শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রুশোর সেঞ্চুরিতে শেষ ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারল ভারত

news-image

স্পোর্টস ডেস্ক : সিরিজ আগেই জিতেছে ভারত। তবে নিয়মরক্ষার তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে রাইলে রুশোর প্রথম সেঞ্চুরিতে ভারতকে ৪৯ রানের বড় ব্যবধানে হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টিতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতল রোহিত শর্মার দল।

মঙ্গলবার ইন্দোরে প্রথমে ব্যাট করা প্রোটিয়ারা নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২২৭ রানের পাহাড়সম রান করে। জবাবে ১৭৮ রানে শেষ হয় ভারতের ইনিংস।

২২৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে ভারত। দলীয় ৪ রানের মাথায় অধিনায়ক রোহিত ও শ্রেয়াস আইয়ারকে হারায় দলটি। সিরিজ জিতে যাওয়ায় এ ম্যাচে বিশ্রাম দেওয়া হয় লোকেশ রাহুল ও বিরাট কোহলিকে। ওপেনর করতে নামা ঋষভ পন্থ ২৭ রানে মাঠ ছাড়েন।

তবে ঝড় তুলে হারের ব্যবধান কমান বুড়ো বয়সে ভেলকি দেখানো দীনেশ কার্তিক। ২১ বলে তিনি ৪টি চার ও সমান ছক্কায় ৪৬ করেন। কেশভ মহারাজের বলে বোল্ড হন তিনি। শেষ দিকে দীপক চাহার ১৭ বলে ৩১ ও উমেশ যাদব ১৭ বলে ২০ রান করেন। ১৮.৩ ওভারে শেষ হয় তাদের ইনিংস।

দ. আফ্রিকা পেসারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট পান ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস। এছাড়া দুটি করে উইকেট দখল করেন ওয়েন পারনেল, লুঙ্গি এনগিডি ও মহারাজ।

টস হেরে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৩০ রান তোলেন কুইন্টন ডি কক ও টেম্বা বাভুমা। তবে বাজে ফর্মের মধ্যদিয়ে যাওয়া অধিনায়ক বাভুমা এদিনও ব্যর্থ হন। ৮ বলে ৩ রান করে যাদবের বলে আউট হন। কিন্তু দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে রাইলে রুশোকে নিয়ে ৪৭ বলে ৮৯ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ডি কক।

এই ওপেনার শেষ অবধি রান আউট হওয়ার আগে ৪৩ বলে ৬৮ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন। তিনি ৬টি চার ও ৪টি ছক্কা হাঁকান। তবে ভারতীয় বোলাররা দমাতে পারেননি রুশোকে। তৃতীয় উইকেটে তিনি ট্রিস্টান স্টাবসের সঙ্গে ফের ৪৪ বলে ৮৭ রানের জুটি গড়েন। এসময় তার একারই ছিল ৫৭ রান।

স্টাবস ২৩ রান করে দীপক চাহারের বলে বিদায় নেন। কিন্তু আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে প্রথম সেঞ্চুরি তুলতে ভুল করেননি রুশো। তিনি শেষ অবধি ৪৮ বলে ৭টি চার ও ৮টি ছক্কায় ১০০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। শেষ দিকে ডেভিড মিলার মাত্র ৫ বলে ৩টি ছক্কায় ১৯ রান করেন।