সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

খেলা হবে, খেলা: কাদের

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্দুকের নল থেকে আওয়ামী লীগের জন্ম হয়নি উল্লেখ করে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাজপথ থেকেই আওয়ামী লীগের জন্ম হয়েছে। খেলা হবে, খেলা। রাজপথে মোকাবিলা হবে।

তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দেখিয়ে দেবে- ‘আগামীর বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’।

বুধবার (১৭ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। সিরিজ বোমা হামলা দিবস উপলক্ষে এ বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।

সমাবেশে রাজধানীর বিভিন্ন ইউনিট ও আশপাশের এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে রমনায় আসেন আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনের এলাকা কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। বিকেল ৩টার পর সমাবেশ শুরু হয়ে চলে প্রায় সাড়ে ৫টা পর্যন্ত।

এদিকে সমাবেশের কারণে রাজধানীজুড়ে যানজট তৈরি হয়। মৎস্য ভবন ও শাহবাগ হয়ে গন্তব্যে যাওয়া যাত্রীদের দুর্ভোগের শিকার হতে হয়।

সমাবেশে বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগুন-সন্ত্রাস ও বোমাবাজি করে ক্ষমতায় যাওয়ার দিন শেষ। খেলা হবে আগামী নির্বাচনে। খেলা হবে রাজপথে। খেলা হবে, মোকাবিলা হবে।

বিএনপি গতবার জগাখিচুড়ির ঐক্য করে ধরা খেয়েছে, এবারও ধরা খাবে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, আগুন-সন্ত্রাস ও বোমাবাজি করে ক্ষমতায় যাওয়ার দিন শেষ।

এসময় তিনি দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে ওবায়দুল কাদের বলেন, ফখরুল সাহেব বলেন, ‘আওয়ামী লীগের পায়ের নিচে মাটি নেই।’ দেখেছেন? বঙ্গবন্ধুর মাজারে জনতার ঢল, সমাবেশে জনতার ঢল। আপনারা কী নিয়ে খেলবেন?

সমাবেশে উপস্থিত তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, পেট্রল বোমা হামলাকারীদের রাজপথ থেকে বিতাড়িত করতে আজ থেকে নামলো আওয়ামী লীগ। এখন বিএনপি লাফাচ্ছে। তাদের লাফানো পুকুরের ব্যাঙের মতো।

এদিকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, লাখ লাখ নেতাকর্মী রাজপথে নেমে এসেছে। যে কোনো মূল্যে উন্নয়ন অগ্রগতি অব্যাহত রাখবে আওয়ামী লীগ।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মান্নাফী প্রমুখ।

এছাড়া সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান। সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির ও মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল মৎস্য ভবন, কদম ফোয়ারা ও জিরো পয়েন্ট হয়ে গুলিস্তানে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।