতে হয়েছে গোল। ডিয়েগো লোপেজ গোলপোস্টে না দাঁড়ালে শেষ পর্যন্ত খেলাটি থেকে আদৌ রিয়াল একটি পয়েন্ট তুলে নিতে পারত কি না—তা নিয়েও রয়েছে যথেষ্ট সন্দেহ।

বন্ধ্যা প্রথমার্ধে রিয়ালের যথেষ্ট পরীক্ষাই নিয়েছে বিলবাও। রিয়াল ম্যাচে এগিয়ে যায় ৬৫ মিনিটের সময়। করিম বেনজেমার কাছ থেকে বল নিয়ে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোলমুখে ঠেলে দেওয়া বল গোলে পরিণত করেন জেসে রদ্রিগুয়েজ। ৭২ মিনিটে দারুণ এক শটে খেলায় সমতা আনেন বিলবাওয়ের ইবাই গোমেজ।

খেলার শুরুতেই অবশ্য এগিয়ে যেতে পারত রিয়াল। কিন্তু ২০ সেকেন্ডের মাথায় আচমকা পাওয়া এক সুযোগ হেলায় হারান রোনালদো। তাঁর শট হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট। এর পরপরই খেলায় নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বিলবাও। প্রথমার্ধ প্রায় পুরোটা সময়জুড়েই ছিল বিলবাওয়ের আধিপত্য। আদুইরিজ গোলরক্ষক লোপেজকে একা পেয়েও বল বাইরে মেরে একটি সুযোগ নষ্ট করেন। এরপর রিয়ালের সীমানায় বল পেয়েও বিলবাওয়ের ইকার মুনিয়াইন তা ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণে নিতে না পারায় আরও একটি সুযোগ হারান।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে অবশ্য রিয়াল জ্বলে ওঠে। এই অর্ধের শুরুতেই লুকা মদরিচ ও করিম বেনজেমার দুটি দূরপাল্লার শট দারুণ ভঙ্গিতে রক্ষা করেন বিলবাও গোলরক্ষক ইরাইজজ।

গোল করে এগিয়ে যাওয়ার পর তা রিয়াল মাত্র নয় মিনিট ধরে রাখে। ম্যাচে সমতা হয়ে যাওয়ার পর রোনালদোর লাল কার্ড আনচেলত্তি বাহিনীকে ফেলে দেয় গভীর সংকটে। খেলার শেষের দিকে লোপেজের দুটি দারুণ সেভে কোনোমতে এক পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফেরার সুযোগ হয় রিয়ালের। সূত্র: রয়টার্স।