সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কাবা শরিফের ভেতরের দুর্লভ ছবি!

news-image

সৌদি আরবের মক্কা নগরীতে অবস্থিত পবিত্র কাবা শরিফ নিজ হাতে পরিষ্কার করেছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। দেশটির শাসক বাদশাহ সালমানের পক্ষে পরিচ্ছন্নতার এই কাজ করেন তিনি।

এ সময় বিভিন্ন মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতরা উপস্থিত ছিলেন। সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সৌদি প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাদশাহ সালমানের পক্ষে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান মসজিদুল হারামের পবিত্র কাবা পরিষ্কার করেন। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে পরিচ্ছন্নতা কাজে অংশ নেওয়ার আগে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান কাবা শরিফ তাওয়াফ করেন এবং সেখানে নামাজ আদায় ও দোয়া করেন।

কাবা শরিফের ভেতরের এই জায়গায় নামাজ পড়েছিলেন আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

আরব নিউজ বলছে, কাবা শরীফে পরিচ্ছন্নতা কাজের সময় সৌদি যুবরাজের সঙ্গে দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রী প্রিন্স আবদুল আজিজ বিন তুর্কি আল-ফয়সাল ছিলেন। এ সময় হারামাইন শরিফাইনের জেনারেল প্রেসিডেন্সির সভাপতি শেখ আবদুল রহমান আল-সুদাইস তাদের স্বাগত জানান। এছাড়া সৌদি আরবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও কাবা শরীফ পরিষ্কার ও ধোয়ায় অংশ নেন বলে জানিয়েছে আরব নিউজ।

কাবা শরিফের চাবি

কাবা শরিফ পরিস্কারের কাজে গোলাব জল উন্নতমানের উদের সুগন্ধি ও জমজমের পানি ব্যবহার করা হয়েছে। কাবার ভেতরের দেওয়ালগুলোও কাপড় দিয়ে পরিস্কার করা হয়েছে।

কাবা শরিফের ছাদে যাওয়ার দরজা

 

কাবা শরিফ ধোয়ার কাজে ৪৫ লিটার জমজমের পানি ব্যবহার করা হয়। এতে তায়েফের গোলাব জল ও  উন্নতমানের উদের সুগন্ধি মিশ্রিত করে ব্যবহার করা হয়।

ওপরের ঝুলন্ত এসব হলো বিভিন্ন সময় রাজা-বাদশাহর কাছ থেকে বাইতুল্লাহর জন্য দেওয়া কুপিপাতি। সোনা-রুপা ও ধাতব নানা ধরনের বাতি। এগুলো এভাবে সংরক্ষিত করা আছে।

 নিচে সাদা মার্বেলের বাক্সটিতে রয়েছে তেল, সুগন্ধি ও নানা সামগ্রী যা কাবা ধোয়া এবং পরিষ্কার করতে ব্যবহৃত হয়!
এখানে নামাজ পড়েছিলেন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

 

সূত্র : হারামাইন শরিফাইন, টুইটার